আজ: শনিবার, ২১ মে ২০২২ইং, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৮ই শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৩ মার্চ ২০২২, রবিবার |



kidarkar

আসছে না হাদিসুরের মরদেহে, কবে আসবে জানা যায়নি

শেয়ারবাজার ডেস্ক:ইউক্রেনের অলভিয়া বন্দরে রকেট হামলায় নিহত ‘বাংলার সমৃদ্ধি’ জাহাজের থার্ড ইঞ্জিনিয়ার হাদিসুর রহমানের মরদেহ আজ রোববার (১৩ মার্চ) বাংলাদেশে আসছে না। যে ফ্লাইটে তার মরদেহ বহনের কথা ছিল, সেটি বাতিল হওয়ায় এমন তথ্য পাওয়া গেছে। তবে এই মরদেহ কবে আসবে সেই বিষয়ে এখওন কিছু জানা যায়নি।

রোমানিয়ায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত দাউদ আলী গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ইস্তাম্বুলে ভারী তুষারপাতের কারণে ঢাকাগামী হাদিসুরের মরদেহবাহী ফ্লাইটটি বাতিল করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে গোলার আঘাতে নিহত হয়েছিলেন বাংলাদেশি জাহাজ ‘এমভি বাংলার সমৃদ্ধি’র তৃতীয় প্রকৌশলী হাদিসুর রহমান। যে ঘটনায় তার পরিবারসহ পুরো বাংলাদেশ মর্মাহত হয়। পরিবারের দাবি ছিল- জীবিত না পেলেও যেন অন্তত মরদেহটি পান তারা। এরপরই হাদিসুরের মরদেহ ইউক্রেন থেকে উদ্ধার করে দেশে আনতে সরকারিভাবে উদ্যোগ নেওয়া হয়। সেই উদ্যোগে অনেক চেষ্টার পর হাদিসুরের মরদেহ আজ রোববার (১৩ মার্চ) দুপুরের দিকে ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসার কথা ছিল। কিন্তু আজ তা আর আসছে না।

এর আগে গতকাল শনিবার (১২ মার্চ) রাতে রোমানিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. দাউদ আলী গণমাধ্যমকে বলেছিলেন, ‘রোমানিয়া সময় রাত পৌনে ১০টায় নাবিক হাদিসুরের মরদেহ টার্কিশ এয়ারলাইনসের একটি কার্গো ফ্লাইটে ঢাকার উদ্দেশে রওনা করেছে। বাংলাদেশ সময় ২টায় হাদিসুরের মরদেহ ঢাকায় পৌঁছানোর কথা রয়েছে।’

গত শুক্রবার (১১ মার্চ) হাদিসুরের মরদেহ ইউক্রেন থেকে মালদোভায় পৌঁছায়। সেখান থেকে মরদেহ গতকাল শনিবার সকালে রোমানিয়ায় পৌঁছায়। গত ২ মার্চ ইউক্রেনের অলভিয়া বন্দরে আটকে থাকা ‘এমভি বাংলার সমৃদ্ধি’ রকেট হামলার শিকার হয়। ওই সময়ে নিহত হন নাবিক হাদিসুর।

পরদিন ৩ মার্চ জাহাজটি থেকে জীবিত ২৮ নাবিক ও নিহত হাদিসুরের মরদেহ নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়। এরপর ওই ২৮ নাবিককে ইউক্রেন থেকে মালদোভা হয়ে রোমানিয়ায় নিয়ে যায় সেখানকার বাংলাদেশ দূতাবাস। গত ৯ মার্চ রোমানিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসের তত্ত্বাবধানে রোমানিয়ায় অবস্থান করা ২৮ নাবিককে বাংলাদেশে নিয়ে আসা হয়।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.