পাঠকের কলাম এর সকল সংবাদ

Pathok_2

যারা ডেইলি ট্রেড করে তাদের লাভের জন্যে টিপস

যারা ডেইলি ট্রেড করে তাদের লাভের জন্যে টিপস

আমাদের শেয়ার বাজারে ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরা যারা ডেইলি ট্রেড করে বা অল্প দিনে লাভ পেতে চাই তারাই অধিকাংশ সময় ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তার জন্য কয়েকটি কারন রয়েছে ।তার একটি কারন ও প্রতিকার  আমি বিস্তারিতভাবে তুলে ধরছি। প্রথম কারনঃ সঠিক সময়ে শেয়ার কিনতে না পারা। কারন লাভ বা ক্ষতি সব সময় ক্রয় মূল্যের ওপর নির্ভর করে। বাংলাদেশের শেয়ার বাজারে

Pathok_2

ব্যাংক সেক্টর: সাধু সাবধান

আজ আগস্ট মাসের ১৪ তারিখ চলে। সামনে জুন closing শেয়ার গুলোর ডিভিডেন্ড আসতে শুরু করবে। কিন্তু এই অসময়ে ব্যাংকের শেয়ার গুলোর মূল্য যে ভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে তা কোন ভাবেই স্বাভাবিক বলা যায় না। বাজার ভালো হলে ব্যাংক গুলোও ভালো করবে তাতে কোন সন্দেহ নেই। কিন্তু সব কিছুর একটা সময় থাকে। সময়ের কাজ অসময়ে করাটা কোন

Pathok_2

সাইকোলজিক্যাল গেমে ধরা খাচ্ছেন বিনিয়োগকারীরা

পুঁজিবাজারে বিডি অটোকারস তালিকাভুক্ত হয়েছে অনেক বছর আগেই। ৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা পরিশোধিত মূলধনের এ কোম্পানির ব্যবসা বলতে তেজগাঁওতে সিএনজি স্টেশন রয়েছে। তারওপর নড়ে চড়ে অবস্থা। বছরে মুনাফা করে মাত্র ১৪ লাখ টাকার কিছু বেশি। ১ কোটি ৩৯ লাখ টাকা পুঞ্জীভূত লোকসানের এ কোম্পানি গতবছর নামেমাত্র ৩ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড দিয়ে ‘বি’ ক্যাটাগরিতে রয়েছে।

Pathok_2

ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের ক্ষতির প্রকৃত কারণ ও তার সমাধান

আমাদের দেশের শেয়ার বাজার অনেক দিন ধরেই চলমান। কিন্তু এই বাজারের ছবি আমার এই উদাহরণ এর মাধ্যমেই সহজে অনুমেয়। আর তা হল একটি খোলা চারিদিকে ঘেরা মাঠে দশ থেকে বারটি বড় মহিষ ছিল এবং একশ থেকে একশ দশটি ছাগল ছিল। প্রতিদিন বড় মাপের খাবার ওখানে দেওয়া হচ্ছিল। এভাবে দিন দিন ঘেরা মাঠের মহিষগুলো শরীরের শক্তিতে

Pathok_2

বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের গন্তব্য অনেক দূর

একটি গতিশীল পুজিবাজারের যে কয়টি লক্ষণ থাকে তার সবগুলো বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে বিদ্যমান। বর্তমানে বাংলাদেশের পুঁজিবাজার যে আচরণ করছে তা একটি সুস্থ এবং গতিশীল পুঁজিবাজারের প্রতিচ্ছবি। . ইনডেক্সের উঠানামা পুঁজিবাজারের একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। শেয়ারের দাম বেড়ে গেলে দাম সংশোধন হবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু যে বিষয়টি লক্ষণীয় তা হচ্ছে শেয়ার গুলোর দাম যে হারে বাড়ছে সেই হারে

