আজ: শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২ইং, ৮ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২৭ অক্টোবর ২০২১, বুধবার |



kidarkar

মাসিকভাবে ব্যাংকের ২০০ কোটি টাকা বিনিয়োগের তথ্য চায় বিএসইসি

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: ব্যাংকের ২০০ কোটি টাকার ‘বিশেষ তহবিল’ গঠন এবং তা বিনিয়োগের তথ্য জানতে চেয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। একইসঙ্গে স্পেশাল পারপাস ভেহিকল (এসপিভি) ও বিকল্প বিনিয়োগ তহবিল বা অনুরূপ তহবিলে আরও ২০০ কোটি টাকা বিনিয়োগের তথ্য ব্যাংকগুলোর কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে। বিনিয়োগের এসব তথ্য প্রতি মাসে প্রতিবেদন আকারে পাঠাতে ব্যাংকগুলোকে অনুরোধ জানিয়েছে বিএসইসি।

সম্প্রতি সকল তফসিলি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) বা প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের কাছে (সিইও) এ সংক্রান্ত চিঠি পাঠানো হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। এ ছাড়াও বিষয়টি বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর এবং ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই, সিএসই) ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ (এবিবি) ও বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকসের (বিএবি) চেয়ারম্যানকে অবহিত করা হয়েছে।

দেশে বর্তমানে তফসিলি ব্যাংকের সংখ্যা ৬১টি। এর মধ্যে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত রয়েছে ৩১টি ব্যাংক। আর অ-তালিকাভুক্ত রয়েছে ৩০টি ব্যাংক। সকল ব্যাংকের কাছে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের তথ্য চাওয়া হয়েছে।

বিএসইসি’র চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, শেয়ারবাজারের তারল্য সংকট দূর করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিপূর্বে জারি করা সার্কুলার অনুযায়ী সকল তফসিলি ব্যাংককে ২০০ কোটি টাকা করে একটি ‘বিশেষ তহবিল’ গঠনের নির্দেশনা রয়েছে। এ ছাড়া নির্দেশনায় আরও ২০০ কোটি টাকা স্পেশাল পারপাস ভেহিকল (এসপিভি), বিকল্প বিনিয়োগ তহবিল, বা অনুরূপ তহবিলে বিনিয়োগ করার কথা উল্লেখ রয়েছে। বিশেষ তহবিলের আওতায় শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ করা অর্থ ব্যাংকের এক্সপোজার সীমা হিসেবে গণ্য করা হবে না।

চিঠিতে আরো উল্লেখ করা হয়, শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ সংক্রান্ত বিশেষ তহবিল গঠন করা বা গঠনের প্রক্রিয়াধীন থাকা বা বিনিয়োগ শুরু করার জন্য আপনার ব্যাংককে আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। তবে আপনাদের ব্যাংকের শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের তথ্য নিয়মিতভাবে না দেওয়ার কারণে বিএসইসি’র কাছে এ সংক্রান্ত কোনো হালনাগাদ তথ্য নেই। তাই শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের জন্য বিশেষ তহবিল গঠনের অবস্থার এবং বিনিয়োগের তথ্য প্রতি মাসে প্রতিবেদন আকারে বিএসইসিতে পাঠানোর জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে। এ ছাড়া স্পেশাল পারপাস ভেহিকল (এসপিভি), বিকল্প বিনিয়োগ তহবিল, বা অনুরূপ তহবিলে প্রতি মাসের বিনিয়োগের তথ্য পরবর্তী মাসের সাত দিনের মধ্যে পাঠাতে বলা হলো।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএসইসি’র একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘সকল তফসিলি ব্যাংক শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের জন্য বিশেষ তহবিল গঠন করেছে কি-না তা জানতে চাওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে যেসব ব্যাংক ইতিমধ্যে বিশেষ তহবিল থেকে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ শুরু করেছে তাদের বিস্তারিত তথ্য জানাতে বলা হয়েছে।’

২ উত্তর “মাসিকভাবে ব্যাংকের ২০০ কোটি টাকা বিনিয়োগের তথ্য চায় বিএসইসি”

  • Anonymous says:

    Another eye wash, if you can take any action better don’t say anything…you know all the bank own by the corrupted politicians …wake up investors.

  • মোঃ সাহাব উদ্দিন মোল্লা says:

    শেয়ার বাজার ব্যাংকের বিনিয়োগ করতে২০০কোঠি টাকা বিনিয়োগ করলে ভবিষ্যতে শেয়ার বাজার এর উচ্চতা যাবে। এতেই সাধারণ বিনিয়োগকারীদের মনোবল চাঙ্গা করতে চেয়ারম্যান মহদোয় এর আগে অনেক চেয়ারম্যান পদে আসার পর শেয়ার বাজার এর জন্য চিন্তা করার মতো তাদের কাছে সময় ছিল না। বর্তমান চেয়ারম্যান মহদোয় এর অনেক চেষ্টা এই বাজার অনেক উচ্চতা নিয়ে গিয়েছে আপনার সুস্বাস্থ্য কামনা করছি।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.