সম্পাদকীয় এর সকল সংবাদ

বিনিয়োগকারীদের সুবিধা বঞ্চিত করা যাবেনা

বিনিয়োগকারীদের সুবিধা বঞ্চিত করা যাবেনা

অবশেষে আটকেই গেল নন-লাইফ বীমা খাতের কোম্পানি বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) প্রক্রিয়া। দুই নিয়ন্ত্রক সংস্থার টানা পোড়েনে দুর্দশায় পড়লো কোম্পানিটি। বিনিয়োগকারীরাও অবশ্য ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। কিন্তু সবচেয়ে বড় যে ক্ষতি হলো সেটি প্রতিষ্ঠান দুটির মর্যাদায়। কারন আইপিওর চাঁদা সংগ্রহের মাত্র একদিন আগে এসে বীমা নিয়ন্ত্রক সংস্থার মোড়লীপনায় কোম্পানিটির ওপর এমন একটি ধাক্কায়

দয়া করে একবার যান অর্থমন্ত্রীর কাছে

শেয়ার বাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকগুলোর এক্সপোজার লিমিট পরিপালনের দিনক্ষণ নিয়ে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে একটা উদ্বিগ্নভাব লক্ষ্য করা যাচ্ছে। পুঁজিবাজারে শীর্ষ খাত হিসাবে পরিচিত ব্যাংকগুলোতেই শেয়ার হোল্ডারের সংখ্যা সর্বাধিক। অধিকাংশ সময়ই এই খাতের লেনদেন এবং সূচকের গতির সাথে গোটা শেয়ার বাজারের লেনদেন ও সূচকের গতি নির্ভরশীল থাকে। আরো একটু পরিষ্কার করে বললে বলা যায় যে, ব্যাংকের শেয়ার নেই

এতো আকাঙ্খার বাজেট বিনিয়োগকারীদের কি দিলো?

মে মাসের ১৭ তারিখ বিকালে “দুধ-দধি-ঘি খাবেন আর গরুটিকে এক মুঠো ঘাসও খাওয়াবেন না সেটা অমানবিক”শিরোনামে অর্থমন্ত্রীর বাজেট বক্তৃতার ওপর একটি আগাম সম্পাদকীয় প্রকাশ করেছিলাম। ওই লেখাটিতে শেয়ার বাজার নিয়ে অর্থমন্ত্রীর তুচ্ছ তাচ্ছিল্য বক্তব্য এবং এই বিশাল মার্কেটটির ব্যাপারে সরকারের নিস্পৃহ থাকার বিষয়টি জোরালো বক্তব্য দিয়ে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। সম্পাদকীয়টি লেখা শেষ করেই সেটি

পোর্টফোলিও সন্তান সমতুল্য: এতে জবরদস্তি হস্তক্ষেপ অপমানজনক

শেয়ার বাজারের যেসব বিনিয়োগকারী বিভিন্ন হাউজ বা মার্চেন্ট ব্যাংকের কাছ থেকে মার্জিন ঋণ নিয়ে এতদিন ব্যবসা করেছেন তারা এখন থেকে তাদের নিজস্ব ব্যাংক হিসাবের খাতায় আর কোম্পানির নগদ লভ্যাংশের টাকা পাবেননা। এই টাকা যোগ হবে সংশ্লিষ্ট হাউজে তার নামের হিসাবের খাতায়। পরে এই টাকা বিনিয়োগকারীর ঋণের টাকার সাথে সমন্বয় করে স্থিতি নির্ধারণ হবে। সম্প্রতি পুঁজিবাজার

দুধ-দধি-ঘি খাবেন আর গরুটিকে এক মুঠো ঘাসও খাওয়াবেন না সেটা অমানবিক

সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামি ৪ জুন সংসদে উপস্থাপিত হবে জাতীয় বাজেট। বাজেটের আকার, ধরণ এবং বিষয়বস্তু ঠিক করতে এপ্রিল মাসের শুরু থেকেই দৌড়ঝাপ শুরু করেছেন অর্থমন্ত্রী এবং এ সংশ্লিষ্ট প্রধান প্রতিষ্ঠান জতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। কয়েক লক্ষকোটি টাকার বাজেট নিয়ে দীর্ঘ সময় ধরে এবং ব্যাপক আকারে আলোচনা এবং হিসাব নিকেষ হবে এটাই স্বাভাবিক। এ

