আজ: মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২ইং, ১৯শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৬ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০১ জুলাই ২০১৬, শুক্রবার |


kidarkar

ব্লক মার্কেটে সাপ্তাহিক লেনদেন ৪৫৫ কোটি টাকা


Block Market-ব্লক মার্কেট-ব্লক মার্কেটে-sharebazarnewsশেয়ারবাজার রিপোর্ট: গত সপ্তাহে (৩০ জুন সমাপ্ত) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লক মার্কেটে সর্বমোট ৬ কোটি ৮ লাখ ১৭ হাজার ৭৭৬টি শেয়ার ১২০ বার লেনদেন হয়। যার বাজার মূল্য ৪৫৪ কোটি ৯০ লাখ ৭৪ হাজার টাকা। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে (রোববার, ২৬ জুন) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লক মার্কেটে বার্জার পেইন্টের ৫ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১ কোটি ১১ লাখ ৮০ হাজার টাকা। বেক্সিমকো ফার্মার ১ লাখ ৪০ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১ কোটি ১৪ লাখ ৬৬ হাজার টাকা। ইনভয়টেক্সের ১০ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৩ কোটি ৭২ লাখ টাকা।

পিপলস ইন্স্যুরেন্সের ১ লাখ ৮০ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ২৮ লাখ ৬২ হাজার টাকা। রেনাটার ১৭ হাজার ৪০০টি  শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ২ কোটি ৮ লাখ ৩৮ হাজার টাকা এবং সুমিত পাওয়ারের ২৫ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৮ লাখ ১০ হাজার টাকা।

দ্বিতীয় কার্যদিবসে (সোমবার, ২৭ জুন) বার্জার পেইন্টের ১ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ২২ লাখ ২০ হাজার টাকা। ব্র্যাক ব্যাংকের ৯ লাখ ৬৫ হাজার ৫০০টি শেয়ার ৫ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৫ কোটি ১৮ লাখ ৪৭ হাজার টাকা।বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবলসের ৫ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৫ কোটি ৬০ লাখ  টাকা।

বেক্সিমকো ফার্মার ১ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৮২ লাখ ৫০ হাজার টাকা। ডিবিএইচ ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ১ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৫ লাখ ৮০ হাজার টাকা। হাইডেলবার্গ সিমেন্টের ৫ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ২৬ কোটি টাকা। লিন্ডে বাংলাদেশের ২ লাখ শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, বাজার মূল্য ২৮ কোটি টাকা।

অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজের ১ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৩ কোটি ৪০ লাখ ৬০ হাজার টাকা। রেনাটার ১ লাখ ২ হাজার শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১১ কোটি ৯৩ লাখ ২০ হাজার টাকা। এবং স্কয়ার ফার্মার ৩০ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৭৮ লাখ ৩০ হাজার টাকা।

তৃতীয় কার্যদিবসে (মঙ্গলবার, ২৮ জুন) ব্লক মার্কেটে বাটা সু’র ৫ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৬০ লাখ টাকা। বার্জার পেইন্টের ১৪ হাজার ৪০০টি শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৩ কোটি ১৯ লাখ ৬৮ হাজার টাকা। বেক্সিকো ফার্মার ৩০ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ২৪ লাখ ৩০ হাজার  টাকা।

ডোরিন পাওয়ারের ১২ হাজার ২০০টি শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৭ লাখ ৭৫ হাজার টাকা। ইস্টার্ন ব্যাংকের ৭ লাখ ৩০ হাজার শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১ কোটি ৯২ লাখ ৫০ হাজার টাকা। ইস্টার্ন হাউজিংয়ের ৯ লাখ ৫০ হাজার শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৩ কোটি ৬১ লাখ টাকা। গ্রামীন ফোনের ৬ হাজার ৬৬২টি শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১৬ লাখ ৭২ হাজার টাকা।

গ্রামীন স্কিম ২ এর ১ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১ কোটি ৬ লাখ টাকা। হাইডেলবার্গ সিমেন্টের ২৫ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১ কোটি ৩২ লাখ ৫০ হাজার টাকা। আইএফআইসি ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ১৯ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৯১ লাখ ২০ হাজার টাকা। ইসলামি ব্যাংকের ১০ লাখ ৯০ হাজার শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৩ কোটি ১০ লাখ ৩৮ হাজার টাকা। লিন্ডে বাংলাদেশের ২ হাজার ৫০০টি শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৩৫ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজের ৮৩ শেয়ার ৩ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ২ কোটি ৮৪ লাখ ৩৬ হাজার টাকা। পাওয়ার গ্রেডের ১ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৫৯ লাখ টাকা। রেনাটার ৪৬ হাজার শেয়ার ৬ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৫ কোটি ৩১ লাখ ৮০ হাজার টাকা। স্কয়ার ফার্মার ১৫ লাখ ১৬ হাজার ২৪২টি শেয়ার ৭ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৩৯ কোটি ৬৭ লাখ ৪৫ হাজার টাকা এবং তশরিফার ২০ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৪ কোটি ৯৮ লাখ টাকা।

