আজ: সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ইং, ২৩শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৩ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৩ ডিসেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার |


kidarkar

ব্র্যাক ব্যাংক-এর ‘আস্থা’ অ্যাপ ব্যবহারকারীরা এখন দেশ জুড়ে বিকাশ মার্চেন্ট পয়েন্টে


নিজস্ব প্রতিবেদক:  ব্র্যাক ব্যাংক-এর গ্রাহকরা এখন থেকে ‘আস্থা’ অ্যাপ ব্যবহার করে বিকাশ মার্চেন্ট পয়েন্টে কিউআর ভিত্তিক পেমেন্ট করতে পারবেন।

‘আস্থা’ ব্যবহারকারীরা সারা দেশে বিকাশ-এর প্রায় তিন লাখ মার্চেন্ট পয়েন্টে সহজে, নির্বিঘ্নে ও নিরাপদে পেমেন্ট করতে পারবেন।

‘আস্থা’ অ্যাপ ব্যবহারকারীদের স্বাচ্ছন্দ্যময় ও স্মার্ট ব্যাংকিং অভিজ্ঞতা দিতে এই অংশীদারিত্ব করেছে প্রতিষ্ঠান দু’টি। অনন্য এই অংশীদারিত্বের ফলে ‘আস্থা’ অ্যাপ ব্যবহারকারীরা অত্যাধুনিক ও সুবিধাজনক বিকাশ কিউআর পেমেন্ট সুবিধা উপভোগ করবেন।

সম্প্রতি ঢাকায় ব্র্যাক ব্যাংক-এর প্রধান কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে আনুষ্ঠানিকভাবে সম্পূর্ণ নতুন ধরনের এই ফিনটেক সেবা চালু করা হয়। অনুষ্ঠানে ব্র্যাক ব্যাংক-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও সেলিম আর. এফ. হোসেন এবং বিকাশ লিমিটেড-এর চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার কামাল কাদীর উপস্থিত ছিলেন।

এই যৌথ উদ্যোগের ফলে দুই লাখ ৭৩ হাজার ‘আস্থা’ ব্যবহারকারী এখন থেকে বিকাশ মার্চেন্ট পয়েন্টে পেমেন্ট করতে পারবেন। এই প্রযুক্তিগত সংযুক্তি ‘আস্থা’ গ্রাহকদের জন্য পেমেন্ট করার ক্ষেত্রে নতুন একটি উপায় এনে দিয়ে আরও স্বাচ্ছন্দ্য নিশ্চিত করবে। এই সম্মিলিত উদ্যোগের মাধ্যমে কিউআর পেমেন্ট নেটওয়ার্ক আরো বিস্তৃত হলো, ফলে গ্রাহকরা সহজেই ছোট-বড় যেকোনো পরিমাণ পেমেন্ট করতে পারবেন অনায়াসে।

ব্র্যাক ব্যাংক এবং বিকাশ-এর এই যৌথ উদ্যোগ বাংলাদেশে ক্যাশলেস পেমেন্ট ইকোসিস্টেম গড়ার অব্যাহত প্রচেষ্টারই অংশ, যা দেশের আর্থিক খাতকে আরও টেকসই করে তুলবে।

‘আস্থা’-বিকাশ কিউআর ইন্টিগ্রেশন সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে, ব্যাংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও সেলিম আর. এফ. হোসেন বলেন, “আমরা বিশ্বাস করি, এই কিউআর প্ল্যাটফর্মটি বাংলাদেশে ক্যাশলেস সোসাইটি গড়তে ভূমিকা রাখবে। পারস্পরিক ডিজিটাল সক্ষমতার সুবিধা নিয়ে, ‘আস্থা’ এবং বিকাশ গ্রাহকদের জন্য আকর্ষণীয় ডিজিটাল পেমেন্ট অভিজ্ঞতা নিয়ে আসতে পারে এবং ডিজিটাল পেমেন্ট সুবিধার ক্ষেত্রে নতুন উদ্ভাবনের মাধ্যমে আলোড়ন সৃষ্টি করতে পারে।”

