বিশ্বসেরা ফুটবলার রোনালদোর জীবনযাপন

ronaldoশেয়ারবাজার ডেস্ক: আমি ধনী, সুপুরুষ এবং গ্রেট খেলোয়াড়। আর এ জন্যে মানুষ আমায় ঈর্ষা করে।’ এমনি এমনি নিজেকে নিয়ে এসব কথা বলেননি রিয়েল মাদ্রিদের গোল মেশিন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। সুপার মডেলদের সঙ্গে ডেটিং থেকে শুরু করে আন্ডারগার্মেন্টের বিজ্ঞপনেও তাকে দেখা যায়। অর্থ-বৈভবের কোনো কমতি নেই তার। এত টাকা কিভাবে খরচ করেন বা আয় আসে তার, এ সম্পর্কে কিছু তথ্য জেনে নিন।

১. গত বছর তিনি ৪৪ মিলিয়ন ডলার আয় করেছেন। এই গ্রহের সর্বোচ্চ আয়ের দিকে থেকে নবম স্থানে রয়েছেন তিনি।

২. সম্প্রতি একটি চুক্তি করেছেন, যার মাধ্যমে আগামী ২০১৮ সাল পর্যন্ত বছরে ২৩ মিলিয়ন ডলার করে আয় হবে তার। সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া খেলোয়াড় হয়েছেন এই চুক্তির মাধ্যমে।

৩. মাঠের বাইরে নানা কাজে বছরে ২১ মিলিয়ন ডলার আসে তার।

৪. তার সঙ্গে নাইকির নতুন চুক্তি হয়েছে। গুজব আছে, প্রতিষ্ঠানটি তাকে বছরে ৮ মিলিয়ন ডলার দেবে।

৫. হারবালাইফ, ক্যাস্ট্রল এবং স্যামসাংয়ের মতো প্রতিষ্ঠানের সঙ্গেও চুক্তি রয়েছে তার।

৬. যদি একবার রিয়েল মাদ্রিদ ত্যাগ করেন তিনি, তবে যে ক্লাবে যাবেন, তাকে পুরো ১ হাজার মিলিয়ন ডলার দিতে হবে।

৭. মাঠের বাইরে তার জীবনযাপনে কাড়ি কাড়ি অর্থ ব্যয় হয়।

৮. তার প্রেমিকা রাশিয়ান ‘সুইমস্যুট’ মডেল ইরিনা শায়াক।

৯. রোনালদোর এই প্রেমিকার সবচেয়ে বড় সাফল্য হলো, তিনি হারকিউলিস সিনেমায় অভিনয় করেছেন।

১০. রোনালদো তার প্রেমিকাকে নিয়ে গোটা বিশ্ব ঘুরে বেড়িয়েছেন। মাঝে মধ্যে আমেরিকায় গিয়েছেন তারা। কিন্তু

সেখানে খুব বেশি সময় কাটাননি।

১১. দামি গাড়ি তার সবচেয়ে বড় শখ। তিনি ৩ লাখ ডলার মূল্যের ল্যাম্বোরগিনি অ্যাভেনটেডর ব্যবহার করেন।

১২. ২০০৯ সালে ম্যানটেস্টারে তিনি ৩ লাখ ২০ হাজার ডলারের ফেরারি গাড়িটি নিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হন।

১৩. তার আরো রয়েছে বেন্টলি, পোর্শে এবং মার্সিডিজের দামি গাড়ি।

১৪. লা ফিনকায় ৭ মিলিয়ন ডলার মূল্যের একটি বাড়ি রয়েছে তার। মাদ্রিদের এই বাড়িটি বানিয়েছেন স্থপতি জ্যাকুইন টোরেস।

১৫. দারুণ ফ্যাশন সচেতন তিনি। এর পেছনে বিস্তর খরচ করেন তিনি।

১৬. আর্মানির আন্ডারওয়্যার এর মডেল তিনি। এর ডিজাইনার রিচার্ড চাই।

১৭. জ্যাকব অ্যান্ড কোং ওয়াচ এর সঙ্গে চুক্তি রয়েছে তার। এই ব্র্যান্ডের ১ লাখ ৬০ হাজার ডলার মূল্যের একটি ঘড়িতার হাতে শোভা পায়।

১৮. তার সুদর্শন চেহারাটি বহু পুরুষের হিংসার কারণ।

১৯. বেশ আবেগময় মন রয়েছে তার। ব্যালন ডি’অর জিতে চোখের পানি মুছতে দেখা গেছে তাকে।

শেয়ারবাজার/অ

আপনার মন্তব্য

Top