আজ: বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪ইং, ১০ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৪ জুলাই ২০২৪, বৃহস্পতিবার |

kidarkar

পুঁজিবাজারে সূচকে সেঞ্চুরি, স্বস্তি ফিরছে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রায় আড়াই বছর যাবত দেশের পুঁজিবাজার পতনের বৃত্তে আটকে রয়েছে। ফলে লাখের বেশি বিনিয়োগকারী নিঃস্ব হয়ে পথে বসে গেছে।

গত আড়াই বছরে প্রায় সপ্তাহেই বিনিয়োগকারীরা পতনের বড় ঝাপ্টা দেখেছে। কোন কোন দিন পতনের তান্ডব সেঞ্চুরী ছুঁয়েছে। এই সময়ে কিছু কিছু সময়ে উত্থানও হয়েছে। যা ছিল যৎসামান্য। যদিও পতনের বহু সেঞ্চুরী দেখেছে। দীর্ঘ দিন পর বিনিয়োগকারীরা পুঁজিবাজারে উত্থানের সেরা সেঞ্চুরী দেখেছে। আজ ডিএসইর সূচক বেড়েছে প্রায় ১২৪ পয়েন্ট। যা স্বরণকালের মধ্যে সর্বোচ্চ।ফলে স্বস্থি ফিরছে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে।

উল্লেখ্য, ২০২২ সালের ২০ জানুয়ারি ডিএসইর প্রধান সূচক ছিল ৭ হজার ১০৫ পয়েন্ট। তারপর থেকেই শেয়ারবাজারে শুরু হয় ধারাবাহিক পতন। যা চলতি সপ্তাহের প্রথমভাগ পর্যন্ত অব্যাহত ছিল। গত ৩০ জুন ডিএসইর সূচক ছিল ৫ হাজার ৩২৮ পয়েন্টে। সেই হিসাবে গত আড়াই বছরে ডিএসইর সূচক উধাও হয়ে গেছে ১ হাজার ৭৭৭ পয়েন্ট। গত তিনদিনে সূচক ১৬৯ পয়েন্ট বেড়ে আজ দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৪৯৭ পয়েন্টে।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, গতকাল বুধবার শেয়ারবাজারে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের বিনিয়োগ করার অনুমতি প্রদান করার একটি খবর গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। সেই খবরে আজ পুঁজিবাজারে বড় উত্থান দেখা গেছে।

তাঁরা বলছেন, পুঁজিবাজার এমনিতে পতনের চাপে সর্বনিম্ন তলানিতে এসে ঠেকেছে। যেখান থেকে সামনে যাওয়া ছাড়া কোনো গনন্তর ছিল না। এর সঙ্গে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের বিনিয়োগ করার ইতিবাচক খবরটি পুঁজিবাজারকে আরও সামনে নিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

বাজার বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, সপ্তাহের শেষ কর্মদিবস বৃহস্পতিবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ডিএসই ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ১২৩ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৫ হাজার ৪৯৭ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১ হাজার ২০৮ পয়েন্টে এবং ডিএসই–৩০ সূচক ৩৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১ হাজার ৯৫১ পয়েন্টে।

দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৯৬ কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৩৬৫ টির, দর কমেছে ১৩ টির এবং দর অপরিবর্তিত রয়েছে ১৮ টির।

ডিএসইতে ৭৭০ কোটি ৭০ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। যা আগের কার্যদিবস থেকে ২৩১ কোটি ৪৩ লাখ টাকা বেশি। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৫৩৯ কোটি ২৭ লাখ টাকার ।

অপরদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৩০৬ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ৪৬৩ পয়েন্টে।

সিএসইতে ২৪৭ টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৯৯ টির দর বেড়েছে, কমেছে ৩১ টির এবং ১৭ টির দর অপরিবর্তিত রয়েছে। সিএসইতে ২৪ কোটি ৬৫ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.