আজ: শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২ইং, ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১১ জুন ২০১৫, বৃহস্পতিবার |


kidarkar

বৈশ্বিক অর্থনীতিতে ৪৪তম বাংলাদেশ


টাকাশেয়ারবাজার রিপোর্ট: টেকসই প্রবৃদ্ধি ধরে রাখার পুরষ্কার পেল বাংলাদেশ। আকারের দিক থেকে বাংলাদেশের অর্থনীতি ১৪ ধাপ এগিয়ে ৪৪তম অবস্থানে এসে পৌঁছেছে।
জানা যায়, ২০১৫ সালে দেশের জিডিপির আকার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২০৫.৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার যা ২০১৩ সালে ছিল ১ লাখ ৪৯ হাজার ৯৯০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এর পাশাপাশি বৈশ্বিক অবস্থানে বাংলাদেশ ছিল ৫৮তম।
অন্যদিকে, ক্রয়ক্ষমতার সমতা ভিত্তিতে বাংলাদেশ ২০১৩ সালের ৩৬তম অবস্থান থেকে তিন ধাপ এগিয়ে ২০১৫ সালে ৩৩তম অবস্থানে এসেছে।
বৃহস্পতিবার রাজধানীর শেরে-বাংলানগরে এনইসি সম্মেলন কেন্দ্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একনেক বৈঠকের আগে পরিকল্পনা মন্ত্রী এ এইচ এম মুস্তফা কামাল এসব তথ্য জানান।
ওয়ার্ল্ড ডেভলপমেন্ট ইন্ডিকেটর ডাটাবেজ, বিশ্ব ব্যাংক, এপ্রিল ২০১৫ এবং আইএমএফ ইকোনমিক আউটলুক (ডাব্লিউইও), এপ্রিল ২০১৫ ভিত্তিতে ‘বিশ্ব অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থান, এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ’ শীর্ষক রিপোর্ট তৈরি করেছে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়। সেমিনারে পরিকল্পনা মন্ত্রী আস্বস্ত করেণ, ‘আগামী বছর স্বাভাবিক গতিতে প্রকল্প বাস্তবায়ন করে সামনে এগিয়ে যেতে চাই এবং পরবর্তী বছরগুলোতে সম্পদের যথাযথ ব্যবহার করতে চাই।’

তথ্য বিশ্লেষণে জানা যায়, ভিয়েতনাম, কাজাকিস্তান, পর্তুগাল, কাতার, নিউজিল্যান্ড ও পেরু বর্তমান জিডিপি হিসাবে বাংলাদেশের চেয়ে পিছিয়ে আছে। জিডিপি হিসাবে বিশ্বে প্রথম অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির জিডিপি’র আকার ১৮ হাজার ১২৪.৭ বিলিয়ন ডলার, এর পরেই চীনের জিডিপি আকার ১১ হাজার ২১১.৯০ বিলিয়ন, জাপানের ৪ হাজার ২১০.৪০ বিলিয়ন, জার্মানির ৩ হাজার ৪১৩.৫০ বিলিয়ন এবং যুক্তরাজ্যের ২ হাজার ৮৫৩.৪০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।
২০১৩ সালেও যুক্তরাষ্ট্র শীর্ষ অবস্থানে ছিল এবং জিডিপি ছিল ১ কোটি ৬৭ লাখ ৬৮ হাজার ১০০ মিলিয়ন ডলার এবং ভিয়েতনামের অবস্থান ছিল ৫৭তম, জিডিপি’র পরিমাণ ছিল ১ লাখ ৭১ হাজার ৩৯০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

শেয়ারবাজারনিউজ/ও/তু


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.