আজ: শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২ইং, ১৮ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১লা জিলহজ, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২৮ জানুয়ারী ২০২১, বৃহস্পতিবার |



kidarkar

এক নজরে ১৯ প্রতিষ্ঠানের দ্বিতীয় প্রান্তিক

শেয়ারবাজার ডেস্ক: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ১৯ টি প্রতিষ্ঠান আজ দ্বিতীয় প্রান্তিক প্রকাশ করেছে।গতকাল বুধবার, ২৭ জানুয়ারী পৃথক পৃথক সময়ে প্রতিষ্ঠানগুলোর বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত হয়।

কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

জানা যায়, কোম্পানিগুলোর বোর্ড সভায় ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০ সমাপ্ত অর্থবছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের অনীরিক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন নিয়ে পর্যালোচনা করা হয়েছে এবং পর্যালোচনাসাপেক্ষে তা সর্বসম্মতিক্রমে প্রকাশ করা হয়েছে।

নিম্নে দ্বিতীয় প্রান্তিকে কোম্পানিগুলোর শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) এবং লোকসান বিগত অর্থবছরের আলোকে তুলে ধরা হল

১. ম্যাকসন্স স্পিনিং:পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্র খাতের কোম্পানি ম্যাকসন্স স্পিনিং লিমিটেড চলতি অর্থবছরের ৬ মাসে (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

জানা যায়, দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৪০ পয়সা। যা গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ০৪ পয়সা।

এদিকে , সমন্বিত ২ প্রান্তিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) মিলিয়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয়(ইপিএস) দাড়িয়েছে ৫১ পয়সা যা গত অর্থবছরের একই সময়ে ছিল ০২ পয়সায়।

অপরদিকে, ২ প্রান্তিকের সমন্বয়ে (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নগদ প্রবাহের (এনওসিএফপিএস) পরিমাণ দাড়িয়েছে ১ টাকা ২৮ পয়সা যা গত অর্থবছর একই সময়ে ছিল ১ টাকা ৪৭ পয়সায়।

এবং গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০ সমাপ্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য দাড়িয়েছে (এনএভিপিএস) ১৮ টাকা ৭২ পয়সায়।

২. অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত খাদ্য ও আনুষাঙ্গিক খাতের কোম্পানি অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড চলতি  অর্থবছরের ৬ মাসের (জুলাই-ডিসেম্বর’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

জানা যায়, কোম্পানিটির চলতি অর্থবছরের ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২০) শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ৫.৩৭ টাকা। যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ৫.২৬ টাকা। এ হিসাবে কোম্পানিটির মুনাফা ০.১১ টাকা বা ২ শতাংশ বেড়েছে।

এদিকে, কোম্পানিটির চলতি অর্থবছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২০) শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ২.৫২ টাকা। যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ২.৪৭ টাকা। এ হিসাবে কোম্পানিটির মুনাফা ০.০৫ টাকা বা ২ শতাংশ বেড়েছে।

৩১ ডিসেম্বর ২০২০ কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ৪১.৩৯ টাকায়।

৩. এসইএমএল আইবিবিএল শরীয়াহ ফান্ড: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত এসইএমএল আইবিবিএল শরীয়াহ ফান্ড দ্বিতীয় প্রান্তিকের অনীরিক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

জানা যায়,  গত অর্থবছর (অক্টোবর- ডিসেম্বর’২০১৯) ৭১ পয়সা লোকসানের বিপরীতে  চলতি অর্থবছরে (অক্টোবর- ডিসেম্বর’২০২০) প্রকাশিত দ্বিতীয় প্রান্তিকে একই সময়ে ইউনিট প্রতি আয় হয়েছে  ৪০ পয়সা।

এদিকে, ২ প্রান্তিকের সমন্বয়ে (জুলাই-ডিসেম্বর’২০২০) ফান্ডটির ইউনিট প্রতি আয় দাড়িয়েছে ১ টাকা ৫৮ পয়সা যার বিপরীতে গত বছর একই সময়ে (জুলাই-ডিসেম্বর’২০১৯) ইউনিট প্রতি লোকসান ছিল ৯০ পয়সা।

