আজ: শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১ইং, ২৪শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৩শে রমজান, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১০ মার্চ ২০২১, বুধবার |


কার্টুনিস্ট কিশোরের মামলার আবেদন

জাতীয় ডেস্ক: হেফাজতে নির্যাতনের অভিযোগ এনে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে দায়ী করে মামলার আবেদন করেছেন কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোর।

আজ বুধবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশের আদালতে এ মামলার আবেদন করেন তিনি। তবে মামলার আবেদনে কারো নাম উল্লেখ না করে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করা হয়েছে। আদালত বাদির জবানবন্দি গ্রহণের পর আদেশ দেবেন বলে জানিয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর তাপস কুমার পাল এসব তথ্য জানান।

মামলায় কিশোর উল্লেখ করেন, গত বছর ৫ মে রমনা থানার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের একটি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। কিন্তু এর আগে গত ২ মে সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে ১৬-১৭ জন সাদা পোশাকধারী লোক তার কাকরাইলের বাসা থেকে তুলে নিয়ে যান। কিন্তু তারা কোনো গ্রেপ্তারি পরোয়ানার কাগজ দেখাতে পারেননি। তারা বাসা থেকে মোবাইল, সিপিইউ, পোর্টেবল হার্ডডিস্কও নিয়ে যান। পরে হাতকড়া ও মুখোশ পরিয়ে নির্জন জায়গায় নিয়ে যায় তাকে। সেখানে ২ থেকে ৪ তারিখ পর্যন্ত তাকে নির্যাতন করা হয়। তাদের আলাপ আলোচনায় একজনকে জসিম বলে ডাকতে শুনেন।

এজাহারে তিনি বলেন, তাকে একটি পুরোনো ও স্যাঁতস্যাঁতে ঘরে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে প্রচণ্ড জোরে তার কানে থাপ্পড় মারলে কিছুক্ষণের জন্য তিনি বোধশক্তিহীন হয়ে পড়েন। বুঝতে পারেন, তার কান দিয়ে রক্ত গড়গড়িয়ে পড়ছে। তারপর স্টিলের পাত বসানো লাঠি দিয়ে পায়ে পেটাতে থাকে। যন্ত্রণায় অজ্ঞান হয়ে পড়েন কিশোর। এভাবে কয়েক দফা ২ থেকে ৪ মে পর্যন্ত শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতনের পর তাকে র‌্যাব কার্যালয়ে নিয়ে যায়। মোস্তাক আহমেদ কিশোরকে জানিয়েছিলেন, তাকে (কিশোর) বৈদ্যুতিক শক দেওয়া হয়েছিল। ৬ মে তাদের রমনা থানায় সোপর্দ করা হয়।

 

 

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.