আজ: বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ইং, ১৮ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৯ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৯ ডিসেম্বর ২০২২, সোমবার |


kidarkar

ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে ১ লাখ টাকা ক্যাশব্যাক পেলেন সাভারের পারভীন আক্তার


নিজস্ব প্রতিবেদক: ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে ১ লাখ টাকা ক্যাশব্যাক পেলেন আরো এক ক্রেতা। তিনি হচ্ছেন ঢাকা সাভারের পারভীন আক্তার।

দেশব্যাপী চলমান ওয়ালটন ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-১৬ এর আওতায় ফ্রিজ কিনে স্ক্র্যাচ কার্ডে এই ক্যাশব্যাক পান তিনি। ৩৬ হাজার ৮০০ টাকা দিয়ে ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে থেকে ১ লাখ টাকা ক্যাশব্যাক পেয়ে মহাখুশি পারভীন এবং তার পরিবার।

অনলাইন অটোমেশনের মাধ্যমে গ্রাহকদের আরও দ্রæত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা দিতে সারা দেশে চলছে ওয়ালটনের ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের সিজন-১৬। এই সিজনে ক্রেতাদের জন্য রয়েছে ‘স্বস্তির অফার’ শীর্ষক বিশেষ সুবিধা। এর আওতায় দেশের যেকোনো ওয়ালটন প্লাজা, পরিবেশক শোরুম কিংবা অনলাইনের ই-প্লাজা থেকে ফ্রিজ এবং ওয়াশিং মেশিন ক্রয়ে স্ক্র্যাচ কার্ডে ১ লাখ টাকা পর্যন্ত ক্যাশব্যাক পেতে পারেন। রয়েছে অসংখ্য পণ্য ফ্রি পাওয়ার সুযোগ।

সোমবার (১৯ ডিসেম্বর, ২০২২) সাভার রোডে ওয়ালটন এক্সক্লুসিভ পরিবেশক ‘সাঈদ ইলেকট্রনিক্স’- এ পারভীন আক্তারের হাতে ১ লাখ টাকার চেক তুলে দেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসি.’র সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর জনপ্রিয় চিত্রনায়ক আমিন খান এবং এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর স্বনামধন্য অভিনেতা আজিজুল হাকিম।

সে সময় উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটনের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা (সিএমও) মোহাম্মদ ফিরোজ আলম, সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর আরিফুল আম্বিয়া, ডিস্ট্রিবিউটর নেটওয়ার্ক ঢাকা ওয়েস্ট জোনের রিজিওনাল সেলস ম্যানেজার তারেকুল হক, সাঈদ ইলেকট্রনিক্সের সত্ত¡াধিকারী মো. সাঈদুর রহমান সিদ্দিক প্রমুখ।

ক্রেতা পারভীন আক্তার জানান, তিনি দুই মেয়েকে নিয়ে সাভার বাজার রোডে থাকেন। স্থানীয় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে মার্কেটিং অফিসার হিসেবে কর্মরত আছেন। অনেক বছর ধরে বাসায় ওয়ালটন ব্র্যান্ডের ফ্রিজ, বেøন্ডার, আয়রন, মোবাইল ফোন, ফ্যান ইত্যাদি পণ্য ব্যবহার করছেন। বড় মেয়ের শ্বশুর বাড়িতেও ওয়ালটন ফ্রিজ উপহার দিয়েছেন। সাশ্রয়ী দামে কেনা ওয়ালটনের এসব পণ্যে খুব ভালো সার্ভিসও পাচ্ছেন। তাই বাসার জন্য সম্প্রতি সাঈদ ইলেকট্রনিক্স থেকে ওয়ালটনের আরেকটি নতুন ফ্রিজ কেনেন। এরপর তার নাম, মোবাইল নাম্বার ও ফ্রিজের মডেল, বারকোড ইত্যাদি তথ্য ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশনে যুক্ত করা হয়। সেইসঙ্গে তাকে একটি স্ক্র্যাচকার্ড দেয়া হয়। সেই স্ক্র্যাচ কার্ডে পেয়ে যান এক লাখ টাকা ক্যাশব্যাক।

পারভীন আক্তার বলেন, ‘ওয়ালটন ফ্রিজ কেনার আগে স্ক্র্যাচ কার্ডের অফার সম্পর্কে জানতাম না। ফ্রিজটি কিনে রেজিস্ট্রেশন করার পর শোরুম থেকে আমাকে একটি স্ক্র্যাচ কার্ড দেয়া হয়। সেই স্ক্র্যাচ কার্ড ঘষে দেখি- ১ লাখ টাকা ক্যাশব্যাক। যা দেখে আমি খুবই অবাক হয়ে যাই। সাশ্রয়ী দামে ভালো মানের পণ্য পাওয়ায় অনেক বছর ধরে দেশীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটনের পণ্য ব্যবহার করছি। ফ্রিজ কিনে ১ লাখ ক্যাশব্যাক পাওয়ায় ওয়ালটন ব্র্র্যান্ডের উপর বিশ্বাস ও আস্থা আরো বেড়ে গেলো। ক্রেতাদের জন্য এমন সুযোগ দেয়ায় ওয়ালটন কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ।

জানা গেছে, ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতিতে ক্রেতার নাম, মোবাইল নম্বর এবং বিক্রি করা পণ্যের মডেল নম্বরসহ বিস্তারিত তথ্য ওয়ালটন সার্ভারে সংরক্ষণ করা হচ্ছে। ফলে ওয়ারেন্টি কার্ড হারিয়ে গেলেও দেশের যেকোনো ওয়ালটন সার্ভিস সেন্টার থেকে দ্রæত সেবা পাচ্ছেন গ্রাহক। অন্যদিকে সার্ভিস সেন্টারের প্রতিনিধিরাও গ্রাহকের ফিডব্যাক জানতে পারছেন। এ কার্যক্রমে ক্রেতাদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে উদ্বুদ্ধ করতে ক্যাম্পেইনের আওতায় ক্যাশব্যাকসহ নানা সুবিধা দেওয়া হচ্ছে।


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.