আজ: বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪ইং, ১০ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১০ জুলাই ২০২৪, বুধবার |

kidarkar

টানা ছয় কার্যদিবস পর সূচকে ফের পতন

নিজস্ব প্রতিবেদক : দীর্ঘদিন পতন প্রবণতায় আটকে থাকার পর চলতি জুলাই মাসের প্রথম কর্মদিবস থেকেই ঘুরে দাঁড়িয়েছে দেশের পুঁজিবাজার। টানা ৬ কর্মদিবস উত্থানের পর প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সূচকের উত্থান হয় ২৬৬ পয়েন্ট।

আজ বুধবার আগের ৬ দিনের উত্থান ধারাবাহিকতায় লেনদেন শুরু হয়। লেনদেনের ৩৫ মিনিটের মাথায় ডিএসইর সূচক বৃদ্ধি পায় ৩৮ পয়েন্ট। তারপর থেকেই বাজার টানা নামতে থাকে। বেলা সোয়া ১১টায় সূচক আগের দিনের অবস্থানে ফিরে আসে। এই সময় বাজারে কিছুটা বাই প্রেসার বাড়তে দেখা যায়। ফরে বাজার আবারও ওপরের দিকে উঠতে থাকে।

বেলা ১২টা ১০ মিনিটে ডিএসইর সূচক আবার ২৪ পয়েন্ট বেড়ে লেনদেন হতে থাকে। এই সময়ে আবারও সেল প্রেসারের চাপ দেখা যায়। ফলে আবারও পেছনে যেতে থাকে উভয় বাজার। তারপর বেলা ১টা ০৫ মিনিট পর্যন্ত বাজার ইতিবাচক অবস্থায় দাঁড়িয়ে থাকে। তারপর আর ছন্দ ধরে রাখতে পারেনি। পেছনের দিকে হাঁটতে থাকে।

এরপর বেলা ১টা ২২ মিনিটে ডিএসইর সূচক আগের দিনের চেয়ে ২২ পয়েন্ট কমে যায়। এই সময়ে বাজার ফের ওঠার চেষ্টা করে। যার ফলে বেলা ১টা ৩৩ মিনিটে সূচকের পতন ১১ পয়েন্ট পর্যন্ত পতন হয়। তারপর আবারও সেল প্রেসার দেখা যায়। যা শেষ পর্যন্ত অব্যাহত থাকে। বেলা ২টা ১৪ মিনিটে ডিএসইর সূচক ৩৪ পয়েন্ট খোয়া যেতে দেখা যায়। শেষবেলায় অ্যাডজাস্টমেন্টের কারণে সূচকের পতন কমে দাঁড়ায় ২৬ পয়েন্টে।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, গত ৬ দিনে ডিএসইর সূচক বেড়েছে ২৬৬ পয়েন্ট। এই সময়ে নতুন করে যারা শেয়ার কিনেছেন, তারা তাদের শেয়ারে মুনাফায় রয়েছেন। তাদের মুনাফা তোলার চাপে বাজারে কিছুটা ছন্দপতন দেখা যাচ্ছে। তাঁরা বলছেন, বাজার দুই-এক দিন মিশ্র প্রবণতায় থাকার পর আবারও সামনের দিকে অগ্রসর হবে।

বাজার বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, সপ্তাহের চতুর্থ কর্মদিবস বুধবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ডিএসই ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৩০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৫ হাজার ৫৯৪ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ২২৩ পয়েন্টে এবং ডিএসই–৩০ সূচক ৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ৯৬৪ পয়েন্টে।

দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৯৪ কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৯৮ টির, দর কমেছে ২৬৬ টির এবং দর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩০ টির।ডিএসইতে ৯৬৭ কোটি ২২ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। যা আগের কার্যদিবস থেকে ৫১ কোটি ৮৬ লাখ টাকা কম। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ১৯ কোটি ৮ লাখ টাকার।

অপরদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ৮৮৫ পয়েন্টে।সিএসইতে ২৮৪ টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১০৪ টির দর বেড়েছে, কমেছে ১৫৩ টির এবং ২৭ টির দর অপরিবর্তিত রয়েছে। সিএসইতে ৪২ কোটি ৭৬ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.