আজ: রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ইং, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৯ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২৪ নভেম্বর ২০২২, বৃহস্পতিবার |


kidarkar

হাসপাতাল থেকে ভক্তদের কাছে দোয়া চাইলেন সৌদির সেই ফুটবলার


স্পোর্টস ডেস্ক :  সেই ভয়াবহ সংঘর্ষের কথা খোদ ফুটবলপ্রেমীরাই ভুলতে পারছেন না। আর যিনি এই ঘটনার শিকার তিনি তো এখনো যন্ত্রণা বয়ে বেড়াচ্ছেন। হাসপাতালের বিছানাতেই সময় কাটছে তার। তবে স্বস্তির কথা চোখ মেলে তাকিয়েছেন ইয়াসির আল শাহরানি। সৌদি আরবের এই ডিফেন্ডারের অস্ত্রোপচার হয়েছে সফলভাবে। এরপরই উদ্বিগ্ন ভক্তদের কাছে দোয়া চাইলেন তিনি।

দুর্ঘটনার খবরটি অবশ্য জানা অনেকেরই। গত মঙ্গলবার কাতার বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ২-১ গোলের সেই স্বপ্নের জয়টা উদযাপন করতে পারেন নি সৌদি আরবের ডিফেন্ডার ইয়াসির আল শাহরানি। অতিরিক্ত সময়ে খেলা যখন চলছে তখন ঘটে ভয়ানক সেই ঘটনা। আর্জেন্টিনার একটি আক্রমণ ঠেকাতে গিয়ে সামনে চলে আসেন সৌদি আরবের গোলকিপার মোহাম্মদ আল-ওয়াইস। ঠিক তখনই ইয়াসির লাফিয়ে উঠে বল ধরতে গিয়ে পড়েন বিপাকে। গোলকিপার মোহাম্মদ আল-ওয়াইসের হাঁটু বেশ জোরে আঘাত করে তার মুখে।

চোট সামলাতে না পেরে মাঠেই পড়ে ছিলেন ইয়াসির। রক্তে ভেসে যায় তার মুখ। এরপর স্ট্রেচারে করে মাঠের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে। এক্স-রের পর জানা যায় চোয়াল এবং মুখের বাঁ দিকের হাড় ভেঙে যায়।  ভেতরে রক্তক্ষরণ হওয়ায় তার অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন হয়।

এবারের কাতার বিশ্বকাপ আসরের সবথেকে বড় অঘটন সৌদি আরবের কাছে আর্জেন্টিনার পরাজয়। সৌদি আরবের এমন আনন্দঘন দিনে যখন সতীর্থরা উদযাপনে ব্যস্ত তখন তাকে নিয়ে মেডিক্যাল স্টাফরা ছুটে যান হাসপাতালে। শুরুতে দোহার হাসপাতালে চিকিৎসা চলে। এরপর রিয়াদের একটি হাসপাতালে ইয়াসির আল-শাহরানির মুখে সফলভাবে অস্ত্রোপচার করা হয়।

তাকে দ্রুত উন্নত চিকিৎসার জন্য জার্মানি পাঠানোর উদ্যোগ নিয়েছিলেন সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান। ইয়াসিরের জীবন বাঁচাতে নির্দেশ দেন চিকিৎসার জন্য প্রাইভেট বিমানে করে যেন তাকে পাঠানো হয় জার্মানিতে।

এ অবস্থায় অস্ত্রোপচার হলো সৌদি আরবেই। দেশটির ফুটবল ফেডারেশনের একজন মুখপাত্র এক বিবৃতিতে বলেছেন, ৩০ বছর বয়সী আল-শাহরানিকে প্রাথমিকভাবে কাতারের হামাদ মেডিকেল সিটিতে নিয়ে যাওয়া হয়। যেখানে তিনি সম্পূর্ণ মেডিকেল চেকআপ করেন এবং রাত কাটান। এরপর তাকে অস্ত্রোপচারের জন্য দোহার হাসপাতাল থেকে রিয়াদের ন্যাশনাল গার্ড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

অস্ত্রোপচারের পর মিলেছে স্বস্তির খবর। আল-শাহরানি চোখ মেলে হাসপাতালের বিছানা থেকে কথা বলেছিলেন। ভক্তদের আশ্বস্ত করে দোয়া চেয়েছেন। সৌদি ডিফেন্ডার বলেন, ‘আমি আপনাকে আশ্বস্ত করছি যে আমি ঠিক আছি। আমার জন্য দোয়া করবেন। আর্জেন্টিনার বিপক্ষে জয়ের জন্য আমাদের সৌদি ভক্তদের অভিনন্দন।’

তবে এটা নিশ্চিত হওয়া গেছে- সংঘর্ষে একটি চোয়াল ভেঙে গেছে, মুখের হাড় ভেঙ্গে গেছে আর অভ্যন্তরীণ রক্তক্ষরণ হয়েছে। এ অবস্থায় আল শাহরানির অবস্থা স্থিতিশীল আর ডাক্তারদের বর্তমানে পর্যবেক্ষণে রয়েছেন তিনি।


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.