আজ: বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ইং, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩০শে সফর, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, বৃহস্পতিবার |



kidarkar

পদ্মা প্রিন্টার্সের শেয়ার কিনছে এলআর গ্লোবাল

নিজস্ব প্রতিবেদক : পুঁজিবাজারের ওভার দ্য কাউন্টার (ওটিসি) মার্কেট থেকে এক্সিট প্ল্যানের আওতায় তালিকাচ্যুত হওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে পেপার ও প্রিন্টিং খাতের কোম্পানি পদ্মা প্রিন্টার্স অ্যান্ড কালার লিমিটেড। তবে সম্প্রতি কোম্পানিটির উদ্যোক্তাদের অংশ থেকে ২০ শতাংশের বেশি শেয়ার কেনার আগ্রহ প্রকাশ করেছে দেশের শীর্ষ স্থানীয় সম্পদ ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠান এলআর গ্লোবাল অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

এরই ধরাবাহিকতায় উভয় প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে সম্প্রতি পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কাছে শেয়ার স্থানান্তরের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। সার্বিক দিক বিবেচনা করে পদ্মা প্রিন্টার্স অ্যান্ড কালার লিমিটেডের উদ্যোক্তাদের ৩ লাখ ৩০ হাজার ৪৩টি শেয়ার এলআর গ্লোবাল অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের কাছে স্থানান্তরের অনুমতি দিয়েছে কমিশন।

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) পদ্মা প্রিন্টার্স অ্যান্ড কালার লিমিটেড ও এলআর গ্লোবাল অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক/প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও)বরাবর এ সংক্রান্ত একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।
একইসঙ্গে বিষয়টি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই), সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেডের (সিডিবিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালককে অবহিত করা হয়েছে।
বিএসইসি সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের গত ১৪ সেপ্টেম্বর পদ্মা প্রিন্টার্স অ্যান্ড কালার লিমিটেড এবং এলআর গ্লোবাল অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড কমিশনে চিঠি পাঠিয়েছে। চিঠিতে পদ্মা প্রিন্টার্স অ্যান্ড কালার লিমিটেডের পক্ষ থেকে উদ্যোক্তাদের হাতে থাকা ৩ লাখ ৩০ হাজার ৪৩টি শেয়ার স্থানান্তরের প্রস্তাব করা হয়েছে। পরবর্তীতে তা কোম্পানি আইন, ১৯৯৪ এবং সিকিউরিটিজ আইনের প্রাসঙ্গিক বিধানগুলো পরিপালন করা সাপেক্ষে অনুমোদন করেছে বিএসইসি। তাই ক্রেতার পক্ষ (এলআর গ্লোবাল অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড) থেকে কোম্পানির উদ্যোক্তাদের ৩ লাখ ৩০ হাজার ৪৩টি শেয়ার হস্তান্তর প্রক্রিয়া কার্যকর হওয়ার ৭ কার্যদিবসের মধ্যে প্রয়োজনীয় নথিপত্র কমিশনে দাখিল করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ক্রেতার পক্ষকে যেসব নথিপত্র দাখিল করতে হবে সেগুলো হলো- সিডিবিএলের ডিপিএ-৬ এর অনুলিপি (ডিমেট শেয়ারের ক্ষেত্রে) অথবা  যৌথমূলধন কোম্পানি ও ফার্মসমূহের পরিদপ্তরের (আরজেএসসি) প্রত্যয়িত শিডিউল-এক্সসহ শেয়ার সার্টিফিকেটের অনুলিপি (কাগুজের শেয়ারের ক্ষেত্রে), ব্যাংক সলভেন্সি সার্টিফিকেট এবং ক্রেডিট ইনফরমেশন ব্যুরোর (সিআইবি) আন্ডারটেকিংসহ সম্ভাব্য ক্রেতা পক্ষের ব্যবসায়িক প্রোফাইল, ওটিসি কোম্পানির সিকিউরিটিজে বিনিয়োগের জন্য ট্রাস্টির রেজোলিউশন, ঋণগ্রহণ করা ব্যাংকে একটি অনাপত্তি সার্টিফিকেট। লিস্টিং ফি পরিশোধের বিবরণ, সার্টিফিকেট মামলার নিষ্পত্তির বিবরণ, আরোপিত জরিমানা ও মুলতুবি থাকা এজিএম নিয়মিত করার পরিকল্পনা, অবন্টিত লভ্যাংশ বা অন্য কোন বিষয়ে বিনিয়োগকারীদের দাবির নিষ্পত্তির তথ্য, কোম্পানিকে অল্টারনেটিভ ট্রেডিং বোর্ড (এটিবি) বা এসএমই প্ল্যাটফর্মে স্থানান্তরিত হওয়া বা এক্সিট সিস্টেমের অধীনে বিনিয়োগকারীদের তহবিল নিষ্পত্তির জন্য প্রস্তাবিত ক্রেতার পরিকল্পনা এবং কোম্পানিটি পরিচালনার জন্য শেয়ার মূলধন ব্যতীত অন্য তহবিলের সম্ভাব্য উৎস সম্পর্কিত তথ্য।
তথ্য মতে, পদ্মা প্রিন্টার্স অ্যান্ড কালার লিমিটেডের মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তাদের হাতে রয়েছে ৫৪ শতাংশ বা ৮ লাখ ৬৪ হাজার শেয়ার। এর মধ্যে থেকে ৩ লাখ ৩০ হাজার ৪৩টি শেয়ার এলআর গ্লোবাল অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের কাছে বিক্রি করা হবে। সেহিসবে উদ্যোক্তাদের হাতে থাকা শেয়ারের মধ্যে ২০ শতাংশের বেশি শেয়ার কিনে নিবে এলআর গ্লোবাল অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড। বাকি ৫ লাখ ৩৩ হাজার ৯৫৭টি শেয়ার থাকবে পদ্মা প্রিন্টার্স অ্যান্ড কালার লিমিটেডের পুরোনো উদ্যোক্তাদের হাতে।

