আজ: রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২ইং, ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২রা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১২ মে ২০১৫, মঙ্গলবার |


kidarkar

মিউচ্যুয়াল ফান্ডে বিশৃঙ্খলার নেপথ্যে


bmba_mutual_fandশেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে মিউচ্যুয়াল ফান্ড খাতে বিশৃ্ঙ্খলা বিরাজ করছে। ধারাবাহিক লোকসান,ডিভিডেন্ড না পাওয়া,ফেসভ্যালুর নিচে ইউনিট দর ও এনএভি নেমে আসায় এ খাতের প্রতি বিনিয়োগকারীদের আস্থা কমে গেছে। নতুন কোনো মিউচ্যুয়াল ফান্ড বাজারে প্রবেশ করলেও বিনিয়োগকারীদের এদিকে কোনো খেয়াল নেই বললেই চলে।

আর এসব বিশৃঙ্খলার নেপথ্যে রয়েছে মেয়াদি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের অনিয়ন্ত্রিতভাবে মেয়াদ বাড়ানো।

ঘন ঘন মেয়াদি মিউচ্যুয়াল ফান্ডগুলোর মেয়াদ বাড়ানোর ফলে পুঁজিবাজারে দীর্ঘমেয়াদি স্থিতিশীলতা, মিউচ্যুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগে অস্বচ্ছতা এবং নতুন ফান্ডগুলোতে বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করা যাচ্ছে না-এমনটাই মনে করে বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স এসোসিয়েশন (বিএমবিএ)।

সম্প্রতি বাজার উন্নয়নে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) পক্ষ থেকে বিএমবিএ’র কাছ থেকে প্রস্তাব চেয়ে চিঠি ইস্যু করা হয়।

সে চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে বাজার উন্নয়নে বিভিন্ন প্রস্তাব বিএসইসির কাছে পেশ করবে বিএমবিএ।

এনিয়ে বিএমবিএ’র কয়েকজন নেতার সঙ্গে কথা বললে তারা শেয়ারবাজার নিউজ ডটকমকে জানান, বাজার উন্নয়নে তারা বিভিন্ন প্রস্তাব দেবে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে মেয়াদি মিউচ্যুয়াল ফান্ডগুলোর যেন অনিয়ন্ত্রিতভাবে মেয়াদ বাড়ানো না হয়। এছাড়া মেয়াদি ফান্ড থেকে বেমেয়াদি ফান্ডে রূপান্তরের বিষয়টিও যথেষ্ট প্রশ্নস্বাপেক্ষ বলে মনে করেন তারা।

তারা আরো জানান, বর্তমানে মিউচ্যুয়াল ফান্ড খাতে বিশৃঙ্খলা বিরাজ করছে। এ খাতে আস্থা ফেরানোর জন্য নানা উদ্যোগ নেয়া হলেও তা কোনো কাজে আসেনি। এতে শুধুমাত্র কিছু ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের স্বার্থ হাসিল হয়েছে। তাই মেয়াদি মিউচ্যুয়াল ফান্ডগুলোর মেয়াদ আর না বাড়াতে নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছে প্রস্তাব করবে বিএমবিএ ।

এ বিষয়ে বিএমবিএ এর ভাইস প্রেসিডেন্ট আখতার হোসেন সান্নামাত শেয়ারবাজারনিউজ ডট কমকে বলেন, সার্বিক দিক বিবেচনা করে পুঁজিবাজারের দীর্ঘমেয়াদি স্থিতিশীলতা, মেয়াদি মিউচ্যুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগে স্বচ্ছতা এবং নতুন ফান্ডগুলোতে বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করার জন্য বিএমবিএ’র পক্ষ থেকে প্রস্তাব দেয়া হবে। এর মধ্যে মেয়াদি মিউচ্যুয়াল ফান্ডগুলোর মেয়াদ আর না বাড়ানো ভালো সিদ্ধান্ত হতে পারে। তবে এ নিয়ে আমরা আলাপ-আলোচনা করবো। তারপর বিএসইসির কাছে প্রস্তাব আকারে পেশ করবো। পুঁজিবাজার তথা বিনিয়োগকারীদের ক্ষতি হয় এমন কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত হবে না বলে মনে করেন তিনি।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/সা/তু


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.