অনুসন্ধানী রিপোর্ট এর সকল সংবাদ

যেসব কোম্পানির শেয়ার কিনে বিপাকে আইসিবি

যেসব কোম্পানির শেয়ার কিনে বিপাকে আইসিবি

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ১৭ কোম্পানির শেয়ার কিনে বিপাকে রয়েছে ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি)। যে দরে কোম্পানির শেয়ার কেনা হয়েছে তার অর্ধেকেরও কম দরে বর্তমানে এসব কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হচ্ছে। এতে আইসিবি ব্যাপক ক্ষতির মধ্যে রয়েছে। কোম্পানিগুলো হলো: এবি ব্যাংক , গোল্ডেন সন, ন্যাশনাল ফিড, তিতাস গ্যাস, সি অ্যান্ড এ টেক্সটাইল, ফ্যালিমিটেক্স (বিডি), মিথুন

হট আইটেমের ১৭ কোম্পানিতে আইসিবি’র নজরকাড়া মুনাফা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ১৭ কোম্পানির শেয়ার কিনে কয়েকগুণ মুনাফা করেছে ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি)। এসব কোম্পানির বেশিরভাগই জাঙ্ক শেয়ার নামে পরিচিত। তবে দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগে আইসিবির ঝুঁড়িতে এতো বিশাল পরিমাণ মুনাফা এসেছে। কোম্পানিগুলো হলো: স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক, আজিজ পাইপস, কে অ্যান্ড কিউ, ন্যাশনাল টিউবস, ব্যাটবিসি, জেমিনি সী ফুড, ন্যাশনাল টি, বাংলাদেশ ওয়েল্ডিং ইলেকট্রডস, ইন্ট্রাকো রি-ফুয়েলিং, এপেক্স

২০ খাতে আইসিবির বিনিয়োগ সাড়ে ১০ হাজার কোটি টাকা: সবচেয়ে বেশি বিদ্যুৎ খাতে

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: দেশের শেয়ারবাজারে ২০ খাতে ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) বিনিয়োগ রয়েছে ১০ হাজার ৫৬৯ কোটি ৬৩ লাখ ৩৮ হাজার ৭৯৫ টাকা। শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত প্রায় সব কোম্পানিতেই আইসিবির বিনিয়োগ রয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি বিনিয়োগ রয়েছে বিদ্যুৎ ও জ্বালানী খাতে। ২০১৭-১৮ হিসাব বছরের বার্ষিক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য পাওয়া যায়। তথ্যানুযায়ী, ২০১৭-১৮ হিসাব বছরের

১০ হাজার ৯৫০ কোটি টাকা উত্তোলনের প্রক্রিয়ায় ১৭ কোম্পানি

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: মূলধন বাড়াতে শেয়ার না বাড়িয়ে বন্ড ছাড়ছে পুঁজিবাজারে তালিকতাভুক্ত ১৭ কোম্পানি। চলতি বছরে প্রতিষ্ঠানগুলোকে বন্ড ছেড়ে ১০ হাজার ৯৫০ কোটি টাকা উত্তোলনের অনুমোদন দিয়েছে শেয়ারবাজারের নিয়ন্ত্রণ সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড একচেঞ্জে কমিশন (বিএসইসি)। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- ব্যাংক খাতের শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক, ইউনাইটেড কর্মাসিয়াল ব্যাংক, ট্রাস্ট ব্যাংক, ওয়ার ব্যাংক, ডাচ-বাংলা ব্যাংক, সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংক, আল-আরাফাহ ব্যাংক,

১৮৮ কোম্পানির ডিভিডেন্ডের অপেক্ষায় বিনিয়োগকারীরা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত জুন ক্লোজিং ১৮৮ কোম্পানির ডিভিডেন্ডের অপেক্ষায় রয়েছেন বিনিয়োগকারীরা। ৩০ জুন, ২০১৮ অর্থবছর শেষ হওয়া কোম্পানিগুলোর পর্ষদ সভা অনুষ্ঠান করার সময় এসে গেছে। কেননা সামনে জুন ক্লোজিং কোম্পানিগুলো তাদের ২০১৭-১৮ অর্থবছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করবে। সে প্রেক্ষিতে দীর্ঘদিনের লোকসানের মাত্রা কিছুটা সমন্বয়ের আশায় বিনিয়োগকারীর কোম্পানিগুলোর ডিভিডেন্ডের উপর আস্থা রাখছে। সিকিউরিটিজ এন্ড

