আজ: বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১ইং, ১৩ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২৫ মার্চ ২০২১, বৃহস্পতিবার |



kidarkar

১৫ বছর পর আগুনে পুড়িয়ে স্ত্রীকে হত্যার রায়: স্বামীর যাবজ্জীবন

জাতীয় ডেস্ক: ১৫ বছর আগে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বিহারী পল্লীতে প্রথম স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার দায়ে স্বামী ইসলাম সৃষ্টিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার চতুর্থ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ মাকসুদা পারভীন এই রায় দেন। যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পাশাপাশি আসামিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

এই মামলার অন্য তিন আসামি সৃষ্টির মা বদরুন্নেছা, দ্বিতীয় স্ত্রী বেবী ও বোন বেবীর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের খালাস দেন আদালত।

এ মামলার আরেক আসামি সৃষ্টির বাবা তৈয়ব আলী মামলা চলাকালে মামলা যাওয়ায় তাকে আগেই অব্যাহতি দেওয়া হয়। সংশ্লিষ্ট আদালতের সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর মাহফুজুর রহমান চৌধুরী এ তথ্য জানান৷

মামলার বিবরণে জানা যায়, ঘটনার আড়াই বছর আগে ইসলামের সঙ্গে ফারজানার বিয়ে হয়। ২০০৫ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি প্রথম স্ত্রী ফারজানাকে শরীরে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়।

এ ঘটনায় ফারজানার বাবা রেজা বাদী হয়ে মোহাম্মদপুর থানায় মামলা করেন। ২০০৫ সালের ২৮ জুন মোহাম্মদপুর থানার তৎকালীন উপ-পরিদর্শক শিহাব উদ্দিন চার্জশিট দাখিল করেন। মামলায় প্রথমে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে এই মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ হয়। পরে মামলা বদলি হয়ে সংশ্লিষ্ট আদালতে আসে। ২০১৪ সালের ২ এপ্রিল দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় হত্যার অভিযোগে চার্জ গঠনের মাধ্যমে আসামিদের বিচার শুরু হয়।

মামলার বিচার চলাকালে আদালত ১২ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে আদালত রায়ের তারিখ ধার্য করেন।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.