অনুসন্ধানী রিপোর্ট এর সকল সংবাদ

নিয়ন্ত্রণে ব্যস্ত আইডিআরএ: লোকসান গুণছে বিনিয়োগকারীরা

নিয়ন্ত্রণে ব্যস্ত আইডিআরএ: লোকসান গুণছে বিনিয়োগকারীরা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট : বাংলাদেশে বীমা ব্যবসার ইতিহাস পুরাতন হলেও এ খাতে এখনো যথাযথ উন্নয়ন ও প্রসার হয়নি। আর উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণহীন বীমা ব্যবসার নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইডিআরএ’র গঠন। কিন্তু সংস্থাটি বীমা ব্যবসার উন্নয়নে মনোযোগী না হয়ে নিয়ন্ত্রণের দিকে জোর দিচ্ছে বেশি। আর নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে সংস্থাটি সংশ্লিষ্টদের সাথে আলোচনা ছাড়াই কোম্পানিগুলোর স্বাভাবিক কার্যক্রমে অযাচিত

৩৫ কোম্পানির ঘাড়ে সাড়ে ৬০০ কোটি টাকা!

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: দুর্ঘটনার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহকের বীমাকৃত সম্পত্তির ক্ষতিপূরণ প্রদানে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৩৫টি নন-লাইফ বীমা কোম্পানি আইনি জটিলতার দোহাই দিয়ে গড়িমসি করছে। আর এই গড়িমসির কারণে ২০১৪ অর্থবছর শেষে তালিকাভুক্ত নন-লাইফ বীমা কোম্পানিগুলোতে ৬৪২ কোটি ৬৫ লাখ টাকার বীমা দাবী ঝুলে আছে। যদিও কোম্পানিগুলো বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) কাছে জমা দেয়া বার্ষিক আর্থিক

রাইটের টাকা এফডিআর! বঞ্চিত বিনিয়োগকারীরা

আহসান হাবীব : রাইট ইস্যুর মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে অর্থ উত্তোলন করে তা কোম্পানির কাজে ব্যবহার না করে এফডিআর করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে তালিকাভুক্ত ১৭টি নন লাইফ বীমা কোম্পানির  বিরুদ্ধে। এ কোম্পানিগুলো রাইট ইস্যুর আগে ভাল ডিভিডেন্ড দিলেও রাইট উত্তোলনের পরে অজ্ঞাত কারণে ডিভিডেন্ড দেয়ার হার কমিয়ে দিয়েছে। সংশ্লিষ্টদের অভিমত, এর ফলে রাইটের মাধ্যমে টাকা উত্তোলনের মূল

পুঁজিবাজারে বড় গ্রুপগুলোর জালিয়াতি!

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: দেশের পুঁজিবাজারে বড় গ্রুপগুলোর অপেক্ষাকৃত দুর্বল আর্থিক ভীত সম্পন্ন কোম্পানির তালিকাভুক্তির প্রবনতা বাড়ছে। গ্রুপের অন্যান্য ভালো কোম্পানি পুঁজিবাজারে না এনে দুর্বল কোম্পানি তালিকাভুক্ত করানো হচ্ছে। এতে তুলনামুলক কম মুনাফায় ও কম মূলধনের এসব প্রতিষ্ঠানের অল্প সময়ের মধ্যেই অবস্থা খারাপ হতে শুরু করে। এতে দীর্ঘমেয়াদে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন বিনিয়োগকারীরা। তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, বেশিরভাগ গ্রুপ অব

গ্রাহক ও বিনিয়োগকারীদের মাথায় কাঁঠাল ভাঙ্গছে জীবন বীমা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: জীবন বীমা কোম্পানিগুলো ব্যবস্থাপনা ব্যয়ের নামে বীমা গ্রাহক ও বিনিয়োগকারীদের মাথায় কাঁঠাল ভেঙ্গে খাচ্ছে। ২০১৪ হিসাব বছরে ২৮টি কোম্পানি নির্ধারিত আইনি সীমার অতিরিক্তই ৭৫৮ কোটি ৪৭ লাখ টাকা ব্যবস্থাপনা ব্যয় হিসেবে অবৈধভাবে খরচ করেছে। আর বীমা আইন অনুযায়ী এই টাকার ৯০ শতাংশ অর্থাৎ ৬৮২ কোটি ৬২ লাখ টাকা সাধারণ বীমা গ্রাহকের প্রাপ্য এবং

