ইতিবাচক ধারায় পুঁজিবাজার

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: সাপ্তাহিক ব্যবধানে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের উত্থান ঘটেছে। পাশাপাশি সব ধরনের সূচকও বেড়েছে। সপ্তাহজুড়ে লেনদেন হওয়া ৫ কার্যদিবসের মধ্যে ২দিন বেড়েছে সূচক। বাকি তিন কার্যদিবস কমলেও এর মাত্রা ছিলো সামান্য। এরই ধারাবাহিকতায় দেশের উভয় শেয়ারবাজারে প্রায় সব ধরনের সূচক বেড়েছে। এদিকে সূচক কিছুটা বাড়লেও কমেছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। তবে গত সপ্তাহে লেনদেনের পরিমান কিছুটা বেড়েছে। আলোচিত সপ্তাহটিতে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩ হাজার ৮৯৪ কোটি ৩৭ লাখ ৫০ হাজার ৬৭৪ টাকা।

এদিকে গত সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধনের পরিমাণ বেড়েছে। সপ্তাহ শেষে ডিএসইর বাজার মূলধনের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৯০ হাজার ৮৮২ কোটি ৭৬ লাখ ১৪ হাজার ৮৯০ টাকা। আগের সপ্তাহে যার পরিমাণ  ছিল ৩ লাখ ৮৯ হাজার ৫৫৪ কোটি ২১ লাখ ৯৪ হাজার ৬২৮ টাকা। সে হিসেবে সপ্তাহশেষে ডিএসইর বাজার মূলধন বেড়েছে ১ হাজার ৩২৮ কোটি ৫৪ লাখ ২০ হাজার ২৬২ টাকা ।

সাপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সপ্তাহশেষে ডিএসই ব্রড ইনডেক্স বা ডিএসইএক্স সূচক বেড়েছে ০.৩১ শতাংশ বা ১৬.৭৪ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই-৩০ সূচক বেড়েছে ১.৪৪ শতাংশ বা ২৭.৪০ পয়েন্ট। অপরদিকে শরীয়াহ বা ডিএসইএস সূচক বেড়েছে ১.২০ শতাংশ বা ১৫.০৩ পয়েন্ট। আর সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ৩৪৭টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১১টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ২১৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৯টির। এবং লেনদেন হয়নি ৪টির। এগুলোর ওপর ভর করে গত সপ্তাহে লেনদেন মোট ৩ হাজার ৮৯৪ কোটি ৩৭ লাখ ৫০ হাজার ৬৭৪ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। তবে এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ২ হাজার ৮৭৯ কোটি ৪ লাখ ১৪ হাজার ৬৫৪ টাকার। সেই হিসাবে সমাপ্ত সপ্তাহে লেনদেন বেড়েছে ১ হাজার ১৫ কোটি ৩৩ লাখ ৩৬ হাজার ২০ টাকা ৩৫.২৭ শতাংশ।

আর সমাপ্ত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮৯.৩৯ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ২.২৬ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ৪.৯৪ শতাংশ। ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন হয়েছে ২.৪২ শতাংশ।

সপ্তাহশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সেচঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স ৭৩.৪২ পয়েন্ট বা ০.৭২ শতাংশ বেড়ে সপ্তাহ শেষে দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ১৬৪ পয়েন্টে। আর সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে হাত বদল হওয়ার ২৮৭টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১০৩টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ১৫৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টির। এগুলোর ওপর ভর করে বিদায়ী সপ্তাহে ১৫৯ কোটি ১৬ লাখ ৩১ হাজার ৫৩৯ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

 

আপনার মন্তব্য

Top