এ বিষয়ে এলআর গ্লোবাল অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের প্রধান বিনিয়োগ কর্মকর্তা (সিআইও) রিয়াজ ইসলাম বলেন, ‘আমরা অনেকগুলো কোম্পানির সঙ্গে কথা বলছি। পদ্মা প্রিন্টার্স অ্যান্ড কালার কোম্পানিগুলোর মধ্যে একটি। যদিও বিষয়টি একেবারেই ইনিশিয়াল স্টেজে রয়েছে। আমরা বিএসইসির সঙ্গে কাজ করছি অনেকগুলো কোম্পানিকে ঠিক করার জন্য। দীর্ঘদিন ধরে যেসব কোম্পানি বিনিয়োগকারীদের ডিভিডেন্ড দিচ্ছে না, সেগুলোকে লাইনে আনার জন্য কাজ করছি। এ কাজটি সম্পন্ন করতে সময় লাগবে।’
এদিকে ২০২১ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর ওটিসি মার্কেট বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেয় বিএসইসি। ফলে ওই মার্কেটের আওতাভুক্ত কোম্পানিগুলোকে আর্থিক সক্ষমতা ও ভবিষ্যৎ সম্ভাবনার ভিত্তিতে এসএমই প্ল্যাটফর্ম ও এটিবিতে স্থানান্তর এবং এক্সিট প্ল্যানের আওতায় তালিকাচ্যুত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসইসি। এরই ধারাবাহিকতায় ওটিসি মার্কেট থেকে পদ্মা প্রিন্টার্স অ্যান্ড কালার লিমিটেডকে এক্সিট প্ল্যান অনুযায়ী তালিকাচ্যুত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
প্রসঙ্গত, পদ্মা প্রিন্টার্স অ্যান্ড কালার লিমিটেড পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয় ১৯৭৯ সালে। কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ১ কোটি ৬০ লাখ টাকা। ১০ টাকা অবিহিত মূল্য হিসেবে কোম্পানিটির মোট শেয়ার সংখ্যা ১৬ লাখ। এর মধ্যে কোম্পানিটির উদ্যোক্তা পরিচালকের হাতে ৫৪ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের হাতে ১০ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের ৩৬ শতাংশ শেয়ার রয়েছে। ডিএসইতে পদ্মা প্রিন্টার্স অ্যান্ড কালার লিমিটেডের শেয়ার সর্বশেষ ১৬.৬০ টাকায় লেনদেন হয়েছে।

১ টি মতামত “পদ্মা প্রিন্টার্সের শেয়ার কিনছে এলআর গ্লোবাল”

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.