আজ: রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২ইং, ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২রা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৫ জুন ২০১৬, রবিবার |


kidarkar

বিনা পরিশ্রমে ২ লাখ টাকা করে পাবে সুইস নাগরিকরা


81630_1শেয়ারবাজার ডেস্ক: রাষ্ট্রের পক্ষ থেকে নাগরিকদের মৌলিক আয়ের নিশ্চয়তা চালু করা হবে কি না, এ বিষয়ে ভোট হচ্ছে সুইজারল্যান্ডে। বিশ্বের কোনো দেশে এমন বিষয়ে ভোট এই প্রথম।

বিবিসি জানায়, সুইজারল্যান্ডে নাগরিকদের মৌলিক আয়ের প্রস্তাবে প্রত্যেক প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিককে দুই হাজার ৫০০ সুইস ফ্রাঙ্ক বা দুই হাজার ৫৫৫ মার্কিন ডলার (বাংলাদেশি দুই লাখ ৮৮২ টাকা) দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। কোনো সুইস নাগরিক কাজ না করলেও এই অর্থ পাবেন। তবে এরই মধ্যে বিশেষ প্রকল্পে আড়াই হাজার সুইস ফ্রাঙ্ক পাওয়া সুইজারল্যান্ডের নাগরিকরা বাড়তি কোনো সুবিধা পাবেন না।

স্থানীয় সময় আজ রোববার অনুষ্ঠেয় সুইজারল্যান্ডের ভোটে মৌলিক আয়সহ পাঁচটি বিষয় উত্থাপন করা হয়েছে, যার মধ্যে আছে সরকারি তহবিল প্রস্তাব এবং অভিবাসনপ্রত্যাশীদের জন্য আবেদন সহজীকরণ।

সরকারের মৌলিক আয় প্রস্তাবে অবস্থান নেওয়া সুইস নাগরিকদের যুক্তি হচ্ছে, একবিংশ শতাব্দীতে অধিকাংশ কাজই যন্ত্রনির্ভর হয়ে যাচ্ছে। যে কারণে কাজের সুযোগ কমেছে। তবে এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, এমন প্রস্তাবের পক্ষে আছেন মাত্র এক-চতুর্থাংশ সুইস নাগরিক। আর সুইজারল্যান্ডের পার্লামেন্টের কোনো দলই প্রস্তাবটির পক্ষে পুরোপুরি সমর্থন দেয়নি।

সুইজারল্যান্ডের রাজনৈতিক দলগুলোর মতে, প্রস্তাবিত পরিকল্পনা পাস হলে কাজ করা এবং আয় করা এ পদ্ধতির ক্ষতি হবে। তবে এমন দর্শনের ঘোর বিরোধী প্রস্তাবের পক্ষে অবস্থান নেওয়া সংগঠন বেসিক ইনকাম সুইজারল্যান্ডের নেতা চে ওয়াগনার। তিনি দাবি করেন, একদম বিনাশ্রমে অর্থ নেওয়া হচ্ছে না।

চে ওয়াগনার বলেন, সুইজারল্যান্ডের ৫০ শতাংশ কাজেই কোনো অর্থ প্রদান করা হয়। এই কাজগুলো সেবামূলক। মৌলিক আয় নিশ্চিত হলে এই কাজগুলোর মূল্যায়ন হবে।

তবে চে ওয়াগনারের ব্যাখ্যার বিরোধিতা করেন সুইস পিপলস পার্টির নেতা লুজি স্ট্যাম। তিনি বলেন, সুইজারল্যান্ড কোনো দ্বীপ হলে মৌলিক আয়ের বিষয়টি সম্ভব ছিল। কিন্তু উন্মুক্ত সীমান্তের দেশে এমন বিষয় বাস্তবায়ন পুরোপুরি অসম্ভব। আর দেশটিতে জীবনযাত্রার মানও উন্নত।

লুজি স্ট্যাম আরো বলেন, বিনা পরিশ্রমে কয়েক হাজার সুইস মুদ্রা দেওয়ার বিষয়টি বাস্তবায়িত হলে সুইজারল্যান্ডে নাগরিকত্ব পাওয়ার চেষ্টা করবে শতকোটি মানুষ।

বিবিসি জানায়, সুইজারল্যান্ডের মতোই মৌলিক আয় বিষয়ে পরিকল্পনা চলছে ফিনল্যান্ডে। সেখানে আট হাজার দরিদ্র মানুষের জন্য মৌলিক আয় হিসেবে অর্থ বরাদ্দের কথা ভাবা হচ্ছে। আর নেদারল্যান্ডসের উটরেচ শহরে মৌলিক আয়ের বিষয়ে একটি পরীক্ষামূলক প্রকল্প নেওয়া হয়েছে, যা বাস্তবায়ন হবে ২০১৭ সালে।

শেয়ারবাজারনিউজ/মা


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.