আজ: সোমবার, ১৭ মে ২০২১ইং, ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা শাওয়াল, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২৯ মার্চ ২০২১, সোমবার |


গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা: আবেদন শুরু ১ এপ্রিল  

শিক্ষা ডেস্ক: গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে শিক্ষার্থীদের ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদন শুরু হচ্ছে আগামী ১ এপ্রিল থেকে। আবেদন শেষে হবে ১৫ এপ্রিল। যেসব শিক্ষার্থীদের ন্যূনতম যোগ্যতা থাকবে তারা প্রাথমিক আবেদন করতে পারবেন।

আজ সোমবার গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রাথমিক আবেদনকারীদের মধ্যে মেধার ভিত্তিতে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে যোগ্য শিক্ষার্থীদের ফলাফল ২৩ এপ্রিল মোবাইল ফোনে মেসেজের মাধ্যমে জানানো হবে। প্রাথমিকভাবে বাছাইকৃত শিক্ষার্থীরা মোবাইল ব্যাংকিং সেবার মাধ্যমে ৫০০ টাকা জমা দিয়ে ২৪ এপ্রিল থেকে ২০ মের মধ্যে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য চূড়ান্ত আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনকারীরা ১ জুন থেকে ১০ জুনের মধ্যে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে পারবেন এবং ১৯ জুন থেকে ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে। গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলোয় ভর্তি পরীক্ষার বিস্তারিত তথ্য ভর্তি সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইট www.gstadmission.org , www.gstadmission.ac.bd এবং জাতীয় দৈনিকে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হবে।

পরীক্ষায় ২০১৯ ও ২০২০ সালে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণরা প্রাথমিক আবেদন করতে পারবেন। তবে, শিক্ষার্থীদের এসএসসি ও এইচএসসির মোট জিপিএ বিজ্ঞান শাখার জন্য ন্যূনতম ৮.০০, বাণিজ্য শাখার জন্য ন্যূনতম জিপিএ ৭.৫ ও মানবিক শাখার জন্য ন্যূনতম জিপিএ ৭.০০ থাকতে হবে। প্রত্যেক শাখার শিক্ষার্থীদের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় আলাদাভাবে ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫ থাকতে হবে।

গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপাচার্যদের সমন্বয়ে গঠিত কমিটির যুগ্ম-আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান জানান, আগামী ১ এপ্রিল থেকে ভর্তি আবেদন শুরু হবে। এজন্য কমিটি কাজ করছে। এতে একসঙ্গে সবার ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হবে না। ২০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে যতগুলো আসনে বসার মতো সুযোগ থাকবে, ততো শিক্ষার্থীকে এসএমএস দিয়ে ডাকা হবে। কয়েকটি ধাপে এমসিকিউ পদ্ধতিতে পরীক্ষা নেওয়া হবে।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.