আজ: রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১ইং, ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৮শে রবিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৩ অক্টোবর ২০২১, রবিবার |



kidarkar

নিখোঁজ ৩ শিক্ষার্থী: রাকিব ২ দিনের রিমান্ডে ও ৩ জন কারাগারে

জাতীয় ডেস্ক: রাজধানীর পল্লবী থেকে ৩ শিক্ষার্থী নিখোঁজের ঘটনায় দায়ের করা অপহরণ মামলায় গ্রেপ্তার ৪ আসামির মধ্যে রকিবুল্লাহ নামে এক আসামির ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বাকি ৩ আসামিকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

রোববার (৩ অক্টোবর) ঢাকার মেট্রোপলিটন বেগম মাহমুদা আক্তারের আদালত শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

কারাগারে যাওয়া তিন আসামি হলেন-মো. তরিকুউল্লাহ, জিনিয়া ওরফে টিকটক জিনিয়া রোজ এবং শরফুদ্দিন আহম্মেদ অয়ন। এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পল্লবী থানার সাব-ইন্সপেক্টর সজিব খান ৪ আসামিকে আদালতে হাজির করে প্রত্যেকের ৭ দিন করে রিমান্ডের আবেদন করেন।

আবেদনে বলা হয়, প্রাথমিক তদন্তে আসামিদের মামলার ঘটনার সাথে সরাসরি জড়িত থাকার তথ্য প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে। এ অবস্থায় মামলার সুষ্ঠু তদন্ত ও ন্যায়বিচারের স্বার্থে ঘটনার মূল রহস্য উদঘাটন, ঘটনার সাথে জড়িত অজ্ঞাতনামা আসামিদের গ্রেপ্তারসহ ভিকটিমদের উদ্ধারের লক্ষ্যে রিমান্ড মঞ্জুরের প্রার্থনা করেন তদন্ত কর্মকর্তা।

ঢাকা বারের সাধারণ সম্পাদক খন্দকার হযরত আলী, ইব্রাহিম খলিলসহ কয়েকজন আইনজীবী আসামিদের ৭ দিন রিমান্ড মঞ্জুরের প্রার্থনা করেন। তারা বলেন, ‘আসামিরা বিভিন্ন টিকটক বানানোর সাথে জড়িত। এরা একটা সক্রিয় সদস্য। তারা নাবালিকা কিশোরীদের ফুঁসলিয়ে অপহরণ করে নিয়ে যায়। কাজ শেষে সেখানেই ফেলে রেখে আসে।’

তারা আরও বলেন, ‘টিকটক জিনিয়ার মাধ্যমে এই তিন কলেজ শিক্ষার্থীকে ফুঁসলিয়ে টাকা, স্বর্ণালংকার, সার্টিফিকেটসহ নিয়ে গেছে। ৭২ ঘণ্টা পার হলেও তারা উদ্ধার হয়নি। অতি দ্রুত এদের উদ্ধার করা প্রয়োজন। এজন্য তাদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হোক।’

তরিকুল্লাহ, জিনিয়া, অয়নের পক্ষে মির্জা সালাহ উদ্দিন আহমেদ, সোহেল হাওলাদার রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। এদের তিনজনের বয়সই ১৮ বছরের কম। এ অবস্থায় তাদের রিমান্ড নামঞ্জুর করে বয়স নির্ধারণের আবেদন করেন তারা।

উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত রকিবুল্লাহর দুই দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন। বাকি তিন আসামির বয়স নির্ধারণের পর রিমান্ড শুনানি হবে বলে জানানো হয়। বাদীপক্ষের আইনজীবী ইব্রাহীম খলিল এসব তথ্য জানান।

উল্লেখ্য, মিরপুর গার্লস আইডিয়াল ল্যাবরেটরি ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী কাজী দিলখুশ জান্নাত নিসা, পল্লবী ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী কানিজ ফাতেমা ও দুয়ারীপাড়া কলেজের শিক্ষার্থী স্নেহা আক্তার ৩০ সেপ্টেম্বর সকালে কলেজ ড্রেস পরে নিজ নিজ বাসা থেকে বের হয়। সে সময় তারা বাসা থেকে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, স্কুল সার্টিফিকেট ও মূল্যবান সামগ্রী নিয়ে যায়। এ ঘটনায় নিখোঁজ এক শিক্ষার্থীর বড় বোন অ্যাডভোকেট কাজী রওশন দিল আফরোজ পল্লবী থানায় শনিবার রাতে অপহরণ মামলা দায়ের করেন।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.