আজ: শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ইং, ৯ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১২ সেপ্টেম্বর ২০২১, রবিবার |



kidarkar

বৈশ্বিক বাজারে ব্র্যান্ডিংয়ে পিছিয়ে দেশ: সালমান এফ রহমান

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ অনেক এগিয়েছে। তবে অগ্রগতির সাথে বৈশ্বিক বাজারে ব্র্যান্ডিংয়ে দেশ পিছিয়ে রযেছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

তিনি বলেন, আমরা ব্র্যান্ডিংয়ে অনেক পিছিয়ে রয়েছি। কিছুদিন আগে আমরা আমেরিকাতে চারদিনের একটা রোড শো করেছি, সেখানেও প্রবাসীসহ অন্যরা বাংলাদেশের ব্র্যান্ডিংয়ে পিছিয়ে থাকার কথা বলেছেন।

রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) আয়োজিত “Declaration Event of Bangladesh International Investment summit 2021 and Meet the press” অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় তিনি বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক বিনিয়োগ সম্মেলন-২০২১ এর আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করেন এবং সামিটের ওয়েব সাইট ও লোগো উন্মোচন করেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান মোঃ সিরাজুল ইসলাম সভাপতিত্ব করেন।

সালমান এফ রহমান বলেন, ওই রোড শো’তে আমেরিকার ব্যবসায়ীরা জানিয়েছে, তারা বাংলাদেশ সম্পর্কে নতুন ধারণা পেয়েছে। বাংলাদেশ যে এতটা এগিয়ে গেছে সেটা তাদের জানা ছিলো না। তারা আমাদের ব্র্যান্ডিং বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছে।

তিনি বলেন, আমি মনে করি বিডাসহ অন্যান্য বিনিয়োগ উন্নয়ন প্রতিষ্ঠানগুলোর সহায়তায় ‘বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল ইনভেস্টমেন্ট সামিট ২০২১’ এর এই উদ্যোগ আমাদের ব্র্যান্ডিংয়ে যথেষ্ট ভূমিকা পালন করবে।

সালমান এফ রহমান বলেন, আমরা স্বল্প আয়ের দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে রূপান্তরিত হতে যাচ্ছি। এই মুহূত্বে আমাদের সামনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জটাই হলো বিনিয়োগ বাড়ানো। আশা করি ‘ইনভেস্টমেন্ট সামিট ২০২১’ সেই লক্ষ্য পূরণে অনেকটা সহায়ক হবে।

সালমান ফজলুর রহমান বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক বিনিয়োগ সম্মেলন আয়োজনের জন্য বিডাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, “আমরা অনেক দিন থেকেই বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক বিনিয়োগ সম্মেলন আয়োজন পরিকল্পনা করে আসছিলাম, কিন্ত বিশ্বব্যাপী কোভিট সংক্রমণের কারণে গত বছর তা করা সম্ভব হয়ে ওঠে নাই, তাই এ বছর ২৮-২৯ নভেম্বর দুই দিন ব্যাপী আমরা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক বিনিয়োগ সম্মেলন ২০২১ এর আয়োজন করতে যাচ্ছি।

তিনি বলেন, এ সম্মেলনের মূল উদ্দেশ্য হলো বিশ্বব্যাপী ব্র্যান্ড বাংলাদেশের প্রচার ও প্রসার এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দক্ষ নেতৃত্ব উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণের জন্য সেক্টর ভিত্তিক অধিক বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষণ করা।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা) এর নির্বাহী চেয়ারম্যান শেখ ইউসুফ হারুন বলেন, এখন আমাদের এগিয়ে যাওয়ার সময়, গত ১২ বছরে আমাদের আর্থ-সামাজিক ও অবকাঠামোগত উন্নয়ন বিস্ময়কর, এখন বিনিয়োগ আকর্ষণের জন্য বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশকে তুলে ধরার সময়, আমাদের ইপিজেডগুলো বিশ্বমানের বিনিয়োগের জন্য প্রস্তুত। এসময়ে তিনি বিনিয়োগ সম্মেলনের মাধ্যমে অধিকতর বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষণের আশা প্রকাশ করেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব মো: তোফাজ্জল হোসেন মিয়া বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বিনিয়োগ বিকাশের জন্য, আমরা বিনিয়োগকারীদের জন্য বিশ্বমানের বিনিয়োগ বান্ধব পরিবেশ তৈরি ও সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করেছি, যার ফলে বাংলাদেশ হয়ে উঠেছে অপার সম্ভাবনাময় লাভজনক বিনিয়োগের দেশ।

