পাঠকের কলাম এর সকল সংবাদ

বর্তমান পুঁজিবাজারের প্রধান সমস্যা ২টি

বর্তমান পুঁজিবাজারের প্রধান সমস্যা ২টি

বর্তমান পুঁজিবাজারে যে রক্তক্ষরণ হচ্ছে তা জানার জন্য খুব একটা কষ্ট করার দরকার হয়না। পুঁজিবাজারে কান পাতলেই বিনিয়োগকারীদের কান্না শোনা যায়। তাদের আত্মচিৎকারে বর্তমান পুঁজিবাজারের অবস্থা খুবই নাজুক। ব্রোকারেজ হাউজগুলোতে গেলে এখন আর বিনিয়োগকারীদের খুঁজে পাওয়া যায় না। দুই একজনকে খুঁজে পাওয়া গেলেও তাদের সাথে কথা বললেই জানা যায় তাদের জীবন কতটা দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে।

“শেয়ার বাই ব্যাক” আইন পুঁজিবাজারের জন্য যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত হবে

“শেয়ার বাই ব্যাক” আইন বর্তমান পুঁজিবাজারের প্রেক্ষাপটে যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত হবে। শুধু মাত্র এই একটি আইন পুরো পুঁজিবাজারের চেহারা পরিবর্তন করে দিতে পারে। বর্তমান পুঁজিবাজার একটি ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। ২০১০ সালে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের দৈনিক গড় লেনদেন ছিল ১৬৪৩ কোটি টাকা। সেখানে গত ৬ মাসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের গড় লেনদেন হচ্ছে ৩৯৭ কোটি টাকা। গত ১০

১১ পদক্ষেপে ঘুরে দাঁড়াবে পুঁজিবাজার

আজ দুঃখ ভারাক্রান্ত হ্রদয় নিয়ে আমাদের মাননীয় অর্থমন্ত্রী মহদোয় এর নিকট একজন নাদান বিনিয়োগকারীর কিছু আবদার উপস্থাপন করার সাহস করছি। আমি ধরেই নিচ্ছি এই প্রস্তাবনা গুলো ওনার নজরে আসবে না হয়ত। লেখার হাত আমার তেমন ভালো নয়। আমি শুভ্র সরকার। পূঁজিবাজারের অনেকের মতই আমিও ধরা আছি। মানীয় মন্ত্রী মহদোয় আজকের বাজারের ভিত শক্ত করতে আমার

ভালো কোম্পানি বিনিয়োগকারীদের দেউলিয়া করবে না

আমি আগেও অনেকবার বলেছি দীর্ঘ মেয়াদে প্রতিটি শেয়ার তার প্রকৃত অবস্থানে ফিরে আসবে, আর এটাই শেয়ারের ধর্ম। বাজারের বর্তমান অবস্থা একদিনে সৃষ্টি হয়নি। এর জন্য নিয়ন্ত্রক সংস্থা যেমন দায়ী ঠিক তেমনি আমরা বিনিয়োগকারীরাও সমান ভাবে দায়ী। গত ১০ বছরে অস্তিত্ব বিহীন কোম্পানিগুলো তালিকাভুক্ত করে নিয়ন্ত্রক সংস্থা যেমন বাজারের অস্তিত্বকে সংকটে ফেলে দিয়েছে। ঠিক তেমনি নিয়ন্ত্রক

বিনিয়োগকারীদের জন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস

শেয়ারবাজারে প্রতিদিনই লেনদেনের নানা চিত্র দেখা যায়। কোম্পানির ভলিউম কম ট্রেড হওয়া কিন্তু দাম না কমা, অল্প ভলিউমের সঙ্গে দাম বৃদ্ধি পাওয়া, দাম বৃদ্ধির সঙ্গে ভলিউম বেড়ে যাওয়া ইত্যাদি নানা চিত্র শেয়ারবাজারে দেখা যায়। দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতার আলোকে আজ সাধারণ বিনিয়োগকারী ভাইবোনদের জন্য এ ব্যাপারে কিছু টিপস দেওয়া হলো। যারা এই টিপসগুলো জানেন তারা আবার দেখে নিন