অপরদিকে, ২ প্রান্তিকে (জুলাই-ডিসেম্বর’২০২০)  ফান্ডটির ইউনিট প্রতি নগদ প্রবাহের (এনওসিএফপিইউ) পরিমাণ হয়েছে ২৬ পয়সা যা গত অর্থবছর একই সময়ে (জুলাই-ডিসেম্বর’২০১৯) ছিল ২৭ পয়সা।

এবং গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০ তারিখে ফান্ডটির  ক্রয়মূল্যে ইউনিট প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভিপিইউ) ছিল ১১ টাকা ৩৪ পয়সা।

৪. ফু-ওয়াং ফুডস লিমিটেড: ফু-ওয়াং ফুডস লিমিটেড চলতি অর্থবছরের অর্ধবার্ষিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

দুই প্রান্তিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) মিলিয়ে অর্থাৎ ৬ মাসে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৭ পয়সা। যা গত বছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ৪২ পয়সা।

দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১০ পয়সা। যা গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ২৫ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি ক্যাশ ফ্লো ছিল ৩২ পয়সা। যা আগের বছর একই সময়ে ৪০ পয়সা ছিল।

গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০ তারিখে কোম্পানিটির শেয়ার নিট প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) ছিল ১১ টাকা ৭১ পয়সা।

৫. আর্গন ডেনিমস লিমিটেড: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্র খাতের কোম্পানি আর্গন ডেনিমস লিমিটেড চলতি অর্থবছরে অর্ধবার্ষিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

দুই প্রান্তিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) মিলিয়ে অর্থাৎ ৬ মাসে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬৭ পয়সা। যা গত বছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ১ টাকা ৪৫ পয়সা।

দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৪০ পয়সা। যা গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ৭৩ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি ক্যাশ ফ্লো ছিল ১ টাকা ১৭ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে তা ২ টাকা ৩৮ পয়সা ছিল।

গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০ তারিখে কোম্পানিটির শেয়ার নিট প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) ছিল ২৭ টাকা ৮৮ পয়সা

৬. মবিল যমুনা (এমজেএলবিডি) লিমিটেড: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি মবিল যমুনা (এমজেএলবিডি) লিমিটেড চলতি অর্থবছরের অর্ধবার্ষিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ২ টাকা ৫৩ পয়সা। যা গত অর্থবছরের একই সময়ে ইপিএস ছিল ১ টাকা ৫৬ পয়সা।

দুই প্রান্তিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) মিলিয়ে অর্থাৎ ৬ মাসে কোম্পানিটির সমন্বিত শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস)  হয়েছে ৩ টাকা ৬৪ পয়সা। গত বছরের একই সময়ে সমন্বিত ইপিএস ছিল ৩ টাকা ১১ পয়সা।

গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০ তারিখে কোম্পানিটির শেয়ার নিট প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) ছিল ৩৫ টাকা ৭৯ পয়সা।

৭. ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং লিমিটেড:পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং লিমিটেড চলতি হিসাববছরের অর্ধবার্ষিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির সমন্বিত শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২১ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে ছিল ২৫ পয়সা।

চলতি সময়ের ছয় মাসে (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির সমন্বিত শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২৯ পয়সা। গত বছরের একই সময়ে ছিল ৩৮ পয়সা।

ছয় মাসে কোম্পানিটির সমন্বিত শেয়ার প্রতি ক্যাশ ফ্লো ছিল ১ টাকা ১০ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ছিল ৭৯ পয়সা।

গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০ তারিখে কোম্পানিটির সমন্বিত শেয়ার নিট প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) ছিল ১১ টাকা ৬৬ পয়সা।

৮. খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং লিমিটেড: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত পেপার এবং প্রিন্টিং খাতের কোম্পানি খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং লিমিটেড চলতি অর্থবছরের অর্ধবার্ষিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

দুই প্রান্তিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) মিলিয়ে অর্থাৎ৬ মাসে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ১০ পয়সা। যা গত বছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছিল ৩৭ পয়সা।

দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ২ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ১ পয়সা।
দুই প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি ক্যাশ ফ্লো ছিল মাইনাস ৩৯ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে তা ১৮ পয়সা ছিল।

গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০ তারিখে কোম্পানিটির শেয়ার নিট প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) ছিল ১১ টাকা ৮০ পয়সা।

৯. এএফসি অ্যাগ্রো লিমিটেড:  এএফসি অ্যাগ্রো লিমিটেড চলতি হিসাববছরের অর্ধবার্ষিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে ছিল ৩১ পয়সা।

চলতি সময়ের ছয় মাসে (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৯ পয়সা। গত বছরের একই সময়ে ছিল ৮১ পয়সা।

ছয় মাসে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি ক্যাশ ফ্লো ছিল ৪৫ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ছিল ২ টাকা ১৩ পয়সা।

গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০ তারিখে কোম্পানিটির শেয়ার নিট প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) ছিল ১৭ টাকা ৯৫ পয়সা।

১০. সী পার্ল বীচ রিসোর্ট অ্যান্ড স্পা: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত সী পার্ল বীচ রিসোর্ট অ্যান্ড স্পার চলতি অর্থবছরের ৬ মাসের দ্বিতীয় প্রান্তিকের অনীরিক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

(জুলাই-ডিসেম্বর’২০) শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) ১২২ শতাংশ বেড়েছে।

জানা গেছে, কোম্পানিটির চলতি অর্থবছরের ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২০) শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ০.৬০ টাকা। যার পরিমাণ আগের অর্থবছরের একই সময়ে হয়েছিল ০.২৭ টাকা। এ হিসাবে কোম্পানিটির ইপিএস ০.৩৩ টাকা বা ১২২ শতাংশ বেড়েছে।

এদিকে কোম্পানিটির চলতি অর্থবছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২০) শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ০.৪৮ টাকা। যার পরিমাণ আগের অর্থবছরের একই সময়ে হয়েছিল ০.১৬ টাকা। এ হিসাবে কোম্পানিটির ইপিএস ০.৩২ টাকা বা ২০০ শতাংশ বেড়েছে।

৩১ ডিসেম্বর ২০২০ কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ১০.৬১ টাকায়।

১১.ন্যাশনাল পলিমার লিমিটেডে: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি ন্যাশনাল পলিমার লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ দ্বিতীয় প্রান্তিকের (অক্টোবর-ডিসেম্বর,২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

জানা গেছে, দ্বিতীয় প্রান্তিকের (অক্টোবর-ডিসেম্বর,২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৯৪ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ১ টাকা ৪৫ পয়সা।

৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর,২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৪৬ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ২ টাকা ছিল ৬৬ পয়সা।

একই সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভি) হয়েছে ৩৭ টাকা ৩৪ পয়সা।

 ১২.বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলস লিমিটেড: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলস লিমিটেড চলতি হিসাববছরের অর্ধবার্ষিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

৬ মাসে (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৪ টাকা ৩৭ পয়সা। গত বছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ২ টাকা ২৬ পয়সা।

এদিকে, ৩ মাসে (অক্টোবর’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ৩৬ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ১ টাকা ২২ পয়সা।

গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০ তারিখে কোম্পানিটির শেয়ার নিট প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) ছিল ৪৫ টাকা ৫১ পয়সা।

১৩. ডরিন পাওয়ার লিমিটেড: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি ডরিন পাওয়ার লিমিটেড চলতি হিসাববছরের অর্ধবার্ষিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। আলোচিত প্রান্তিকে কোম্পানিটির ১১৯% মুনাফা বেড়েছে।

দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির সমন্বিত শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ৩০ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে ছিল ১ টাকা ৫ পয়সা। এ হিসেবে কোম্পানিটির মুনাফা বেড়েছে ১ টাকা ২৫ পয়সা বা ১১৯%।