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অথিতি হিসাবে ফেডারেশন অফ বাংলাদেশ চেম্বার্স অফ কর্মাস এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (এফবিসিসিআই)- এর সভাপতি মো: জসিম উদ্দিন বলেন, এই আসন্ন বিনিয়োগ সম্মেলনের মধ্যমে যৌথ ও বিদেশী বিনিয়োগ বহু অংশে বৃদ্ধি পাবে। যার ফলে একই সাথে দেশী বিনিয়োগকারীরাও লাভবান হবেন।

অনুষ্ঠানে সকলকে ধন্যবাদ ও সকলের সহযোগিতা কামনা করে বিডা’র নির্বাহী চেয়াম্যান মোঃ সিরাজুল ইসলাম বলেন, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অন্যতম প্রধান বিনিয়োগ উন্নয়ন সংস্থা “বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা)” বিশ্ব ব্যাংক গ্রুপের ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স কর্পোরেশন (আইএফসি) এর সহযোগিতায় বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল ইনভেস্টমেন্ট সামিট ২০২১ আয়োজন করতে যাচ্ছে। আগামী ২৮-২৯ নভেম্বর ২০২১ তারিখে ঢাকার রেডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেন হোটেলে সামিটটি অনুষ্ঠিত হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভার্চুয়ালি সামিটটি উদ্বোধন করতে সদয় সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বের অন্যতম দ্রুতবর্ধনশীল উদীয়মান বাজার ও উন্নয়নশীল অর্থনীতির দেশ। বাংলাদেশের এই দ্রুত বর্ধনশীল এবং স্থিতিশীল অর্থনীতিতে অফুরন্ত বিনিয়োগের সুযোগ প্রদর্শিত করতেই বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল ইনভেস্টমেন্ট সামিট ২০২১ আয়োজন করা হচ্ছে। করোনা মহামারী পরিস্থিতিতে সামিটটি শারীরিক ও ভার্চুয়াল দুই মাধ্যমেই অনুষ্ঠিত হবে যা কার্যকর জনসংযোগ, মতবিনিময় এবং অংশীদারিত্বের সুযোগ সুবিধা প্রদানের মাধ্যমে উচ্চ বিকাশমান খাতগুলোতে বিনিয়োগ আকর্ষণে বিশেষ প্রভাবকের ভূমিকা রাখবে।

তিনি বলেন, সামিটে সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্তৃপক্ষ, স্থানীয় এবং বিদেশি বিনিয়োগকারী, আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা, দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ উন্নয়ন সংস্থা, দেশি-বিদেশি কূটনৈতিক মিশন, আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞ, বিদেশি এবং স্থানীয় গণমাধ্যমের প্রতিনিধিগণ উপস্থিত থাকবেন। সামিটে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান, প্লেনারি অধিবেশন, খাতভিত্তিক কারিগরি অধিবেশন এবং সমাপনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে। প্রতিযোগিতামূলক বিনিয়োগ পরিবেশ শীর্ষক একটি প্লেনারি অধিবেশন আয়োজন করা হবে। খাতভিত্তিক কারিগরি অধিবেশনগুলো (১২টি) হলো: তথ্য প্রযুক্তি ও ৪র্থ শিল্প বিপ্লব, তৈরি পোষাক শিল্প, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক পণ্য উৎপাদন শিল্প, কৃষি, চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, ঔষধ শিল্প ও স্বাস্থ্য, পরিবহণ ও লজিস্টিকস, বিদ্যুৎ/জ্বালানি/অবকাঠামো খাত, পুঁজিবাজার, আর্থিক খাত এবং ব্লু ইকোনমি। এছাড়াও দেশি ও বিদেশি বিনিয়োগ বৃদ্ধির জন্য দেশি-বিদেশি বিনিয়োগকারীদের মধ্যে সংযোগ ঘটিয়ে দেয়ার জন্য B2B বা One-to-One যোগাযোগের ব্যবস্থা রাখা হবে।

অনুষ্ঠানে বিডা’র পরিচালক আবুল খায়ের মোহাম্মদ হাফিজউল্লাহ খানের সঞ্চালনায় বিডা’র নির্বাহী সদস্য মোহসিনা ইয়াসমিন স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.