ছয় মিউচ্যুয়াল ফান্ড থেকে বিনিয়োগ প্রত্যাহার চায় স্পন্সররা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে মেয়াদি মিউচ্যুয়াল ফান্ডগুলোর মধ্যে এলআর গ্লোবাল অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট পরিচালিত সবগুলো ফান্ডই ক্রমাগত লোকসান দিচ্ছে। পরিণতিতে এসব ফান্ড থেকে বিনিয়োগকারীরা আশানুরুপ ডিভিডেন্ড পাচ্ছে না। এছাড়া সম্পদ ব্যবস্থাপক এলআর গ্লোবালের দুর্নীতি, অনিয়ম, অদক্ষতা ও অব্যবস্থাপনার জন্য ছয় মিউচ্যুয়াল ফান্ড থেকে বিনিয়োগ প্রত্যাহার করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে চাচ্ছেন ফান্ডগুলোর স্পন্সররা। তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, এলআর গ্লোবাল

মিউচ্যুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগকারীর লোকসান প্রায় সাড়ে ৩০০ কোটি টাকা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত মেয়াদি ৩৩টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করে ৩৪৮ কোটি ৫৭ লাখ টাকা লোকসানে পড়েছে সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীরা। ফান্ডগুলোর নীট সম্পদ মূল্য (এনএভি) ক্রয় মূল্যের তুলনায় বর্তমান বাজার মূল্য কমে যাওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। এই ৩৩টি ফান্ডের মধ্যে ক্রয় মূল্যের তুলনায় বাজার মূল্যে এনএভি কমেছে ২৮টি ফান্ডের। এই হিসেবে

যে কারণে বীমায় ডিভিডেন্ড কমেছে

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: রাজনৈতিক অস্থিরতায় আমদানি-রপ্তানি কমে যাওয়ার পাশাপাশি বীমা বিষয়ে জনসচেতনতার উন্নতি না হওয়া এবং বীমা নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ আইডিআরএ’র সমন্বয়হীন সিদ্ধান্তের কারণে ২০১৪ হিসাব বছরে নন-লাইফ বীমা কোম্পানিগুলো ভাল ব্যবসা করতে পারেনি। আর এর প্রভাবে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৬২ শতাংশ কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) কমেছে। পরিণতিতে ৪১ শতাংশ কোম্পানি ডিভিডেন্ড কমাতে বাধ্য হয়েছে। অথচ ২০১৩

৬ কোম্পানির রমরমা ব্যবসা: বঞ্চিত বিনিয়োগকারীরা

শেয়ারবাজার রিপোর্টঃ মুনাফায় থাকা সত্বেও কোনো প্রকার ডিভিডেন্ড না দিয়ে বিনিয়োগকারীদের বঞ্চিত করে চলেছে পুঁজিবাজারে তলিকাভুক্ত ৬ কোম্পানি। বিনিয়োগকারীদের টাকায় ব্যবসা পরিচালনার মাধ্যমে মুনাফা করলেও তাদেরই অবহেলিত করে রাখা হচ্ছে। অন্যদিকে পরিচালনা পর্ষদ কোম্পানির টাকায় আরাম-আয়েশে জীবন-যাপন করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, রংপুর ডেইরী এন্ড ফুড প্রোডাক্টস লিমিটেড, বিকন ফার্মা, ড্যাফোডিল কম্পিউটার, আরএন

মূল্য সংবেদনশীল তথ্য গোপন করে ড্যাফোডিলের জমজমাট ব্যবসা !

রেজাউল করিম রকি: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত তথ্য ও প্রযুক্তি খাতের কোম্পানি ড্যাফোডিল কম্পিউটার্স মূল্য সংবেদনশীল তথ্য গোপন করে জমজমাট ব্যবসা করে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। অথচ ধারাবাহিক মুনাফায় থাকলেও টানা দুই বছর শেয়ারহোল্ডারদের কোন ডিভিডেন্ড দিচ্ছে না। এ বিষয়ে কোম্পানির পক্ষ থেকে জানানো হয়, সহযোগী (সাবসিডিয়ারি) প্রতিষ্ঠানে পুনরায় বিনিয়োগ করার কারণে তারল্য সঙ্কট দেখা দেয়। তাই পরপর

Top