আজ: সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২ইং, ২০শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা জিলহজ, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২২ জুন ২০২২, বুধবার |



kidarkar

প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে আইসিএসবি’র আলোচনা সভা

নিজস্ব প্রতিবেদক: চলতি বছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর আলোচনার আয়োজন করেছে ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড সেক্রেটারিজ অব বাংলাদেশ (আইসিএসবি)। গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর একটি হোটেলে এ আলোচনাটির আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে শফিকুল আলম তার মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ও বাজেটের মূল বৈশিষ্ট্য তুলে ধরেন। প্যানেল বক্তারা নতুন বাজেটের কিছু প্রস্তাব এবং কর্পোরেট সেক্টরের উপর সম্ভাব্য প্রভাব নিয়ে আলোচনা করেন। প্রস্তাবিত বাজেটে ২ হাজার ৪৫০ কোটি টাকার বিশাল ঘাটতি রয়েছে বলে বক্তারা মতামত পেশ করেন। এছাড়াও করোনা মহামারি, রাশিয়া-ইউক্রেন সংঘাতের প্রভাব এবং দেশে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বড় চাপের কারণে তৈরি চ্যালেঞ্জ বিবেচনা করলে এই বাজেট অর্জন করতে সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি হবে।

প্যানেলিস্টরা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান সমূহের উপর ওয়ার্কার্স প্রফিট পার্টিসিপেশন ফান্ডের (ডব্লিউপিপিএফ) উপর কর আরোপের প্রস্তাব নিয়ে দীর্ঘ আলোচনা করেন। তারা তাদের উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, এই বিলটি পাস হলে যাদের উপর বাংলাদেশের শ্রম আইনের ডব্লিউপিপিএফ বিধান প্রযোজ্য তাদের উপর বিশাল আর্থিক প্রভাব ফেলবে ।

বক্তারা উল্লেখ করেন, এই বিধানটি বাংলাদেশ শ্রম আইন, ২০০৬ এর ধারা ২৪৪ এর সাথে সাংঘর্ষিক যা ডব্লিউপিপিএফ’র জন্য বরাদ্দকৃত তহবিল কর্তনকে অনুমোদন দেয় এবং একই সাথে এটি দ্বৈত করের অবস্থা সৃষ্টি করে।

আলোচনাকারীরা বেসরকারি বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আস্থা তৈরি করতে এবং বৈদেশিক বিনিয়োগ বাড়াতে প্রতিযোগীদের বিবেচনায় রেখে কর্পোরেট ট্যাক্সের পাশাপাশি ব্যক্তিগত কর পুনর্গঠনের পরামর্শ দেন। বক্তারা বিদেশী ও স্থানীয় বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগে উৎসাহিত করার সুপারিশ প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন আইসিএসবি’র সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. আজিজুর রহমান। মূল বক্তব্য প্রদান করেন আইসিএসবি কাউন্সিল সদস্য মো. শফিকুল আলম এবং সমাপনী বক্তব্য রাখেন ইনস্টিটিউটের প্রেসিডেন্ট মোজাফফর আহমেদ। আলোচনা অধিবেশনে সাবেক এবং বর্তমান সরকারী কর্মকর্তা, কর্পোরেট নেতা, অর্থনৈতিক খাতের বিশেষজ্ঞ, পেশাদার ইন্সটিটিউট ও এ্যাসোসিয়েশনসমূহের প্রধানগণ এবং বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, এম. শহীদুল হক, সাবেক সিনিয়র সচিব ড. এম. হারুনুর রশীদ, বাংলাদেশ একাউন্টিং এসোসিয়েশনের সভাপতি কে. এইচ. মাসুদ সিদ্দিকী, সাবেক সচিব শাহাদাত হোসেন, ইনস্টিটিউট অফ চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস অফ বাংলাদেশের সভাপতি হোসেন সাদাত, গ্রামীণফোনের পরিচালক আকতার মতিন চৌধুরী, ইন্ডিপেন্ডেন্ট ডিরেক্টর ইউসিবির লুৎফর রহমান, শামসুল কিবরিয়া, ড. মোহাম্মদ আবু ইউসুফ, অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের যুগ্ম সচিব উজ্জল বিকাশ দত্ত, শীষ হায়দার চৌধুরী।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.