উভয় সংকটে অস্তিত্বহীন ২৪ কোম্পানি

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত অস্তিত্বহীন কোম্পানিকে ঘিরে উভয় সংকট তৈরি হয়েছে। একদিকে মামলা করা না হলে স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি লিকুইড করা যাচ্ছে না। অন্যদিকে মামলা করার মতো কোনো বড় বিনিয়োগকারী বা পাওনাদার খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এছাড়া অস্তিত্বহীন এসব কোম্পানি অন্যত্র বিক্রি করায় মামলা করলে তার রায় অনুকূলে আসবে না। ফলে বিপুল পরিমাণ শেয়ার নিয়ে অনিচ্ছা সত্ত্বেও

অর্থ সংকটে ১৪ ব্যাংক: কেউ কেউ ভাল করলেও অনেকেই হতাশ করেছে

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: সুদ হারে বিশৃঙ্খলার কারণে আমানত কমে যাওয়ায়  পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ১৪ ব্যাংক নগদ অর্থের সংকটে রয়েছে। ব্যাংকগুলোর ২০১৮ বছরের অর্ধবার্ষিক অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন থেকে এমন তথ্য জানা গেছে। আর এ সংকটের মধ্যে আলোচিত সময়ে ১৪ ব্যাংকের মুনাফা কমেছে। আর দ্বিতীয় প্রান্তিকে (এপ্রিল-জুন) ১৩ ব্যাংকের মুনাফা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় কমেছে। এছাড়া ৫টি ব্যাংকের

তালিকাচ্যুতির আতঙ্কে ১৭ কোম্পানি

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: রহিমা ফুড ও মডার্ন ডাইংয়ের তালিকাচ্যুতির পর আরো ১৭ কোম্পানির বিনিয়োগকারীদের মনে আতঙ্ক বিরাজ করছে। আইন অনুযায়ী ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) চাইলে এসব কোম্পানিকে পুঁজিবাজার থেকে তালিকাচ্যুত করতে পারে। কোম্পানিগুলো হলো: বিডি ওয়েল্ডিং, বিডি সার্ভিস, বেক্সিমকো সিনথেটিকস, দুলামিয়া কটন, আইসিবি ইসলামী ব্যাংক, ইমাম বাটন, ইনফরমেশন সার্ভিস নেটওয়ার্ক, জুট স্পিনার্স, কে অ্যান্ড কিউ, মেঘনা

নাগালের বাইরে লো-পেইড আপের ৩৩ কোম্পানি: মারাত্মক ঝুঁকিতে ১৯টি

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত লো-পেইড আপের ৩৩ কোম্পানি নিয়ে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ তৈরি হয়েছে। দিন যত যাচ্ছে ততই এগুলোর শেয়ার দর বেড়ে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের নাগালের বাইরে চলে গেছে। যার ফলশ্রুতিতে পিই রেশিও বেড়ে এগুলোর শেয়ার দর ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থানেও চলে এসেছে। এছাড়া পিই রেশিও অনুযায়ী তালিকাভুক্ত ১৯ কোম্পানির শেয়ার দর মারাত্মক ঝুঁঁকির মধ্যে রয়েছে। তাই এসব কোম্পানির শেয়ারে

হতাশায় ১২ খাতের বিনিয়োগকারীরা: গেল বছর কোন খাতে কি পরিমাণ লেনদেন হলো দেখে নিন

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: ২০১৭-১৮ অর্থবছরে পুঁজিবাজারের লেনদেনে সবচেয়ে বেশি অবদান রেখেছে ব্যাংক খাত। এর পরের অবস্থানে রয়েছে প্রকৌশল, টেক্সটাইল, ওষুধ ও রসায়ন, ফিন্যান্সিয়াল ইন্সটিউট, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি, খাদ্য ও আনুষঙ্গিক, বিবিধ, টেলিযোগাযোগ, আইটি, বীমা, সিমেন্ট, সিরামিক, চামড়া, মিউচ্যুয়াল ফান্ড, সেবা ও আবাসন, ভ্রমণ ও অবকাশ, পাট, কাগজ ও মুদ্রণ এবং বন্ড। ডিএসই’র এই ২০ খাতের মধ্যে

Top