অপরদিকে চলতি সময়ের ছয় মাসে (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির সমন্বিত শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৪ টাকা ৩১ পয়সা। গত বছরের একই সময়ে ছিল ৩ টাকা ১ পয়সা। এ হিসেবে কোম্পানিটির মুনাফা বেড়েছে ১ টাকা ৩০ পয়সা বা ৪৩%।

ছয় মাসে কোম্পানিটির সমন্বিত শেয়ার প্রতি ক্যাশ ফ্লো ছিল ১ টাকা ২৬ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ছিল ১০ টাকা ৮৭ পয়সা।

গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০ তারিখে কোম্পানিটির সমন্বিত শেয়ার নিট প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) ছিল ৪৪ টাকা ৬২ পয়সা।

১৪. পাওয়ার গ্রীড লিমিটেড: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি পাওয়ার গ্রীড লিমিটেড চলতি হিসাববছরের অর্ধবার্ষিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

৬ মাসে (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ৫১ পয়সা। গত বছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ১ টাকা ৩২ পয়সা।

এদিকে, ৩ মাসে (অক্টোবর’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৮ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ১ টাকা ৪৭ পয়সা।

১৫. ঢাকা ইলেকট্রিক সাপ্লাই (ডেসকো): পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি ঢাকা ইলেকট্রিক সাপ্লাই (ডেসকো) চলতি হিসাববছরের অর্ধবার্ষিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

৬ মাসে (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩১ পয়সা। গত বছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ২ টাকা ৭ পয়সা।

এদিকে, ৩ মাসে (অক্টোবর’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৪ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ৯৩ পয়সা।

একই সময়ে কোম্পানির শেয়ার প্রতি সম্পদমূল্য হয়েছে ৪৭ টাকা ২২ পয়সা।

১৬. এটলাস বাংলাদেশ লিমিটেড: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি এটলাস বাংলাদেশ চলতি হিসাববছরের অর্ধবার্ষিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

৬ মাসে (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ১ টাকা ৪৬ পয়সা। গত বছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি লোকসান ছিল ৭৯ পয়সা।

এদিকে, ৩ মাসে (অক্টোবর’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ৯৪ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি লোকসান ছিল ৪১ পয়সা।এ

একই সময়ে কোম্পানির শেয়ার প্রতি সম্পদমূল্য হয়েছে ১২৯ টাকা।

১৭. আমরা টেকনোলজিস: আমরা টেকনোলজিস চলতি হিসাববছরের অর্ধবার্ষিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

৬ মাসে (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৭১ পয়সা। গত বছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ১ টাকা।

এদিকে, ৩ মাসে (অক্টোবর’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩২ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ৪৯ পয়সা।

একই সময়ে কোম্পানির শেয়ার প্রতি সম্পদমূল্য হয়েছে ২৩ টাকা ১৯ পয়সা।

১৮. হামিদ ফেব্রিকস: হামিদ ফেব্রিকস লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ দ্বিতীয় প্রান্তিকের (অক্টোবর-ডিসেম্বর,২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

জানা গেছে, দ্বিতীয় প্রান্তিকের (অক্টোবর-ডিসেম্বর,২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান  হয়েছে ৫৮ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ২৭ পয়সা।

৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর,২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ৯৭ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ৬০ পয়সা।

একই সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সমন্বিত সম্পদ (এনএভি) হয়েছে ৩৯ টাকা ৭ পয়সা।

১৯. শমরিতা হসপিটাল লিমিটেড: শমরিতা হসপিটাল লিমিটেড চলতি হিসাববছরের অর্ধবার্ষিক (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

৬ মাসে (জুলাই’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৩৫ পয়সা। গত বছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ১ টাকা ৭ পয়সা।

দ্বিতীয় প্রান্তিকের ৩ মাসে (অক্টোবর’২০-ডিসেম্বর’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টকা ১ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ১৯ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি ক্যাশ ফ্লো ছিল ২ টাকা ৪৭ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে তা ১ টাকা ১ পয়সা ছিল।

গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০ তারিখে কোম্পানিটির শেয়ার নিট প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) ছিল ৫০ টাকা ৫৮ পয়সা।

শেয়ারবাজার নিউজ/মি

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.