আজ: শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩ইং, ১৪ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা রজব, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৬ মে ২০১৮, রবিবার |


kidarkar

এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ


শেয়ারবাজার ডেস্ক: এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। রবিবার (৬ মে) সকাল ১০টায় গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ফলাফলের অনুলিপি তুলে দেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। এ সময় বিভিন্ন শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যানরা সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

এ বছর দেশের ১০ বোর্ডে গড় পাসের হার ৭৭ দশমিক ৭৭ শতাংশ। ৮ টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডে গড় পাসের হার ৭৯ দশমিক ৪০ শতাংশ। মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৭০ দশমিক ৮৯ শতাংশ। কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৭১ দশমিক ৯৬ শতাংশ। দশ বোর্ডে এবার মোট ২০ লাখ ৩১ হাজার ৮৮৯ পরীক্ষার্থী মধ্যে পাস করেছে ১৫ লাখ ৭৬ হাজার ৫০৪ জন। সারাদেশে জিপিএ- ৫ পেয়েছে ১ লক্ষ ১০ হাজার ৬২৯ জন।

আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এসএসসি পরীক্ষায় মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ৯৭ হাজার ৯৩৪ জন। মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে দাখিল পরীক্ষায় মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ হাজার তিনশ ৭১ জন। কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এসএসসি পরীক্ষায় মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ হাজার চারশ ১৩ জন।

চট্টগ্রাম বোর্ডে পাসের হার ৭৫ দশমিক ৫০ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৮ হাজার ৯৪ জন।

সিলেট বোর্ডে পাসের হার ৭০ দশমিক ৪২ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ হাজার ১৯১ জন।

বরিশাল বোর্ডে পাসের হার ৭৭ দশমিক ১১ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ হাজার ৪৬২।

দিনাজপুর বোর্ডে পাসের হার ৭৭ দশমিক ৬২ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১০ হাজার ৭৫৫ জন।

যশোর বোর্ডে পাসের হার ৭৩ দশমিক ৬৭ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৯ হাজার ৩৯৫ জন।

কুমিল্লা বোর্ডে পাসের হার ৮০ দশমিক ৪০ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬ হাজার ৮৬৫ জন।

রাজশাহী বোর্ডে পাসের হার ৮৬ দশমিক ০৭ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৯ হাজার ৪৯৮ জন।

মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৭০ দশমিক ৮৯ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ হাজার তিনশ ৭১ জন।

এ ছাড়া কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৭১ দশমিক ৯৬ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ হাজার চারশ ১৩ জন।

আজ দুপুর ১টায় সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলন করে শিক্ষামন্ত্রী আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল ঘোষণা করবেন। এরপর দুপুর ২টা থেকে পরীক্ষার্থীরা মুঠোফোনে নির্ধারিত পদ্ধতিতে, ইন্টারনেটের মাধ্যমে অথবা নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে ফলাফল জানতে পারবেন।

গত ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সারাদেশে ও দেশের বাইরে কয়েকটি কেন্দ্রে একযোগে এসএসসি ও সমমানের লিখিত বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। আর ব্যবহারিক পরীক্ষা ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ৪ মার্চ পর্যন্ত চলে।

এ বছর ৩ হাজার ৪১২টি কেন্দ্রে মোট ২০ লাখ ৩১ হাজার ৮৮৯ পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। তার মধ্যে ১০ লাখ ২৩ হাজার ২১২ জন ছাত্র, ছাত্রীর সংখ্যা ১০ লাখ ৮ হাজার ৬৮৭ জন।

উল্লেখ্য, গত বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ৮০ দশমিক ৩৫ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করে। এদের মধ্যে জিপিএ-৫ পায় ১ লাখ ৪ হাজার ৭৬১ জন।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.