চতুর্থ কার্যদিবসে (বুধবার, ২৯ জুন) ব্লক মার্কেটে এসিআই’র ৫ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ২২ কোটি ২৫ লাখ। বাটা সু’র ৩ হাজার শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৩৬ লাখ টাকা। বার্জার পেইন্টের ১৪ হাজার ৭০০টি শেয়ার ৩ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৩ কোটি ২৬ লাখ ৩৪ হাজার টাকা। বেক্সিকো ফার্মার ১ লাখ ৮০ হাজার শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১ কোটি ৪৬ লাখ ৭০ হাজার  টাকা।

ডিবিএইচের ১১ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১১ লাখ ৮৮ হাজার টাকা। ইস্টার্ন ব্যাংকের ২ লাখ ৫০ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৬৮ লাখ ৭৫ হাজার টাকা। গ্রামীন ফোনের ২ লাখ ৬৮ হাজার শেয়ার ৩ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৬ কোটি ৭৪ লাখ টাকা।

আইডএলসি’র ৩ কোটি ৫৭ লাখ ১৬ হাজার ৮৩১ টি শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১৯৬ কোটি ৪৪ লাখ ২৬ হাজার টাকা। আইএফআইএল ইসলামি মিউচ্যুয়াল ফান্ড ওয়ানের ৮ লাখ ৫০ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৫৭ লাখ ৮০ হাজার টাকা। ইসলামি ব্যাংকের ১ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ২৯ লাখ টাকা। লিন্ডে বাংলাদেশের ১১ হাজার ১৫৪টি শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১ কোটি ৫৭ লাখ ৬৯ হাজার টাকা।

ম্যাক্সন স্পিনিংয়ের ২৫ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ২ কোটি ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা। এমজেএল বিডি’র ৮২ হাজার শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৭৮ লাখ ৫৮ হাজার টাকা। ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ৫ লাখ ৫০ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৬০ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

ওয়ান ব্যাংকের ১৫ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১ কোটি ৯৫ লাখ টাকা। পাওয়ার গ্রেডের ১ লাখ ১৭ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৬৮ লাখ ৯৬ হাজার টাকা। রেকিট বেনকিজারের ৪ হাজার ৩০০টি শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৬৭ লাখ ৭২ হাজার টাকা।

রেনাটার ২ লাখ ২৯ হাজার শেয়ার ১০ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ২৬ কোটি ৮৪ লাখ ৪০ হাজার টাকা। এসইবিএল ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড ১ লাখ ২০ হাজার  শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১২ লাখ ৬০ হাজার টাকা। স্কয়ার ফার্মার ৩ লাখ ৫ হাজার শেয়ার ৫ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৭ কোটি ৯৪ লাখ ৯৮ হাজার টাকা এবং ট্রাস্ট ব্যাংক ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড ৫ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ২৫ লাখ টাকা।

এবং সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে (বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন) ব্লক মার্কেটে বার্জার পেইন্টের ২ হাজার ৮৮৭ টি শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৬৩ লাখ ৭৯ হাজার টাকা। ব্র্যাক ব্যাংকের ১ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৫৩ লাখ টাকা। ফার কেমিক্যালের ১ লাখ ৮৫ হাজার শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৫২ লাখ ৩৫ হাজার  টাকা।

গ্রামীন ফোনের ১ লাখ ৫ হাজার শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ২ কোটি ৬৬ লাখ ১৬ হাজার টাকা। ইসলামি ব্যাংকের ৩ লাখ ৩০ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৯৯ লাখ টাকা। কেয়া কসমেটিক্সের ১৪ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১ কোটি ৮৩ লাখ ৪০ হাজার টাকা। এলআরগ্লোবাল মিউচ্যুয়াল ফান্ড ওয়ানের ১০ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, বাজার মূল্য ৬০ লাখ টাকা।

মালেক স্পিনিংয়ের ২ লাখ ৭০ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৪৮ লাখ ৬০ হাজার টাকা। অরিয়ন ইনফিউশনের ৫০ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৩৬ লাখ ৭৫ হাজার টাকা। এবং রেনাটার ৮৬ হাজার ৫০০ শেয়ার ৭ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১০ কোটি ১৭ লাখ ২৫ হাজার টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/রু


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.