united air

ইউনাইটেড এয়ারওয়েজে হঠাৎ চমক: বিদেশিদের হাতে ১২.১৮ শতাংশ শেয়ার

হঠাৎ করেই চমক দেখিয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেড। এতোদিন এ কোম্পানির বিদেশিদের কোটায় কোনো শেয়ার ছিল না। কিন্তু হঠাৎ করেই পাবলিকের হাতে থাকা শেয়ার কমে গিয়ে বিদেশিদের কোটায় ১২.১৮ শতাংশ শেয়ার দেখানো হয়েছে। যা ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের জন্য খুশির খবর। সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে গত ২১ ডিসেম্বর, ২০১৬ সালে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি ৩১২ কোটি

18588862_126014814636215_4876503151568502723_o

ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ নিয়ে বিনিয়োগকারীদের আর্তনাদ কে শুনবে?

ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ মত একটা বাজে কোম্পানিকে কেনো ‘বিএসইসি” ৩১২ কোটি টাকা উত্তোলনের অনুমোদন দিলো? কোম্পানি কি বিএসইসির মান রাখতে পেরেছে কি? না অাদৌ পারবে? বিএসইসি যখন নতুন করে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজকে ৭টি বিমান কেনার জন্য প্রাইভেট প্লেসমেন্ট শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে ৩১২ কোটি ৮০ লাখ ৮৮ হাজার টাকা উত্তোলনের অনুমোদন সুখবর জানালো। গত ২২.১২.১৬ ইং তারিখে ‘বিএসইসি

ifad

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত দেশি কোম্পানিগুলো এগিয়ে যাচ্ছে

এতো দিন শুধু দেখে এসেছি বিদেশী কোম্পানিগুলো, দেশি কোম্পানিগুলোকে কিনে নিতে। দেশি কোম্পানিগুলো তাদের প্রোডাক্ট বিদেশিদের কাছে বিক্রি করতে পারলেই খুশী হতো। অতীতে আমরা ACI কোম্পানির কিছু প্রোডাক্ট বিদেশিদের কাছে বিক্রি করতে দেখেছি। আর এতেই বিনিয়োগকারীরা সরগরম ছিল ঐ শেয়ারটি নিয়ে। এছাড়াও দেশি কোম্পানিগুলো যদি কোন ভাবে বিদেশী বিনিয়োগকারীদের তাদের কোম্পানির অংশীদার করতে পারে তাহলে

Pathok_2

মার্কেট খারাপ করার জন্য কোম্পানির পরিচালকরা দায়ী

টানা ৭ বছর চেষ্টা করেও বাজার ঠিক করতে পারলেন না নিয়ন্ত্রক সংস্থা। যদি ঠিকমতো তদন্ত করা হতো  বাজার ঠিকই স্থিতিশীল হতো। বর্তমান মার্কেটে কিছু কোম্পানির ডিরেক্টররা ব্যবসা করে যাচ্ছেন। তাদের শেয়ার বিক্রি করে কোম্পানির খারাপ ইপিএস দেখাচ্ছে। আর বাজার নিয়ন্ত্রণ সংস্থা এই বিষয় গুলো তে কোন ধরনের দৃষ্টি দিচ্ছেন না। দেশে কি এমন ঘটলো যে একটা ফিনান্সিয়াল

Pathok_2

সরকার চাইলেই শেয়ারবাজার স্থিতিশীল সম্ভব

আমাদের দেশের শেয়ার বাজারকে কোন না কোন কারণে নিয়ন্ত্রক সংস্থা BSEC, DSE, BB, ICB এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠানগুলোর নিয়ন্ত্রণ করতে হয়। আর নিয়ন্ত্রণ যেহেতু করতেই হয় তাই আমার এ লেখার প্রয়াস । আমাদের সরকার যেহেতু জনবান্ধব , বিনিয়োগ বান্ধব যে সরকার বহুসংখ্যক ছিট মহল বাসীদের ৬৮ বছরের সমস্যার সমাধান করে সবার জন্য বাড়ি ঘর তুলে দিয়েছেন

Top