তারল্য সংকটে পুঁজিবাজার

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: সাপ্তাহিক ব্যবধানে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের উত্থান ঘটেছে পাশাপাশি সব ধরনের সূচক বেড়েছে। সপ্তাহজুড়ে লেনদেন হওয়া ৪ কার্যদিবসের মধ্যে ৩দিনই বেড়েছে সূচক। বাকি এক কার্যদিবস বাড়লেও এর মাত্রা ছিলো সামান্য। এরই ধারাবাহিকতায় দেশের উভয় শেয়ারবাজারে সব ধরনের সূচক বেড়েছে। এদিকে সূচক কিছুটা কমলেও বেড়েছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। তবে গত সপ্তাহে লেনদেনের পরিমান কিছুটা কমেছে। আলোচিত সপ্তাহটিতে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ৬২৭ কোটি ৫৮ লাখ ৭৯ হাজার ৫৯ টাকা।

সাপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সপ্তাহশেষে ডিএসই ব্রড ইনডেক্স বা ডিএসইএক্স সূচক বেড়েছে ১.১২ শতাংশ বা ৬০.৭৪ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই-৩০ সূচক বেড়েছে ১.১৬ শতাংশ বা ২১.৯৩ পয়েন্ট। অপরদিকে শরীয়াহ বা ডিএসইএস সূচক বেড়েছে ০.০৮ শতাংশ বা ১.০৪ পয়েন্ট। আর সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ৩৪৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৬১টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ১৬৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৩টির। আর লেনদেন হয়নি ৪টি কোম্পানির শেয়ার। এগুলোর ওপর ভর করে গত সপ্তাহে লেনদেন মোট ২ হাজার ৬২৭ কোটি ৫৮ লাখ ৭৯ হাজার ৫৯ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। তবে এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ৩ হাজার ৪৩৭ কোটি ৪৩ লাখ ৫০ হাজার ৯৫২ টাকার। সেই হিসাবে গত সপ্তাহে লেনদেন কমেছে ২৩.৫৬ শতাংশ।

আর সমাপ্ত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৯০.৪০ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ৪.১২ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ২.৬০ শতাংশ। ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন হয়েছে ২.৮৮ শতাংশ।

সপ্তাহশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সেচঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স ১১২.৩৮ পয়েন্ট বা ১.১২ শতাংশ বেড়ে সপ্তাহ শেষে দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ১৮১ পয়েন্টে। আর সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে হাত বদল হওয়ার ২৮৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৩৪টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ১৩৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১২টির। এগুলোর ওপর ভর করে বিদায়ী সপ্তাহে ১২৭ কোটি ৯৪ লাখ ৮৭ হাজার ৩৮৭ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top