আজ: সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২ইং, ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৫ ডিসেম্বর ২০১৬, সোমবার |



kidarkar

দুশ্চিন্তায় ২৫ কোম্পানির বিনিয়োগকারীরা

dse-newশেয়ারবাজার রিপোর্ট: বর্তমানে বাজারে সূচকের ধারাবাহিক উত্থান থাকলেও পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ২৫ কোম্পানির শেয়ার দর ফেসভ্যালুর নিচে নেমে এসেছে। আর এ নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন বিনিয়োগকারীরা। এসব কোম্পানিতে বিনিয়োগ করার কারণে এখন প্রতিনিয়ত ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে তারা। বাইব্যাক আইন বাস্তবায়ন করা হলে বিনিয়োগকারীদের এ ক্ষতির মুখে পড়তে হতো না বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা। তাই বিনিয়োগকারী তথা পুঁজিবাজারের স্বার্থে  বাইব্যাক আইন প্রণয়ন করা উচিত বলে মনে করেন তারা।

তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে ৫ ডিসেম্বর, পর্যন্ত ১০ খাতের ২৫ কোম্পানির শেয়ার দর ফেস ভ্যালুর নিচে অবস্থান করছে। ফেসভ্যালুর নিচে থাকা কোম্পানিগুলো খাত ভিত্তিক নিন্মে তুলে ধরা হলো:

বস্ত্র খাত:

বস্ত্র খাতের ৪৫টি কোম্পানির মধ্যে ৯টি কোম্পানির শেয়ারের দর ফেস ভ্যালুর নিচে রয়েছে। এগুলো হচ্ছে: সিএনএ টেক্সটাইলের ৮ টাকা। ঢাকা ডাইংয়ের ৬.৯০ টাকা। ডেল্টা স্পিনিংয়ের ৮.৫০ টাকা। দুলামিয়া কটনের ৭.৩০ টাকা। ফ্যামিলি টেক্সটাইলের ