আজ: মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২ইং, ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১০ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২৪ নভেম্বর ২০১৮, শনিবার |


kidarkar

স্বস্তির সপ্তাহ পার করলো বিনিয়োগকারীরা


শেয়ারবাজার রিপোর্ট: বাজারের সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় বিনিয়োগকারীর মধ্যে চাঞ্চল্যতা ফিরে এসেছে। যার কারনে গত সপ্তাহের ৪ কার্যদিবসের মধ্যে ৪ দিনই বাড়ছে সূচক পাশাপাশি গড় লেনদেনের পরিমানও বেড়েছে। আর এই উত্থানের ফলে স্বস্তিতে সপ্তাহ পার করলো বিনিয়োগকারীরা। তবে ধারবাহিকতায় উত্থানের ফলে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা বাজার কিছুটা পর্যবেক্ষণ করছেন। যে কারনে গত সপ্তাহে সূচকে কোন ধরণের নেতিবাচক প্রভাব পড়েনি বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

সাপ্তাহিক ব্যবধানে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের উত্থান ঘটেছে। পাশাপাশি সব ধরনের সূচকও বেড়েছে। সপ্তাহজুড়ে লেনদেন হওয়া ৪ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতি দিনই বেড়েছে সূচক। এরই ধারাবাহিকতায় দেশের উভয় শেয়ারবাজারে সব ধরনের সূচক বেড়েছে। এদিকে সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। আর গত সপ্তাহে গড় লেনদেনের পরিমানও কিছুটা বেড়েছে। আলোচিত সপ্তাহটিতে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ৬২৯ কোটি ৪০ লাখ ৩২ হাজার ৯৫৮ টাকা।

গত সপ্তাহে ডিএইতে ৪ কার্যদিবসে গড় লেনদেন হয়েছে ৬৫৭ কোটি ৩৫ লাখ ৮ হাজার ২৩৯ টাকা। এর আগের সপ্তাহে ৫ কার্যদিবসে গড় লেনদেন হয়েছে ৫৫২ কোটি ৯৫ লাখ ৮৩ হাজার ৮৭২ টাকা। সেই হিসেবে ডিএসইতে গড় লেনদেন বেড়েছে ১০৪ কোটি ৩৯ লাখ ২৪ হাজার ৩৬৬ টাকা।

সাপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সপ্তাহ শেষে ডিএসই ব্রড ইনডেক্স বা ডিএসইএক্স সূচক বেড়েছে ১.১৭ শতাংশ বা ৬১.৩২ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই-৩০ সূচক বেড়েছে ০.৬৯ শতাংশ বা ১২.৮৫ পয়েন্ট। অপরদিকে শরীয়াহ বা ডিএসইএস সূচক বেড়েছে ১.৬১ শতাংশ বা ১৯.৪৪ পয়েন্ট। আর সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ৩৪৯টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৬৩টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ১৫৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৯টির। এবং লেনদেন হয়নি ৩টির। এগুলোর ওপর ভর করে গত সপ্তাহে লেনদেন মোট ২ হাজার ৬২৯ কোটি ৪০ লাখ ৩২ হাজার ৯৫৮ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। তবে এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ২ হাজার ৭৬৪ কোটি ৭৯ লাখ ১৯ হাজার ৩৬১ টাকার। সেই হিসাবে সমাপ্ত সপ্তাহে লেনদেন কমেছে ১৩৫ কোটি ৩৮ লাখ ৮৬ হাজার ৪০৩ টাকা ৪.৯০ শতাংশ।

আর সমাপ্ত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮২.৮৭ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ১.৪০ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ১২.৪৬ শতাংশ। ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন হয়েছে ৩.২৬ শতাংশ।

সপ্তাহশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সেচঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স ১৪৫.২৯ পয়েন্ট বা ১.৪৯ শতাংশ বেড়ে সপ্তাহ শেষে দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ৮৭৫ পয়েন্টে। আর সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে হাত বদল হওয়ার ২৮২টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৩৩টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ১২৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টির। এগুলোর ওপর ভর করে বিদায়ী সপ্তাহে ১০৯ কোটি ৬ লাখ ১১ হাজার ৮১১ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.