অনুসন্ধানী রিপোর্ট এর সকল সংবাদ

ফান্ড নিয়ে ভিআইপিবি’র কারসাজি

ফান্ড নিয়ে ভিআইপিবি’র কারসাজি

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: ভিআইপিবি অ্যাসেট ম্যানেজার পরিচালিত এনএলআই ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড ও এসইবিএল ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড নিয়ে কারসাজির অভিযোগ পাওয়া গেছে। ফান্ড ম্যানেজার ভিআইপিবি প্রায় ১৮ কোটি ৮৪ লাখ ৪৭ হাজার টাকা আইন ভেঙ্গে বিনিয়োগ করেছে। এর মধ্যে এনএলআই ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড ট্রাস্ট ডিডের ধারা ৩.২.৯ অমান্য করে ৬ কোটি টাকা এবং এসইবিএল ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড

নিলামে উঠছে লিবরা ইনফিউশন

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: আল-আরাফাহ ইসলামি ব্যাংক থেকে নেয়া ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ হওয়ায় অর্থঋণ আদালত আইন অনুযায়ী পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ওষধ ও রসায়ন খাতের লিবরা ইনফিউশন লিমিটেডের বন্ধক দেয়া সম্পত্তি নিলামে উঠছে। নিলামে লিবরা ইনফিউশনের রুপনগর শিল্প এলাকায় অবস্থিত ১৬৯ শতাংশ জমি ও জমির উপর একটি ৪ তলা ভবন (৫২ হাজার ৮৭৭ বর্গফুট), একটি ৫ তলা ভবন (১৪

বিচ হ্যাচারিতে ২৪ কোটি টাকার অনিয়ম

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাতের বিচ হ্যাচারি লি: আয়কর, ব্যাংক ঋণ, অন্যের কাছ থেকে পাওনা টাকা আদায় বাবদ ২৩ কোটি ৯৭ লাখ ২০ হাজার ২২৩ টাকা অর্থাৎ প্রায় ২৪ কোটি টাকার অনিয়ম করেছে। প্রতিষ্ঠানটির বাৎসরিক আয় ব্যয় হিসাব কালে নিরীক্ষক এসব বিষয়ে সংগঠিত অনিয়মের প্রমাণ পায়। বিচ হ্যাচারির ৩১ ডিসেম্বর ২০১৪ সমাপ্ত

বড় শাস্তির মুখে বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স: আইপিও নিয়ে অনিশ্চয়তা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: বড় শাস্তির মুখে পড়তে যাচ্ছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। ব্যবস্থাপনা পরিচালক সরিয়ে এবং পরিচালনা পর্ষদ ভেঙ্গে দিয়ে নতুন করে পর্ষদ নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে ইন্স্যুরেন্স ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড রেগুলেটরি অথোরিটি (আইডিআরএ)। মূলধন বাড়ানো (ক্যাপিটাল রেইজিং) নিয়ে কেলেঙ্কারীর রেশ ধরে এমন সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে সংস্থাটি। আর স্থগিত আইপিও প্রক্রিয়া কবে শুরু হবে তারও কোনো

৭ কোম্পানির অস্তিত্ব নিয়ে শঙ্কায় বিনিয়োগকারীরা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৭ কোম্পানির অস্তিত্ব নিয়ে বিনিয়োগকারীদের শঙ্কা দিন দিন বাড়ছে। বছর শেষে প্রতিটি কোম্পানির কাছ থেকে ডিভিডেন্ড বা লভ্যাংশ আশা করেন বিনিয়োগকারীরা। অথচ তালিকাভুক্ত এই ৭ কোম্পানি নানা ধরণের সমস্যা দেখিয়ে টানা পাঁচ বছর যাবৎ ডিভিডেন্ড থেকে বঞ্চিত করে আসছে বিনিয়োগকারীদের। টানা লোকসানে ঋণ ও দায়ের পরিমাণ সম্পদের তুলনায় আশঙ্কাজনক হারে বাড়তে