তিনি আরও বলেন, “ব্র্যাক ব্যাংক-এর ডিজিটাল ট্রান্সফর্মেশন যাত্রার মুখ্য অবস্থান জুড়ে আছে  আস্থা  অ্যাপ। ডিজিটাল উদ্ভাবনের সাহায্যে গ্রাহকসেবা উন্নত করার প্রতি ব্র্যাক ব্যাংক যে বিশেষ জোর দিচ্ছে  আস্থা  অ্যাপ এর প্রমাণ। অ্যাপটি সব ধরনের ব্যাংকিং সুবিধা গ্রাহকদের নখদর্পণে নিয়ে এসেছে এবং বাংলাদেশে ডিজিটাল ব্যাংকিংয়ের দুর্দান্ত অগ্রযাত্রাকে আরও এগিয়ে নিচ্ছে। গ্রাহকদের বৈচিত্র্যময় ব্যাংকিং চাহিদা মেটাতে আমরা ‘আস্থা’ অ্যাপে আরও নতুন নতুন ফিচার যোগ করা অব্যাহত রাখবো।”

ব্র্যাক ব্যাংক ‘আস্থা’ দ্রুত ক্রমবর্ধমান গ্রাহক সংখ্যাসহ বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপ। আস্থা’ অ্যাপের সর্বশেষ সংযোজন এই বিকাশ কিউআর পেমেন্ট সার্ভিস। ইতোমধ্যেই এটি ইন্টারনেট চার্জ-মুক্ত অ্যাপের ব্যবহার, ডিজিটাল রিওয়ার্ড হিসাবে ইন্টারনেট প্যাক ও চরকি ওটিটি সাবস্ক্রিপশন ইত্যাদি উদ্ভাবনী সেবা চালু করেছে। এই উদ্ভাবনগুলো ‘আস্থা’ অ্যাপকে এশিয়ান টেকনোলজি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ডস ২০২২ এবং সাউথ এশিয়ান বিজনেস এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ডস ২০২২-এর মতো আন্তর্জাতিক পুরস্কার অর্জনে সাহায্য করেছে।

বিকাশ-এর পক্ষ থেকে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন চিফ এক্সটার্নাল অ্যান্ড কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স অফিসার মেজর জেনারেল শেখ মোঃ মনিরুল ইসলাম (অবঃ), চিফ ফাইন্যান্সিয়াল অফিসার মঈনুদ্দীন মোহাম্মদ রাহগীর, চিফ প্রোডাক্ট অ্যান্ড টেকনোলজি অফিসার মোহাম্মদ আজমল হুদা, চিফ কমার্শিয়াল অফিসার আলী আহম্মেদ, হেড অব ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস, কমার্শিয়াল জায়েদ আমিন, ইভিপি ও এইচওডি, মার্চেন্ট প্রোডাক্টস, প্রোডাক্ট অ্যান্ড টেকনোলজি এ.এন.এম. খালেকদাদ খান এবং হেড অব ব্যাংকিং পার্টনারশিপ অ্যান্ড অপারেশনস, ফাইন্যান্সিয়াল
সার্ভিসেস, কমার্শিয়াল আদনান কবির রকি।

ব্র্যাক ব্যাংক-এর পক্ষ থেকে আরও উপস্থিত ছিলেন ডিএমডি অ্যান্ড সিওও মোঃ সাব্বির হোসেন, ডিএমডি অ্যান্ড হেড অব কর্পোরেট ব্যাংকিং তারেক রেফাত উল্লাহ খান, হেড অব রিটেইল ব্যাংকিং মোঃ মাহীয়ুল ইসলাম, হেড অব ডিজিটাল বিজনেস অ্যান্ড পেমেন্টস মোঃ রাশেদুল হাসান স্ট্যালিন, হেড অব অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড এন্টারপ্রাইজ সিস্টেমস মুনতাসির রহমান, সিনিয়র ম্যানেজার, প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট এম. এ. কাজিম রিমন এবং ডিজিটাল বিজনেস অ্যান্ড পেমেন্টসের অ্যাসোসিয়েট প্রোডাক্ট ম্যানেজার ফাতেমা ফাহমিদা হক।


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.