লঞ্চ উদ্ধার, মৃতের সংখ্যা ৭০

lonchশেয়ারবাজার রিপোর্ট: পদ্মায় কার্গোর ধাক্কায় ডুবে যাওয়া যাত্রীবাহী লঞ্চের মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭০ জন। এদিকে ডুবে যাওয়া এমভি মোস্তফা-৩কে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে উদ্ধারকারী জাহাজ রুস্তম।

সোমবার সকাল ১০টার দিকে উদ্ধার অভিযান আনুষ্ঠানিকভাবে সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক রাশিদা ফেরদৌস জানান, যে ৭০টি লাশ ডুবুরিরা উদ্ধার করেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ২৭টি, নারী ২৪টি এবং শিশুর লাশ রয়েছে ১৯টি। স্বজনদের কাছে ৬৮টি লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। বাকি দু’জনকে এখনো সনাক্ত করতে পারেনি।

পাটুরিয়া ঘাটে বসানো নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে লাশ হস্তান্তরের সময় নিহতদের লাশ সৎকারের জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে স্বজনদের ২০ হাজার টাকা করে দেয়া হচ্ছে।

ডুবে যাওয়া লঞ্চটিকে আজ ভোর সাড়ে চারটার দিকে উদ্ধার করে উদ্ধারকারী জাহাজ রুস্তম। লঞ্চটিকে তীরে আনা হয়েছে।

শিবালয় উপজেলার পাটুরিয়া ঘাট থেকে এমভি মোস্তফা-৩ রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে দৌলতদিয়া ঘাটের উদ্দেশে ছেড়ে যায়। ১৫ মিনিট পরই ইউরিয়া সার ভর্তি কার্গো জাহাজ নার্গিস-১-এর ধাক্কায় লঞ্চটি পদ্মাযর মাঝ ডুবে যায়। যাত্রীরা বলছেন, লঞ্চটিতে দুই শতাধিক যাত্রী ছিল।

ডুবে যাওয়া লঞ্চটি উদ্ধারে রাত সোয়া ১১টার দিকে উদ্ধারকারী জাহাজ রুস্তম ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করে।

 

শেয়ারবাজার/মু

 

আপনার মন্তব্য

Top