আজ: বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২ইং, ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১২ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

৩০ মে ২০১৬, সোমবার |


kidarkar

রেড ওয়াইন মেখে হন চির তরুণ!


wine_facial_resveratrolশেয়ারবাজার ডেস্ক:  ধর্মমতে মদ হারাম। কিন্তু বিজ্ঞানে মদের উপকারিতা নিহিত রয়েছে। এটা শুধু সুস্বাদুই নয়, ত্বকের জন্যও বেশ উপকারী। রয়্যালসে (রেড ওয়াইন) সাধারণত আঙ্গুরের রস দিয়ে প্রস্তুত করা হয়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এটা আপনার ত্বককে যেমন সতেজ করবে, তেমনি চেহারায় বাড়াবে উজ্জ্বলতা। এখন ত্বককে আরো সুন্দর ও প্রাণবন্ত করতে ওয়াইন থেরাপি গ্রহণ করতে পারেন।

বিশেষজ্ঞদের মতে, মদে সাধারণত ফেনলস, পলিফেনলস, রিসভার্টল ও অ্যানথোসায়ানিন নামের উপকারী উপাদান রয়েছে। এগুলো ত্বককে ক্ষতিকর উপাদানের হাত থেকে রক্ষা করে এবং গড়ে তোলে প্রতিরোধ। ফলে ত্বকের যত্নের চিকিৎসায় দিন দিন মদের ব্যবহার বাড়ছেই।ভারতের প্রখ্যাত ত্বক বিশেষজ্ঞ জয়শ্রী মানচান্দা বলেন, ‘মদে ভিটামিন ও মিনারেলে পরিপূর্ণ। তাই প্রাকৃতিক উপায়ে এটা আপনার ত্বক, চুল ও শরীর সুন্দর ও পরিষ্কার করতে দারুণ কাজ করে। যারা ব্রণ, একজিমা বা অন্যান্য চর্মরোগে ভুগছেন, তাদের আমরা ওয়াইন থেরাপির মাধ্যমে চিকিৎসা দিয়ে থাকি। আবার যাদের ত্বক খুবই শুষ্ক তাদের চিকিৎসায় মিষ্টি মদ ব্যবহার করা হয়ে থাকে। মিষ্টি মদে প্রচুর পরিমাণ চিনি থাকে। ফলে শুষ্ক ত্বকে পানি ধরে রাখার জন্য এটা দারুণ কাজে দেয়। ব্রণ ত্বকের জন্য রেড ওয়াইন ব্যবহার করায় উত্তম। এতে প্রচুর পরিমাণে পলিফেনলস রিসভার্টল রয়েছে যা ত্বকে প্রদাহজনিত সমস্যা কমায়। পাশাপাশি ত্বককে প্রধান প্রধান ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করে এটা। তৈলাক্ত ত্বকের জন্য ড্রাই ওয়াইন ব্যবহার করতে হবে। ড্রাই ওয়াইনে প্রচুর পরিমাণে ম্যালিক, টারটারিক ও সাইট্রিক অ্যাসিড রয়েছে যা আপনার ত্বকের তেলতেলে ভাব দূর করতে উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনে।’

মদ থেরাপিতে কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই মনে করিয়ে দিয়ে তিনি আরো বলেন, মুখমণ্ডল ধোয়া ও ফ্যাসিয়াল করার কাজেও ব্যবহার করা হয় মদ।

টিপস

শুষ্ক ত্বকের জন্য এক কাপ পানির সঙ্গে এক কাপ ড্রাই রেড ওয়াইন মেশান। এরপর সেটা স্প্রে বোতলে ঢালুন। গোসলের পর এটা শরীরে প্রয়োগ করুন। প্রয়োগের পাঁচ মিনিট পর সেটা ধুয়ে ফেলুন।

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য এক কাপ ভিনেগারের সঙ্গে এক কাপের এক-চতুর্থাংশ ড্রাই হোয়াইট ওয়াইন মেশান। এরপর এটার অর্ধেক বা এক-চতুর্থাংশ বাথওয়াটারে ঢালুন। এরপর বাথওয়াটারে গোসল করুন। এতে আপনার ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর হবে।

ব্রণ ত্বকের জন্য ক্যামোমিলের মতো ওষুধি উপাদান ও হোয়াইট ওয়াইন ১০ মিনিট ধরে সিদ্ধ করুন। এরপর ঠাণ্ডা করে সেটা আক্রান্ত ত্বকে ব্যবহার করুন। দেখবেন আপনার ত্বকে উজ্জ্বলতা ফিরে এসেছে।

আপনার ত্বক আরো উজ্জ্বল ও প্রাণদীপ্ত করতে মদ ও সি-সল্ট  মিশিয়ে ত্বকে আলতোভাবে ম্যাসাজ করুন। এরপর পরই ওয়ার্ম ওয়াইন দিয়ে আরেকবার ত্বক ম্যাসাজ করুন। দেখবেন- এতে আপনার ত্বকে প্রাণ ফিরে পেয়েছে। তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।

শেয়ারবাজারনিউজ/মা


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.