বিএসইসিকে সাধুবাদ: তবে উদ্যোগ নিতে হবে পতন অসহনীয় হওয়ার আগেই

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) একটি ইশারাতেই গত কয়েকদিন ধরে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাজার। যদিও বাজার যে পর্যায়ে চলে গিয়েছিল তার চেয়ে নিচে নামার আর কোন রাস্তা ছিলনা। তারপরও আমরা মনে করি শেষ পর্যায়ে হলেও বাজার ধরে রাখার জন্য বিএসইসির উদ্যোগটিতে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক বিনিয়োগকারীরা প্রাণ ফিরে পেয়েছেন। তারা এতোদিন অব্যাহত পতন দেখতে দেখতে বাজার

মৃতপ্রায় বাজার : মমতাময়ী মা হয়ে প্রধানমন্ত্রী নিশ্চয়ই নিশ্চুপ থাকবেন না

দেশের অর্থনীতির একটি বড় অংশ জুড়ে শেয়ার বাজারের অবস্থান। অর্থনীতির যতগুলো শাখাপ্রশাখা আছে তার মধ্যে সম্মৃদ্ধ এবং নগদ লেনদেনের ক্ষেত্রে  সব দেশের জন্য সব সময় শীর্ষস্থানে থাকে শেয়ার বাজার। বর্তমানে আমাদের দেশের মৃতপ্রায় শেয়ার বাজার নিভু নিভু করে খুড়িয়ে চলছে। তারপরও এর দৈনিক লেনদেন ৩০০ থেকে ৫০০ কোটি টাকার মধ্যে ওঠানামা করছে। আর সুস্থ-সবল বাজারে

আইডিআরএ’র মতো বাংলাদেশ ব্যাংকেরও শুভবুদ্ধির উদয় হোক

শেয়ার হোল্ডারদের স্বার্থ রক্ষায় একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণকর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)। সিদ্ধান্তের আলোকে এখন থেকে যে সব জীবন বীমা কোম্পানি ব্যবস্থাপনা ব্যয় হিসেবে নিয়ম ভেঙ্গে অতিরিক্ত খরচ দেখাবে তাদেরকে লভ্যাংশ  দেয়ার ক্ষেত্রে  নিয়ন্ত্রণকারী এ সংস্থাটি আর বাধা দেবেনা। ফলে অতিরিক্ত ব্যয়ের দায়ে অভিযুক্ত জীবনবীমা কোম্পানিগুলোও এখন  লভ্যাংশ দিতে পারবে। নানা সঙ্কটে জর্জড়িত এবং প্রায়

আধুনিকায়নে অনেক পিছিয়ে পুঁজিবাজার

দেশ এগিয়েছে অনেক দূর। মানুষের মধ্যেও হয়েছে অনেক পরিবর্তন। ব্যবসা বাণিজ্যের সর্বত্রই এখন ই-কমার্সের সুবাতাস বইছে। রাজনৈতিকভাবে গোটা দেশ ডিজিটাল হয়েছে সে তো অনেক আগের খবর। মানুষের হাতে হাতে এখন মোবাইলে ইন্টারনেট। বাংলাদেশের অনেক জায়গায় বসে এখন বিশ্বের বিভিন্ন স্টক এক্সচেঞ্জে নিয়মিত ব্যবসা করছেন অনেক মানুষ। অথচ হাত বাড়ালেই আমাদের দুয়ারে যে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের

চেয়েছিলাম আশঙ্কাটি মিথ্যা হোক

মৃত প্রায় পুঁজিবাজারকে এখনো সচল রাখতে বিএসইসি, ডিএসই এবং সিএসইসহ এই সেক্টরের সব স্টেক হোল্ডারগণ যখন নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে ঠিক সেই মুহূর্তে ডিভিডেন্ডের মত অতি স্পর্শকাতর বিষয় ফাঁস হয়ে যাওয়ার খবরে আমরা স্তম্ভিত, মর্মাহত এবং উদ্বিগ্ন। গত বুধবার অর্থাৎ ৪ মার্চ পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট শীর্ষ অন লাইন দৈনিক “শেয়ারবাজার নিউজ ডটকম” পত্রিকায় সিমেন্ট খাতের লাফার্জ

Top