আজ: বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২ইং, ২৩শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৬ই জিলহজ, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২২, মঙ্গলবার |



kidarkar

বৈষম্য কমাতে জেন্ডার লেন্স ইনভেস্টমেন্ট জরুরি

নিজস্ব প্রতিবেদক: আর্থিক অন্তর্ভুক্তিতে বিদ্যমান বৈষম্য দূরীকরণে নারী উদ্যোক্তাবান্ধব ইকোসিস্টেম তৈরি জরুরি। এ ক্ষেত্রে বিভিন্ন পর্যায়ের স্টেকহোল্ডারদের অংশগ্রহণ প্রয়োজন বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন আলোচকরা।

সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর একটি হোটেলে এটুআই আয়োজিত জাতীয় পর্যায়ের সেমিনারে আলোচকরা এ কথা বলেন।

সেমিনারে বাংলাদেশ উইমেন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সেলিমা আহমেদ বলেন, বর্তমান সরকার নারী উন্নয়নে বিশেষ করে নারী উদ্যোক্তাদের উন্নয়ন ও নারী-পুরুষের সমতার লক্ষ্যে কাজ করে চলছে। আর্থিক অন্তর্ভুক্তির জন্য নারী উদ্যোক্তাদের এখন আর শুধু পণ্য উৎপাদন ও ক্ষুদ্র ঋণের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলে তাদের স্বপ্নের বাস্তবায়ন সম্ভব হবে না। তবে দেশের নারী উদ্যোক্তাদের ক্ষমতায়নকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেওয়ার ক্ষেত্রে ভোগান্তি কমিয়ে এখন ব্যাংক ঋণে তাদের প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করা প্রয়োজন। এ জন্য আর্থিক অন্তর্ভুক্তির ক্ষেত্রে জেন্ডার ইক্লোসিভ ফিন্যান্সিয়াল সিস্টেম এবং জেন্ডার লেন্স ইনভেস্টমেন্ট খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। নারী-পুরুষ বৈষম্য নিরসন করে জেন্ডার লেন্স ইনভেস্টমেন্ট সুবিধা প্রান্তিক পর্যায়ে নারীদের কাছে পৌঁছে দিতে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে নারীদের সম্পৃক্ততা বাড়াতে হবে।

এটুআইয়ের প্রকল্প পরিচালক বলেন, তথ্যপ্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে নারীদের আর্থিক অন্তর্ভুক্তিতে আমরা কতটুকু ভূমিকা রাখতে পারি সেটা খোঁজে বের করা প্রয়োজন। প্রান্তিক মানুষের চাহিদা না জেনে ত্রুটিপূর্ণ সার্ভিস ডিজাইন করলে তা থেকে প্রান্তিক পর্যায়ের জনগণ সেবা পাবে না। সে জন্য সার্ভিসগুলো ডিজাইনের ক্ষেত্রে প্যাকেজ আকারে চিন্তা করতে হবে। নারী উদ্যোক্তাদের প্রয়োজনীয় সবগুলো সেবা একসাথে নিয়ে আসার বিষয়ে আমরা চিন্তা করছি।

সেমিনারে বক্তারা আর্থিক অন্তর্ভুক্তিতে নারীদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধিতে প্রাতিষ্ঠানিক সুযোগ ও সম্ভাবনা তৈরি, আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহের সক্ষমতা বৃদ্ধি, লিঙ্গ বৈষম্যগত বিদ্যমান সামাজিক ও অর্থনৈতিক অবস্থান দূরীকরণে দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনসহ নারীদের আর্থিক সেবাপ্রদানে অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার বিষয়ে আলোচনা করেন।

সেমিনারে আরও উপস্থিত ছিলেন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) ফরিদা পারভীন, বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক আবুল বশর, ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও হুমায়রা আজম, বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের প্রোগ্রাম অফিসার স্নিগ্ধা আলী, এটু্আই-এর যুগ্ম-প্রকল্প পরিচালক (যুগ্ম সচিব) নাহিদ সুলতানা মল্লিক প্রমুখ।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.