আজ: বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১ইং, ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৮ জুলাই ২০২১, রবিবার |



kidarkar

ঢাকায় সিনোফার্মের আরও ১০ লাখ টিকা

শেয়ারবাজার ডেস্ক: ঢাকায় পৌঁছেছে করোনা প্রতিরোধী সিনোফার্মের আরও ১০ লাখ টিকা। শনিবার (১৮ জুলাই) রাত ১১.৩৫ মিনিটে টিকাবহনকারী বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইটটি ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়। এ নিয়ে চুক্তির ৩০ লাখ এবং উপহারের ১১ লাখসহ সিনোফার্ম মোট ৪১ লাখ ডোজ সরকারে হাতে পৌঁছুলো।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা মাইদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি আরও জানিয়েছেন, দ্বিতীয় চালানে আরও ১০ লাখ টিকা ঢাকার পথে রয়েছে। রাত ৩টায় এই টিকা দেশে আসার কথা রয়েছে।

বাংলাদেশ সিনোফার্মের কাছ থেকে দেড় কোটি ডোজ টিকা কিনেছে। তিন মাসের মধ্যে এই টিকা দেশে আসার কথা। এসব টিকা আসবে ধাপে ধাপে।

শনিবার (১৭ জুলাই) বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা পৌনে সাতটার দিকে টিকার প্রথম চালান নিয়ে বিমানের ফ্লাইটটি বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। ঢাকায় চীনা দূতাবাসের উপপ্রধান হুয়ালং ইয়ান তার ফেসবুক পেজ থেকে এ খবর জানান। তিনি আরও জানান, আরও ১০ লাখ ডোজের দ্বিতীয় চালান নিয়ে আরেকটি ফ্লাইট বাংলাদেশ সময় রাত পৌনে ১০টার দিকে বেইজিং ছাড়বে।।

টিকা তথ্য-
আগামী সোমবার কোভ্যাক্স সুবিধার আওতায় যুক্তরাষ্ট্রের মডার্নার উৎপাদিত আরও ৩৫ লাখ ডোজ টিকা পাচ্ছে বাংলাদেশ। সোমবারই টিকাগুলো দেশে পৌঁছাবে।

মাঝে কিছু দিন দেশে টিকা সংকট দেখা গেলেও বিভিন্ন উৎস থেকে টিকা আসতে থাকায় সেই সংকট অনেকটাই কেটে গেছে। টিকা পেতে দেশে শুক্রবার পর্যন্ত নিবন্ধন করেছে ১ কোটি ২ লাখ ৫২ হাজার ১৬৫ জন। সিটি করপোরেশন, জেল, জেলার বিভিন্ন হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ফাইজার, মডার্না এবং সিনোফার্মের টিকা দেওয়া হচ্ছে।

সংরক্ষণ জটিলতার জন্য ঢাকাসহ ১২ সিটি করপোরেশনে ফাইজার ও মডার্নার টিকা এবং জেলা উপজেলায় সিনোফার্মের টিকা প্রয়োগ চলছে।

সব মিলিয়ে এ পর্যন্ত সরকারের হাতে এসেছে এক কোটি ৭০ লাখ ছয় হাজার ডোজ টিকা। এর মধ্যে অ্যাস্ট্রাজেনেকার এক কোটি তিন লাখ ডোজ, সিনোফার্মের ৪১ লাখ ডোজ, মডার্নার ২৫ লাখ ডোজ এবং ফাইজারের এক লাখ ছয় হাজার ডোজ টিকা।

•     অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা: ১ কোটি ৩ লাখ ডোজ
•       সিনোফার্ম: ৪১ লাখ ডোজ
•       মডার্না: ২৫ লাখ ডোজ
•       ফাইজার: ১ লাখ ৬ হাজার ডোজ

এদিকে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম জানিয়েছেন, আগস্টের মধ্যে ২ কোটি করোনাপ্রতিরোধী ভ্যাকসিন আসবে দেশে। আর আগামী বছরের এপ্রিলের মধ্যে দেশে আসছে সাত কোটি করোনার টিকা। নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পোস্টে এই তথ্য জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম।

তিনি বলেছেন, আগামী ১০ দিনের মধ্যে আসবে অক্সফোর্ডের ২৯ লাখ ভ্যাকসিন। জুলাইয়ের শেষ দিকে আসবে ৩০ লাখ করোনার ভ্যাকসিন। আর আগস্টের শুরুতে কোভ্যাক্সের ১০ লাখ ডোজ করোনার টিকা আসবে।

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে বাংলাদেশ প্রথম আনে অক্সফোর্ড- অ্যাস্ট্রেজেনেকার টিকা। ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে উৎপাদিত ৩ কোটি ৪০ লাখ টিকার চুক্তি করেছিল বাংলাদেশ। তবে ৭০ লাখ পাঠানোর পর সেরাম আর টিকা দিতে পারেনি ভারত সরকারের নিষেধাজ্ঞায়। এর পাশাপাশি ভারত সরকার বাংলাদেশকে উপহার দিয়েছে মোট ৩৩ লাখ টিকা।

বাংলাদেশে শুরুতে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা দেওয়া হয়। দ্বিতীয় ডোজ নিশ্চিত না করেই ৫৮ লাখ ২০ হাজারের বেশি মানুষকে ওই টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়। এর মধ্যে ৪৩ লাখ ৯৫ হাজার ২১৮ জনকে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া সম্ভব হয়েছে। এখনো ১৫ লাখ ২৪ হাজারের বেশি মানুষ দ্বিতীয় ডোজের অপেক্ষায় আছেন।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.