বিএসইসি’র ২৫ বছর: তের’শ কোটি টাকা থেকে ৩ লাখ ৯৫ হাজার কোটিতে বাজার মূলধন

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: আগামী ১২ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হচ্ছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ২৫ বছর পূর্তি অনুষ্ঠান। এই ২৫ বছরে পুঁজিবাজারের নানা সংস্কার করা হয়েছে। যার ফলশ্রুতিতে বর্তমান পুঁজিবাজার একটি শক্ত প্লাটফর্মে এসে দাঁড়িয়েছে। ১৯৯৩ সালের ৩ মে সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন অধ্যাদেশ ১৯৯৩ (অধ্যাদেশ নং-৩) জারী হয়। অত:পর জাতীয় সংসদে উক্ত অধ্যাদেশ উত্থাপিত হয়ে পাশ হওয়ার পর ৮ জুন, ১৯৯৩ সনে বাংলাদেশ গেজেট প্রকাশিত হয় এবং ঐদিনই এসইসি (সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন ) প্রতিষ্ঠিত হয়।

প্রতিষ্ঠার দিনে অর্থাৎ ৮ জুন ১৯৯৩ সালে মোট সিকিউরিটিজ এর সংখ্যা ছিল ১৪৯টি। এর মধ্যে তালিকাভুক্ত কোম্পানি ছিল ১৩৯টি,মিউচ্যুয়াল ফান্ড ছিল ০৬টি, ডিবেঞ্চার ছিল ০৪টি। এদিন মোট বাজার মূলধন ছিল ১ হাজার ৩০৫ কোটি টাকা। ১৯৯৩ সালের ১৪ নভেম্বর এসইসি আনুষ্ঠানিক কাজ শুরু করে। এদিন তালিকাভুক্ত সিকিউরিটিজ ছিল ১৫১টি। এর মধ্যে তালিকাভুক্ত কোম্পানির সংখ্যা ছিল ১৪১টি, মিউচ্যুয়াল ফান্ড ছিল ০৬টি এবং ডিবেঞ্চার ছিল ০৪টি। আনুষ্ঠানিক যাত্রার শুরুতে তখন পুঁজিবাজারের মোট বাজার মূলধন ছিল ১ হাজার ৭৩১ কোটি টাকা।

২০১২ সালের ১০ ডিসেম্বর সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি) এর নাম পরিবর্তন হয়ে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) হয়।

২৫ বছর পর গত ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে দেশের প্রধান স্টক এক্সচেঞ্জ ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত সিকিউরিটিজের সংখ্যা দাঁড়ায় ৫৭৪টি। এর মধ্যে তালিকাভুক্ত কোম্পানির ছিল ৩০৭টি, মিউচ্যুয়াল ফান্ড ৩৭টি, তালিকাভুক্ত কর্পোরেট বন্ড ০১টি, ডিবেঞ্চার ০৮টি এবং লিস্টেড ট্রেজারী বন্ড ছিল ২২১টি। এদিন মোট বাজার মূলধনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৩ লাখ ৯৫ হাজার ৬২৭ কোটি টাকা।

অর্থাৎ প্রতিষ্ঠার দিনের তুলনায় বাজার মূলধন প্রায় ২২৮ গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে।

উল্লেখ্য, ৮ই জুন প্রতিষ্ঠিত হলেও এসইসি’র প্রথম চেয়ারম্যান হিসেবে সুলতানুজ্জামান খান যোগদান করেন ৮ জুলাই ১৯৯৩ সালে।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

Top