Tag Archives: সিএনএ টেক্সটাইল

নজর জেড ক্যাটাগরিতে: টার্গেট কম দরের শেয়ার

নজর জেড ক্যাটাগরিতে: টার্গেট কম দরের শেয়ার

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: সম্প্রতি তালিকাভুক্ত ‘জেড’ ক্যাটাগরির শেয়ারগুলো বেশ ভালো মুভমেন্ট করছে। উৎপাদনে না থাকা, নিয়মিত কমপ্লায়েন্স না হওয়া স্বত্ত্বেও কোনো রকম কারণ ছাড়াই কোম্পানিগুলোর শেয়ার দর বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিশেষ করে ‘জেড’ ক্যাটাগরির যেসব কোম্পানির শেয়ার দর অনেক কমে রয়েছে সেগুলোতে এক শ্রেণীর বিনিয়োগকারীর মাধ্যমে টার্গেট করে অনেকটা কৃত্রিমভাবে দর বাড়ানো হচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এতে

৬ কোম্পানি হল্টেড

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে আজ ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৬ কোম্পানির শেয়ার বিক্রেতা সংকটে হল্টেড হয়েছে। কোম্পানিগুলো হলো: বিআইএফসি, বেক্সিমকো সিনথেটিকস, সিএনএ টেক্সটাইল, এমারেল্ড অয়েল, ফার্স্ট ফাইন্যান্স এবং কেয়া কসমেটিকস। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। জানা যায়, বিআইএফসি’র শেয়ার দর আজ ৮ শতাংশ বা ০.২০ টাকা বৃদ্ধি পেয়ে সর্বশেষ ২.৭০ টাকায় লেনদেন হয়।

১৩ কোম্পানি ক্রেতা সংকটে হল্টেড

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: আজ ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের ব্যাপক দরপতন হয়েছে। এতে বেশিরভাগ কোম্পানির ক্রেতা সংকটে শেয়ারের দরে ব্যাপক পতন হয়েছে। এর মধ্যে ক্রেতা সংকটে হল্টেড হয়েছে ১৩ কোম্পানি। কোম্পানিগুলো হলো: জেনারেশন নেক্সট, ফ্যামিলিটেক্স, আজিজ পাইপস, বে-লিজিং, বিডি ওয়েল্ডিং, বেক্সিমকো সিনথেটিকস, সিএনএ টেক্সটাইল, ডেল্টা স্পিনার্স, ফারইস্ট ফাইন্যান্স, ফু-ওয়াং সিরামিকস, ইমাম বাটন, ইনটেক এবং মেঘনা পেট।

শেষ ঘন্টায় হল্টেড দুই কোম্পানি

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: ঢাকা স্টক একচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের শেষ ঘন্টায় বিক্রেতার সংকটে হল্টেড হয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত দুই কোম্পানি। আলোচিত সময় কোম্পানিগুলোর শেয়ার ক্রয় করতে ক্রেতা দেখা গেলেও বিক্রেতার ঘর শূণ্য ছিল। কোম্পানিগুলো হলো- প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্স এবং সিএনএ টেক্সটাইল লিমিটেড। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। ডিএসইর তথ্যানুযায়ী, দুপুর দেড়টার দিকে প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্সের ক্রেতার ঘরে ৪ লাখ

৯ কোম্পানি হল্টেড

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: ঢাকা স্টক একচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের দেড় ঘন্টায় বিক্রেতার সংকটে হল্টেড হয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভূক্ত ৯ কোম্পানি। আলোচিত সময় কোম্পানিগুলোর শেয়ার ক্রয় করতে ক্রেতা দেখা গেলেও বিক্রেতার ঘর শূন্য ছিল। কোম্পানিগুলো হলো- ফাইন ফুডস, ফ্যামিলি টেক্স, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স, ইনটেক অনলাইন,  ড্রাগণ সোয়েটার অ্যান্ড স্পিনিং, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স, ইউনাইটেড এয়ার, ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স এবং সিএনএ টেক্সটাইল

