অনুসন্ধানী রিপোর্ট এর সকল সংবাদ

২০৭ কোম্পানির দিকে চেয়ে আছেন বিনিয়োগকারীরা

২০৭ কোম্পানির দিকে চেয়ে আছেন বিনিয়োগকারীরা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: আর কয়েকদিন বাদেই ‍জুন মাস শেষ হবে। ইতিমধ্যেই জুন ক্লোজিং কোম্পানিগুলো তাদের হিসেব-নিকেশ সমাপ্ত করতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে। আগামী আগস্ট মাস থেকেই জুন ক্লোজিং কোম্পানিগুলোর ডিভিডেন্ড আসা শুরু হয়ে যাবে। আর ভালো ডিভিডেন্ডের আশায় তালিকাভুক্ত জুন ক্লোজিংয়ের ২০৭ কোম্পানির দিকে মুখিয়ে আছেন বিনিয়োগকারীরা। ডিএসই থেকে প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত জুন ক্লোজিং হওয়া (ব্যাংক,

রিজার্ভে কর প্রস্তাবিত হলে ২০৯ কোম্পানিকে ১০ হাজার ৭৯২ কোটি টাকা অতিরিক্ত কর দিতে হবে

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: ২০১৯-২০ সালের প্রস্তাবিত বাজেটে শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত কোম্পানির অবণ্টিত মুনাফা ও রিজার্ভ পরিশোধিত মূলধনের ৫০ শতাংশের বেশি হলে তার ওপর ১৫ শতাংশ কর আরোপের প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এ প্রস্তাব কার্যকর হলে দেশের শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ২০৯ কোম্পানিকে ১০ হাজার ৭৯২ কোটি ৪৪ লাখ টাকা অতিরিক্ত কর দিতে হবে। ঢাকা স্টক একচেঞ্জের সূত্রে

সুকৌশলে ১৯ কোম্পানি নিয়ে কারসাজি!

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: ২০১৮ সাল থেকে এ পর্যন্ত সুকৌশলে তালিকাভুক্ত ১৯ কোম্পানির শেয়ার নিয়ে কারসাজি হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আগে গুজব ছড়িয়ে ফায়দা হাসিল করা গেলেও বর্তমান উড়ো খবরে কান দেন না বিনিয়োগকারীরা। তাইতো স্টক এক্সচেঞ্জে কোম্পানি সম্পর্কে বিভিন্ন নিউজ দিয়ে শেয়ার দর কৃত্রিমভাবে বাড়ানো হয়েছে। বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ও স্টক এক্সচেঞ্জের মনিটরিং

প্রথম প্রান্তিকে আর্থিক খাতের কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ৬৭ শতাংশ

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: দেশের শেয়ারবাজারে নন-ব্যাংকিং আর্থিক খাতে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর শেয়ার প্রতি মুনাফা (ইপিএস) আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ৬৭ শতাংশ বেড়েছে। কোম্পানিগুলোর প্রকাশিত ২০১৯ সালের প্রথম প্রান্তিকের (জানুয়ারি-মার্চ’১৯) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে। জানা গেছে, আর্থিক খাতে ২৩টি প্রতিষ্ঠান রয়েছে এর মধ্যে একমাত্র আইসিবি বাদে বাকী সব কোম্পানি আর্থিক হিসাব শেষে ডিসেম্বর। বাকী

অনিয়মে ৫ কোম্পানি: অন্ধকারে বিনিয়োগকারীরা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: নির্ধারিত সময় অতিবাহিত হলেও শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ৫ কোম্পানি তাদের নিরীক্ষক আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করছে না। এতে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নির্দেশনার অমান্য করা হচ্ছে। অন্যদিকে সঠিক সময়ে কোম্পানির কাছ থেকে কোম্পানির আয়-ব্যয়, মুনাফা ইত্যাদি সম্পর্কে অন্ধকারের রয়েছেন বিনিয়োগকারীরা। সিকিউরিটিজ আইন অনুযায়ী, হিসাব বছর শেষ হওয়ার ১২০ দিনের মধ্যে কোম্পানির নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন

