আজ: সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২ইং, ২০শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩রা জিলহজ, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০২ ফেব্রুয়ারী ২০২২, বুধবার |



kidarkar

অটোমোবাইল একটি বড় সম্ভাবনাময় খাত: এফবিসিসিআই সভাপতি

নিজস্ব প্রতিবেদক: এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন বলেছেন, বাংলাদেশে এখন অনেক পণ্যই তৈরি হচ্ছে যেগুলো আগে ছিলো শুধুই আমদানি নির্ভর। অটোমোবাইল একটি বড় সম্ভাবনাময় খাত। মটরসাইকেল সহ এ খাতের অনেক পণ্য এখন দেশে তৈরি হচ্ছে, পাশাপাশি বিদেশে রপ্তানী হচ্ছে। দেশের এ সক্ষমতা ব্র্যান্ডিং করা হলে রপ্তানি ও বিনিয়োগ বাড়বে। বিপুল কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে।

বুধবার (২ ফেব্রুয়ারি) এফবিসিসিআই কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত অটোমোবাইল ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড অসেম্বালার্স সম্পর্কিত এফবিসিসিআই এর স্ট্যান্ডিং কমিটির প্রথম বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।

এফবসিসিআইর সভাপতি বলেন, একসময় বাংলাদেশ ছিলো শুধুই আমদানি নির্ভর একটি দেশ। বর্তমান বাংলাদেশের সক্ষমতা বেড়েছে কয়েক গুন। প্রয়োজনীয় অনেক পণ্য এখন তৈরী হচ্ছে দেশে, পাশাপাশি রপ্তানীও হচ্ছে। পর্যাপ্ত ব্র্যান্ডিং এর অভাবে বিশ্বের অনেক দেশ এখনও বাংলাদেশের সক্ষমতা সম্পর্কে জানে না।

কমিটির ডিরেক্টর ইন-চার্জ, এফবিসিসিআই’র সহ-সভাপতি মোঃ হাবিব উল্লাহ্ ডন বলেন, নীতিমালা সংক্রান্ত সমস্যাগুলো সমাধানের পাশাপাশি পণ্যের গুনগতমান নিশ্চিত করে দেশে প্রতিযোগীতামূলক বাজার তৈরি করতে হবে। অটোমোবাইল খাতকে এগিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ের প্রতিনিধিগণকে নিয়ে ভবিষ্যতে প্রয়োজনীয় সভা সেমিনার আয়োজন করার কথাও জানান তিনি।

অটোমোবাইল সহ খাতভিক্তিক উন্নয়নে কাজ করতে ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বান জানান সভার সভাপতি ও স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান খান। তিনি বলেন, এজন্য খাত ওয়ারী সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা প্রস্তুত করে তা এফবিসিসিআই’র মাধ্যমে সরকারেরর কাছে উপস্থাপন করতে হবে। উন্নয়ন আরো গতিশীল হবে। এফবিসিসিআই সরকারের সাথে ভেন্ডর নীতিমালা নিয়ে এরইমধ্যে কাজ শুরু করেছে।

কমিটির কো-চেয়ারম্যান, উত্তরা গ্রুপের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মতিউর রহমান অভিযোগ করে বলেন, ব্যবসায়ীদের সাথে আলোচনা না করেই নীতিমালা প্রণয়নের ফলে, অটোমোবাইল খাতের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এ খাতের উদ্যোক্তাদের সঙ্গে আলোচনা করে নীতি প্রণয়ন করলে, তা দেশের অটোমোবাইল শিল্পের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করবে।

পর্যাপ্ত নীতিমালার অভাবে দেশে মোটরসাইকেল, সিএনজি ও গাড়ির নকশা ও যন্ত্রাংশ তৈরি করা যাচ্ছে না। এসব কাজের ৯৯ শতাংশই করছেন বিদেশী ভেন্ডররা। অথচ দেশীয় ভেন্ডর উন্নয়নের সরকারের পক্ষ থেকে কোন কার্যক্রম নেই। দেশে শক্তিশালী অটোমোবাইলের উন্নয়নে খাতভিত্তিক নীতিসহযোগিতা চান উদ্যোক্তারা।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.