৭ কোম্পানি হল্টেড

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: ঢাকা স্টক একচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের দেড় ঘন্টায় বিক্রেতার সংকটে হল্টেড হয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভূক্ত ৭ কোম্পানি। আলোচিত সময় কোম্পানিগুলোর শেয়ার ক্রয় করতে ক্রেতা দেখা গেলেও বিক্রেতার ঘর শূন্য ছিল। কোম্পানিগুলো হলো- ইনটেক অনলাইন, ফাইন ফুডস, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স, সিএনএ টেক্সটাইল, ফ্যামিলি টেক্সটাইল, মেট্রো স্পিনিং এবং ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

হল্টেড ৩ কোম্পানি

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: ঢাকা স্টক একচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের আড়াই ঘন্টায় বিক্রেতার সংকটে হল্টেড হয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভূক্ত ৩ কোম্পানি। আলোচিত সময় কোম্পানিগুলোর শেয়ার ক্রয় করতে ক্রেতা দেখা গেলেও বিক্রেতার ঘর শূন্য ছিল। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সূত্র মতে, দুপুর ১২টার দিকে লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের ক্রেতার ঘরে ৫ লাখ ৩৬ হাজার ২৮৮টি শেয়ার ৯১ টাকায় কেনার আবেদন

শেষ বেলায় হল্টেড ১৪ কোম্পানি

শেয়ারবাজার ডেস্ক: মন্দাবাজার পরিস্থিতিতেও আজ বিক্রেতা সংকটে হল্টেড হয়েছে ১৪ কোম্পানির শেয়ার। কোম্পানিগুলো হলো:  এএমসিএল (প্রাণ), আরামিট, আজিজ পাইপস,বিডি অটোকার্স, সিএনএ টেক্সটাইল, দেশ গার্মেন্টস, এইচআর টেক্সটাইল, জুটস স্পিনার্স, লিগ্যাসি ফুটওয়্যার, রিজেন্ট টেক্সটাইল, সাভার রিফ্যাক্টরীজ, শেফার্ড ইন্ডাষ্ট্রিজ, তসরিফা এবং ইউনাইটেড পাওয়ার। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। জানা যায়, এএমসিএল (প্রাণ) এর শেয়ার দর ৮.৭৪ শতাংশ বেড়ে

ফেসভ্যালুর নিচে ৩৮ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দর

শেয়ারাবাজার রিপোর্ট:  টানা ৫ কার্যদিবসের পতনের পর অবশেষে উত্থানে অবস্থান করছে দেশের শেয়ারবাজার। আজ দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক একচেঞ্জে (ডিএসই) ব্রড ইনডেক্স ৭৯ পয়েন্ট বেড়েছে। কিন্তু টানা পতনে বেশিরভাগ কোম্পানিরই দর অনেক কমে গেছে। ফলে সার্বিকভাবে লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে  ফেসভ্যালু নিচে অবস্থান করছে দেশের শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ৩৭ কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের দর। এর

মৌলভিত্তি থেকে ছিটকে গেলো ৮ কোম্পানি

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৮ কোম্পানি তাদের ক্যাটাগরি ধরে রাখতে পারেনি। গত অর্থবছরে এসব কোম্পানি ‘এ’ ক্যাটাগরির আওতায় মৌলভিত্তি কোম্পানি হিসেবে স্থান করে নিয়েছিল। কিন্তু চলতি বছর ৪ কোম্পানি কোনো প্রকার ডিভিডেন্ড না দিয়ে মৌলভিত্তি থেকে ছিটকে পড়েছে। এছাড়া আরো ৪টি কোম্পানি ১০ শতাংশের নিচে ডিভিডেন্ড দিয়ে মৌলভিত্তি ধরে রাখতে পারেনি। ডিএসই সূত্রে জানা যায়,

Top