প্রথম প্রান্তিকে ৬৭ শতাংশ ব্যাংকের ইপিএস বেড়েছে

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: দেশের শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকগুলো ২০১৮ সালে বেশিরভাগ ব্যাংকের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) কমলেও ২০১৯ সালের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ’১৯) বেশিরভাগ ব্যাংকের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) বেড়েছে। আলোচিত সময় প্রায় ৬৭ শতাংশ ব্যাংকের ইপিএস বেড়েছে। ব্যাংকগুলোর প্রকাশিত প্রথম প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে এ তথ্য পাওয়া যায়। প্রথম প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত

নগদ অর্থের সংকট কেটেছে ৬ ব্যাংকের

শেয়ারবাজার রিপোর্ট:  নগদ অর্থের সংকট থেকে বের হয়ে এসেছে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংক খাতের ৬ কোম্পানির। এগুলো হলো- ব্যাংক এশিয়া, সিটি ব্যাংক, ঢাকা ব্যাংক, ট্রাস্ট ব্যাংক, ইস্টার্ন  ব্যাংক এবং উত্তরা ব্যাংক লিমিটেড। প্রতিষ্ঠানগুলোর ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ সমাপ্ত বছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনায় এমন তথ্য পাওয়া গেছে। জানা যায়, ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ সমাপ্ত বছরের নগদ অর্থের ঘাটতি থেকে

সংকটে ৩১ কোম্পানির বিনিয়োগকারীরা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: বিগত বছরগুলোর বাজার পতন, কোম্পানির ব্যবসায়িক দুরাবস্থা, ডিভিডেন্ড না দেওয়া, উৎপাদন বন্ধ থাকা ইত্যাদি কারণে তালিকাভুক্ত ৩১ কোম্পানির শেয়ার দর ফেসভ্যালুর নিচে নেমে এসেছে। এতে কোম্পানির পাশাপাশি বিপত্তিতে রয়েছেন সেকেন্ডারি মার্কেটের বিনিয়োগকারীরা। যারা ফেসভ্যালু বা তার বেশি দিয়ে শেয়ার কিনেছেন তাদের পোর্টফোলিও’ ব্যালেন্স অর্ধেকে নেমে এসেছে। আর যারা মার্জিন ঋণ নিয়ে ব্যবসা করেছেন

ইস্যু মূল্যের নিচে কোম্পানির সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তি

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: ২০১১ সাল থেকে ২০১৯ সালের এপ্রিল পর্যন্ত ১১২টি কোম্পানি এবং মিউচুয়াল ফান্ড বাজারে তালিকাভুক্ত হয়েছে। সার্বিক বাজার পরিস্থিতি মন্দা থাকায় ফেসভ্যালুর নিচে নেমে এসেছে অনেক কোম্পানির শেয়ার দর। তবে সেদিকে দৃষ্টি না গেলেও যেসব কোম্পানি প্রিমিয়াম নিয়ে তালিকাভুক্ত হয়েছিল বর্তমানে সেগুলোর শেয়ার দর ইস্যু মূল্যের নিচে নেমে এসেছে বলে খবর প্রচারিত হচ্ছে। এর মধ্যে

পুঞ্জিভূত লোকসানী ৮ কোম্পানির অস্তিত্ব নিয়ে শঙ্কা!

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৮ কোম্পানির অস্তিত্ব নিয়ে বিনিয়োগকারীদের মাঝে শঙ্কা দিন দিন বাড়ছে। বছর শেষে প্রতিটি কোম্পানির কাছ থেকে ডিভিডেন্ড বা লভ্যাংশ আশা করেন বিনিয়োগকারীরা। অথচ তালিকাভুক্ত পর থেকে এসব কোম্পানি নানা ধরনের সমস্যা দেখিয়ে টানা বছরের পর বছর ডিভিডেন্ড থেকে বঞ্চিত করে আসছে বিনিয়োগকারীদের। অথচ ডিভিডেন্ড বঞ্চিত করলেও কোন কারন ছাড়াই টানা বাড়ছে এসব শেয়ারের

Top