ছোট একটি গ্রুপকে দায়িত্ব দেবো যারা ক্যাপিটাল মার্কেট শক্তিশালী করবে: অর্থমন্ত্রী

শেয়ারবাজার রিপোর্ট:  আমাদের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো স্বল্পমেয়াদে অর্থ (আমানত) নিয়ে দীর্ঘমেয়াদে ঋণ দিচ্ছে। এটা ব্যাংক খাতের জন্য স্বাস্থ্যসম্মত নয়। এ জায়গা থেকে বের হয়ে আসার জন্য ক্যাপিটাল মার্কেট সৃষ্টি করতে হবে। আমি ঠিক করেছি আগামী ২-১ মাসের মধ্যে ছোট একটি গ্রুপকে দায়িত্ব দেবো। যারা ক্যাপিটাল মার্কেট শক্তিশালী করবে বা ক্যাপিটাল মার্কেট গড়ে তুলবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকসের (বিএবি) কাছ থেকে প্রতিশ্রুতি পাওয়ার পর রবিবার (১ এপ্রিল) রাজধানীর একটি হোটেলে জনতা ব্যাংকের বার্ষিক সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।

জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যান লুনা শামসুদ্দোহার সভাপতিত্বে সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির, অর্থ বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. মুসলিম চৌধুরী। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন জনতা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুস সালাম আজাদ।

অর্থমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনের বছরে অনেকেই অর্থনৈতিক অস্থিতিশীলতার কথা বলেন। কিন্তু অস্থিতিশীল কিছু হওয়ার মতো আমি দেখি না। দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো রয়েছে। দেশের চলতি অর্থবছরে জিডিপির প্রবৃদ্ধি সাড়ে সাত শতাংশ হওয়ার সুযোগ রয়েছে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, আগামী এক মাসের মধ্যে সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে আনা হবে। সুদের হার বেড়ে যাওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘কী কারণে সুদের হার বাড়লো তা নিয়ে আমি নিজেও সংশয়ে আছি। এখন ব্যাংকে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে তারল্য সংকট বেড়ে গেছে। এ কারণে সুদের হার বাড়তে পারে। তবে মনে রাখতে হবে নির্বাচনের বছর মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি সরকারি প্রতিষ্ঠানের আমানতের ৫০ শতাংশ সরকারি ব্যাংকে এবং বাকি ৫০ শতাংশ বেসরকারি ব্যাংকে রাখা হবে।

তিনি বলেন, প্রত্যেক সরকারি চাকরিজীবীর সেবা দেওয়ার মনোভাব থাকা উচিত। সরকারি চাকরি হুকুম দেওয়ার জন্য নয়, জনগণকে সেবা দেওয়ার জন্য।

তিনি আরও বলেন,  এবিআর পদ্ধতি ব্যবহার করে ব্যাংকের দায়ের করা মামলার জট কমানোর সুযোগ আছে। এক্ষেত্রে ব্যাংকগুলোর খেলাপি ঋণ আদায় বাড়বে। যারা ঋণখেলাপি তারাও খেলাপির বদনাম থেকে মুক্তি পাবে।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/আ

আপনার মন্তব্য

Top