আইসিবির ডিএমডি মশিউরকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ

acc-logo_3_54478f0f22eefশেয়ারবাজার রিপোর্ট : মার্জিন ঋণ নিয়ে গ্রাহকেরর সাথে প্রতারণা করে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ডিএমডি) মো. মশিউর রহমানকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

আইসিবির সহযোগী প্রতিষ্ঠান আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের বিরুদ্ধে গ্রাহক প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ অনুসন্ধানে মশিউর রহমানকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

তিনি আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্টের পরিচালক ও সিইও পদে কর্মরত।

বুধবার  (২৫ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। দুদকের সহকারী পরিচালক মো. আল আমিন তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য বিষয়টি শেয়ারবাজার নিউজ ডট কমকে নিশ্চিত করেছেন।

এরআগে, গ্রাহকের নামে ঋণ দেখিয়ে প্রায় সাড়ে ১৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে  আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের চেয়ারম্যান ফায়েকুজ্জামান এবং পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মো. মশিউর রহমানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য  দুদক কার্যালয়ে তলব করা হয়। দুদকের সহকারী পরিচালক মো. আল আমিন এ অভিযোগ অনুসন্ধানের দায়িত্বে রয়েছেন।

দুদক সূত্র জানায়, আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের গ্রাহক মেজর (অব.) মো. আবদুর রাজ্জাক ২০০৯ সালের ৭ অক্টোবর শেয়ারবাজারে তিনি ও তার স্ত্রীর নামে দুটি হিসাব (হিসাব নম্বর ৮৮৫০ ও ৮৮৫১) খোলেন। পরবর্তী সময়ে তিনি চার লাখ টাকা দিয়ে শেয়ার কেনেন গ্রামীণফোনের।

আবদুর রাজ্জাক কোনো মার্জিন ঋণ নেননি। অথচ ২০১৪ সালের ১৯ জুন আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের পক্ষ থেকে চিঠি দিয়ে তাকে মার্জিন ঋণের কথা জানানো হয়।

চিঠিতে বলা হয়, বিনিয়োগ হিসাব ৮৮৫০ এর বিপরীতে ৬ লাখ ৪২ হাজার ৮৫ টাকা মার্জিন ঋণ নেওয়া হয়েছে। ঋণ পরিশোধ ও সমন্বয়ের জন্যই মূলত ওই চিঠি দেওয়া হয়।

একইভাবে আব্দুর রাজ্জাকের স্ত্রী জাহানারা পারভীনের নামেও ৯ লাখ টাকা মার্জিন ঋণ দেখানো হয়েছে। এভাবে স্বামী-স্ত্রীর নামে মোট প্রায় সাড়ে ১৫ লাখ টাকা আত্মসাৎ করা হয়েছে।

শেয়ারবাজারনিউজ/তু

আপনার মন্তব্য

Top