আজ: সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২ইং, ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৬ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১১ জুলাই ২০১৮, বুধবার |


kidarkar

সামনে আরও ভাল হবে শেয়ারবাজার


শেয়ারবাজার রিপোর্ট: সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের উত্থান দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। এদিন লেনদেনের শুরু থেকেই ক্রয় প্রেসারে টানা বাড়তে থাকে সূচক। তবে প্রথম ঘন্টা পর সেল প্রেসারে উত্থানের মাত্রা হ্রাস পেতে থাকে। আজ বুধবার সূচকে কিছুটা উত্থান থকলেও কমেছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। তবে টাকার অংকে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে। আজ দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ১১৫ কোটি ২৯ লাখ ৭৯ হাজার টাকা। যা চলতি বছরের সর্বোচ্চ।

উল্লেখ্য, এর আগে গত ২০ নভেম্বর, ২০১৭ ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন হয়েছিলো ছিলো ১ হাজার ১৫৮ কোটি ৪৯ লাখ ৬৩ হাজার টাকা টাকা।

এ প্রসঙ্গে একাধিক মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকারেজ হাউজের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ব্যাংকের সুদের হার কমানোর কারণে পুঁজিবাজারমুখী হচ্ছেন বিনিয়োগকারীরা। যে কারণে পুঁজিবাজারে লেনদেন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এছাড়া প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের সক্রিয় অবস্থান বাজারকে আরো গতিশীল করতে সহায়তা করছে। গত কয়েক দিন উত্থান থকায় বিনিয়োগকারীদের একটি অংশের মধ্যে মুনাফা তুলে নেওয়ার প্রবণতা তৈরি হয়। দুইয়ে মিলে বিক্রির চাপটা বেড়ে যায়। তবে শেষ পর্যন্ত উত্থানেই শেষ হয় লেনদেন।

পুজিবাজার বিশ্লেষকরা আশাবাদ ব্যাক্ত করে বলেন, পুঁজিবাজারের সার্বিক পরিস্থিতি বর্তমানে স্বাভাবিক পর্যায়ে রয়েছে। “সামনে বাজার আরও ভালো হবে”, কারণ বাজার যে ভালো হবে তার সবগুলো লক্ষনই বিদ্যমান। মার্কেটের ক্রমাগত চাপের কারণে মার্কেট টাইম বৃদ্ধির চেষ্টা চলছে। পাশাপাশি নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিনিয়োগকারীদের সচেতন করতে শিক্ষামূলক প্রোগ্রাম করছে। আর আর্থিক বছর শেষ হওয়ার কারণে কোম্পানিগুলোর লভ্যাংশের একটা ইতিবাচক প্রভাব অচিরেই বাজারে পড়বে বলেও মনে করছেন ওই বিশ্লেষকরা।

আজ দিন শেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৭ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৫৩৭৯ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১২৬৬ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ৩ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৯১৫ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৪১টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৫৩টির, কমেছে ১৫৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩১টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ১১৫ কোটি ২৯ লাখ ৭৯ হাজার টাকা।

এর আগের কার্যদিবস অর্থাৎ সোমবার ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৩০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ৫৩৭১ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১২৭১ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ১ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১৯১১ পয়েন্টে। আর ওইদিন লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ৮৮ কোটি ১৯ লাখ ৩৭ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ২৭ কোটি ২০ লাখ ৪২ হাজার টাকা।

এদিকে, দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সাধারণ মূল্য সূচক সিএসইএক্স ৫৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১০ হাজার ৬৮ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৫০টি কোম্পানির ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১১০টির, কমেছে ১২২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৮টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৫৮ কোটি ৫৬ লাখ ১৫ হাজার টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

 


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.