আজ: সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১ইং, ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯শে রবিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৭ নভেম্বর ২০২১, রবিবার |



kidarkar

পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার মালিক সমিতির

জাতীয় ডেস্ক: পরিবহন ধর্মঘট প্রত‌্যাহার করেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি। এ ছাড়া বাসমালিকদের গাড়ি চালানোর আহ্বান জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক এনায়েত উল্লাহ খান।

রোববার (৭ নভেম্বর) বিকেলে গণমাধ‌্যমে তিনি বলেন, সোমবার থেকে নতুন ভাড়া কার্যকর হবে। বাড়তি ভাড়া আদায়ের বিষয়ে আমাদের নজরদারি থাকবে। আজ থেকেই গাড়ি চলাচল শুরু হবে।

খন্দকার এনায়েত উল্লাহ বলেন, ২০১৩ সালের পর থেকে আজকের পূর্ব পর্যন্ত এই ৮ বছরে কোনো বাস ভাড়া বাড়েনি। এমনকি ২০০৮ সালে কস্টিং কমিটি মিলে যে ভাড়া করেছিল সেটাও কিন্তু কার্যকর হয়নি। তখন থেকে যেভাবে যন্ত্রাংশের দাম বেড়েছে সেগুলোরই দাম আমরা উঠাতে পারিনি। আমরা জনগণের কথা চিন্তা করে যতটুকু সম্ভব ছাড় দিয়েছি। যদি তেলের দাম হিসেব করে ভাড়া বাড়ানো হতো তাহলে আরো বেশি বাড়তো।

তিনি বলেন, জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর পর সারাদেশে মালিকরা বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়। আমরা তাদের সেন্টিমেন্টের সঙ্গে সহমত পোষণ করেছিলাম। পাশাপাশি জনদুর্ভোগ লাঘবে সবার সঙ্গে আলোচনার উদ্যোগ নেওয়া হয়। সে আলোকেই আজকে বৈঠক হয়। যেহেতু ভাড়া পুনঃনির্ধারণ হয়েছে, সোমবার গেজেট হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, গণমাধ্যমের মাধ্যমে আমরা সব মালিকদের বাস চালু করার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি। এখন থেকে নতুনভাবে নির্ধারিত ভাড়া নেওয়া হবে। সরকার নির্ধারিত ভাড়ার বেশি কোনোভাবেই নেওয়া যাবে না। আমি আহ্বান জানাচ্ছি সব জেলা থেকে যেন বাস চলাচল শুরু করে। বাড়তি ভাড়া যেটা বাড়বে সেই অনুযায়ী যেন সবাই ভাড়া নেয়। বাড়তি কোন ভাড়া যেন আদায় করা না হয় সেজন্য আমি আহ্বান জানাচ্ছি। আর এখন থেকে ধর্মঘট প্রত্যাহার করে গাড়ি চলাচল স্বাভাবিক করতে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বাস বন্ধ রাখা হয়েছে মালিকদের নিজস্ব মতে। আমাদের কোনো নির্দেশনা ছিল না। তারা বন্ধ রাখার পরে আমাদের জানিয়েছে তখন আমরা তাদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করি। তবে আমাদের পক্ষ থেকে বাস বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়নি।

এর আগে এদিন সকাল সাড়ে ১১টার পর রাজধানীর মহাখালীতে বিআরটিএ ভবনে এক বৈঠকে নতুন করে ভাড়া সমন্বয়ের প্রস্তাব করা হয়। যেখানে দূরপাল্লায় কিলোমিটারে ৫৮ পয়সা, মহানগরে ৭০ পয়সা এবং মিনিবাসে ৮০ পয়সা বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ বিকেলে রাইজিংবিডিকে বলেন, আজকের বৈঠকে আমরা বাস ভাড়া বাড়ানোর বিষয়ে আলোচনা করেছি। হঠাৎ করে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি করায় আমাদের বাস চালানো অসম্ভব হয়ে পরায় আমরা ভাড়া বৃদ্ধির জন্য প্রস্তাব করেছি।

তিনি বলেন, দূরপাল্লার বর্তমান বাসভাড়া প্রতি কিলোমিটারে রয়েছে ১ টাকা ৪২ পয়সা। এখন তা আমরা বাড়িয়ে ২ টাকা করার প্রস্তাব করেছি। এক্ষেত্রে দূরপাল্লার ভাড়া বৃদ্ধির এ হার ৪০ দসমিক ৮৫ শতাংশ। এছাড়া মহানগরে বাসের বর্তমান ভাড়া কিলোমিটারে ১ দসমিক ৭০ পয়সা রয়েছে। এখন তা প্রস্তাব হয়েছে ২ দসমিক ৪০ পয়সা করার। এখানে মহানগরে বাড়তি ভাড়ার এ শতকরা হার ৪১.১৮ শতাংশ। এবং মহানগরে মিনিবাসের বর্তমান ভাড়া প্রতি কিলোমিটারে ১.৬০ পয়সা। এটি বাড়িয়ে ২.৪০ পয়সা করার প্রস্তাব হয়েছে। ভাড়া বৃদ্ধির এ হার ৫০ শতাংশ।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.