আজ: বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১ইং, ৫ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২০ ফেব্রুয়ারী ২০২১, শনিবার |



kidarkar

এবারের আইপিএলের আসরে নেই লঙ্কানরা, কারণ বাংলাদেশ

শেয়ারবাজার ডেস্কঃ একসময় আইপিএলে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটারদের অংশগ্রহণ ছিল নিয়মিত। কিন্তু এবারের আসরে দেখা মিলবে না তাদের।

কারণ নিলামে কয়েকজনের নাম উঠলেও কোনো ফ্র্যাঞ্চিইজি আগ্রহ দেখায়নি। তবে এর পেছনে আসন্ন আন্তর্জাতিক সিরিজের বড় প্রভাব আছে বলে মনে করেন লঙ্কান গ্রেট কুমার সাঙ্গাকারা।

আইপিএলে অতীতে সাঙ্গাকারা, মাহেলা জয়াবর্ধনে, মুত্তিয়া মুরালিধরন থেকে শুরু করে হালের লাসিথ মালিঙ্গা, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস কিংবা থিসারা পেরেরাদের উপস্থিতি দেখা গেছে। কিন্তু এবার শ্রীলঙ্কার কেউই দল পাননি।

যদিও ২০২০ সালের শেষদিকে লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগের অভিষেক আসরে নজর কেড়েছিলেন বেশ কয়েকজন স্থানীয় ক্রিকেটার। অপরদিকে আইপিএলের দুই ফ্র্যাঞ্চাইজির গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে আছেন দুই লঙ্কান গ্রেট।

রাজস্থান রয়্যালসের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন সাঙ্গাকারা। সাবেক এই লঙ্কান অধিনায়কের মতে, আসন্ন আন্তর্জাতিক সিরিজের কথা ভেবেই তার নিজ দেশের কোনো ক্রিকেটারকে দলে নেয়নি ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। তার ইঙ্গিত হয়তো বাংলাদেশ সিরিজের দিকেই। কারণ আইপিএল চলার সময় শ্রীলঙ্কা সফরে দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ দল।

তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি সেখানে (লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগ) এবং শ্রীলঙ্কা জাতীয় দলেও কয়েকজন দারুণ খেলোয়াড় আছে। কিন্তু ওই সময়ে শ্রীলঙ্কা দলের সিরিজ থাকায় তাদের আইপিএলে পাওয়া না পাওয়া নিয়ে একটা অনিশ্চয়তা রয়েছে এবং মাঝপথেই হয়তো তাদের আইপিএল ছাড়তে হতে পারে। এজন্যই হয়তো তারা দল পায়নি। ‘

সাবেক লঙ্কান এই উইকেটরক্ষক ও বাঁহাতি ব্যাটসম্যান আরও বলেন, ‘মূলত এইসব ভেবেই শ্রীলঙ্কার কাউকে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো নেয়নি। এজন্যই আইপিএলে তাদের দেখা মিলছে না এবং এটা ভাবার কারণ নেই যে, তাদের সামর্থ্যের ঘাটতি রয়েছে। ‘

তবে সাঙ্গাকারার সাবেক সতীর্থ জয়াবর্ধনের মত অবশ্য ভিন্ন। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করা এই সাবেক লঙ্কান অধিনায়কের মতে, এবারের নিলামে মূলত বোলার এবং বোলিং-অলরাউন্ডারদের দলে ভেড়ানো হয়েছে। আর শ্রীলঙ্কায় এখন এধরনের খেলোয়াড় নেই বললেই চলে।

জয়াবর্ধনে বলেন, ‘এটা খুবই হতাশাজনক। আমাদের কয়েকজন খেলোয়াড় রাডারে ছিল, কিন্তু এটা খুব কঠিন। কারণ অল্প কয়েকজন বিদেশি খেলোয়াড়ের জন্য স্লট ফাঁকা ছিল। আর তাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ছিল বোলার এবং বোলিং-অলরাউন্ডারদের জন্য। এই জায়গাটায় পিছিয়ে আছে শ্রীলঙ্কা। ‘

তিনি আরও বলেন, ‘আইপিএলে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়রা খেলে এবং শ্রীলঙ্কার খেলোয়াড়দের জন্য এটা একটা বার্তা যে তাদের খেলার মান আরও ভালো করতে হবে। তাদের প্রতিযোগিতার উপযোগী হতে হবে যেন তারা প্রতিভা ও সামর্থ্যের কারণে এখানে অংশ নিতে পারে। ‘

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.