বীচ হ্যাচারীর উৎপাদন বন্ধ: মূল্য সংবেদনশীল তথ্য গোপন

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: মূল্য সংবেদনশীল তথ্য প্রকাশ না করেই উৎপাদন বন্ধ করে দিয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত খাদ্য ও আনুষাঙ্গিক খাতের বীচ হ্যাচারি লিমিটেড। এছাড়াও অর্থবছর শেষ হয়ে যাওয়ার ছয় মাস পার হয়ে গেলেও এখনো বোর্ড সভা ডাকেনি কোম্পানি কতৃপক্ষ। ফলে প্রাপ্য ডিভিডেন্ড থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন বিনিয়োগকারীরা। সিকিউরিটিজ আইনে কোম্পানির “উৎপাদনকে” সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মুল্য সংবেদনশীল তথ্য হওয়া সত্ত্বেও

সরকারী টাকায় বিডিবিএলের বিলাসিতা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: শতভাগ রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বিশেষায়িত বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেডে (বিডিবিএল) চলছে সরকারী টাকা নষ্ট করার মহোৎসব। দুটি স্টক এক্সচেঞ্জের ট্রেক লাইসেন্স পাওয়া এ কোম্পানির একটি ব্রোকারেজ হাউজ থাকলেও প্রয়োজন ছাড়াই আরেকটি ব্রোকারেজ হাউজ খোলা হয়েছে সাবসিডিয়ারি হিসেবে। অন্যদিকে এক বছর হয়ে গেলেও এখনও কার্যক্রম শুরু করতে পারেনি নতুন হাউজটি। জানা যায়, বিডিবিএল ব্যাংকের সাবসিডিয়ারি হিসেবে

কেডিএস এক্সেসরিজ: পুঁজিবাজারে বড় গ্রুপগুলোর জালিয়াতি

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: অতিরিক্ত প্রিমিয়াম ও অপেক্ষাকৃত দুর্বল আর্থিক ভিত নিয়ে পুঁজিবাজারে আসছে কেডিএস এক্সেসরিজ লিমিটেড। ১৯.৬৩ টাকা শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হওয়া সত্ত্বেও কোম্পানিটি প্রতিটি শেয়ারের বিপরীতে নিচ্ছে ২০ টাকা (১০ টাকা প্রিমিয়াম)। এছাড়া কোম্পানিটি পুঁজিবাজার থেকে ২৪ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। যার প্রায় ৩০ শতাংশ দিয়ে কোম্পানির ঋণ পরিশোধ করা হবে। অর্থাৎ বিনিয়োগকারীদের

৪ কোম্পানির ডি‌ভি‌ডেন্ড অ‌নি‌শ্চিত

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: আইন লঙ্ঘন করে ব্যবস্থাপনা খাতে অতিরিক্ত ব্যয় করায় চার বীমা কোম্পানিকে অ্যাকচ্যুয়ারিয়াল ভ্যালুয়েশন (মূল্যায়ন) বেসিস অনুমোদন দেয়নি বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)। পরিণতিতে এই চার বীমা কোম্পানি ২০১৪ অর্থবছরের জন্য শেয়ারহোল্ডার ও পলিসিহোল্ডারদের কোন ডিভিডেন্ড দিতে পারছে না। কোম্পানিগুলো হলো: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত পদ্মা ইসলামি লাইফ ইন্স্যুরেন্স ও প্রগ্রেসিভ লাইফ ইন্স্যুরেন্স এবং পুঁজিবাজারে অ-তালিকাভুক্ত

অনৈতিক আয়ে পরিচালকদের পোয়াবারো

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: জীবন বীমা কোম্পানিগুলোর অনিচ্ছার কারণে বাংলাদেশে বীমা পলিসি তামাদির হার বাড়ছে। আর পলিসি তামাদি হয়ে গেলে গ্রাহককে আর এ টাকা ফেরত দিতে হয়না। এদিকে তামাদির টাকা কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদনেও সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখ করা থাকে না। পরিণতিতে কোম্পানিগুলো কোন জবাবদিহিতা ছাড়াই তামাদির টাকা খরচ করতে পারে। আর বিপুল পরিমাণ এই অর্থে কোম্পানির পরিচালকদের সুসময় ভালো

Top