রানার অটোমোবাইলসের আইপিও শেয়ারের তথ্য

আগামীকাল থেকে দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে রানার অটোমোবাইলসের লেনদেন শুরু হবে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) কোম্পানি ট্রেডিং কোড হবে “RUNNERAUTO”। আর কোম্পানি কোড হবে ১৩২৪৬। আর চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) স্ক্রিপ আইডি ১৬০৩৯। নিচে রানারের আইপিও শেয়ারের তথ্য তুলে ধরা হলো:     ★★ Runner Automobiles LTD ★★ ———————————————————————- Issue Date:06-01-2019 ———————————————————————– Total IPo share:

পুঁজিবাজার বিকাশে সবচেয়ে বড় বাধা দূর করতে হবে

শেয়ারের দাম উঠা-নামার সাথে কোম্পানির আয়ের কোন সম্পর্ক নেই। তবে কোম্পানির আয় বাড়লে শেয়ারের চাহিদা বাড়ে। আর চাহিদা বাড়লে শেয়ারের দামও বাড়ে। এটাই শেয়ারের ধর্ম। অথচ আমাদের দেশে এর পুরোপুরি বিপরীত চিত্র দেখতে পাই। শেয়ারের দাম বাড়লে কোম্পানির আয় বাড়তে থাকে আর শেয়ারের দাম কমতে থাকলে কোম্পানির আয়ও কমতে থাকে। এমনটি হবার কারন হচ্ছে কোম্পানিগুলোর

আহত পুঁজিবাজার ৯ বছরে হয়েছে নিহত

দেশের পুঁজিবাজারে ২০১০ সালে বড় ধরনের ধ্বসের পর সরকার বাজারের আস্থা ফিরিয়ে আনার জন্য বেশ কিছু পদক্ষেপ নেয়। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে পুজিবাজারের নিয়ন্ত্রন সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) কে ঢেলে সাজানো। কিন্তু দুঃখ জনক হলেও সত্য বর্তমান কমিশনের নিয়ন্ত্রনে ২০১০ সালের আহত পুজিবাজার ৯ বছরে হয়েছে নিহত। পৃথিবীর যে কোন বাজারের প্রথম

এমারেল্ড অয়েল বিনিয়োগকারীদের নি:স্ব করে দেবে

এটা নিশ্চিত ভাবেই বলা যায় যাদের হাতে শেষ পর্যন্ত এমারেল্ড অয়েলের শেয়ারটি থাকবে তারা জ্বলে পুড়ে নিঃস্ব হয়ে যাবে। অতিতের ইতিহাস ঘাঁটলে এই রকম অনেক কোম্পানিই পাওয়া যাবে যে গুলো এক সময় বাজারে তালিকাভুক্ত ছিল কিন্তু এখন তাদের অস্তিত্ব নেই। তবে বিনিয়োগকারীদের হাতে শেয়ার গুলো রয়েই গেছে যার মূল্য হতে পারে শুধুই বিনিয়োগকারীদের চোখের পানি।

জেনেক্স ইনফোসিসের আইপিও শেয়ারের তথ্য

মো: সোহেল : প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা জেনেক্স ইনফোসিস লিমিটেডের শেয়ার আগামীকাল দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেন শুরু হবে। “এন” ক্যাটাগরিতে লেনদেন শুরু করর জেনেক্স ইনফোসিস ট্রেডিং কোড হবে “GENEXIL”। ডিএসইতে কোম্পানিটির কোম্পানি কোড হবে 22650। নিচে কোম্পানির আইপিও শেয়ারের তথ্য তুলে ধরা হলো: লেনদেন ইস্যু তারিখ: ২৩.১০.২০১৮ আইপিও অফার: ২ কোটি শেয়ার (সাধারণ বিনিয়োগকারীর জন্য

Top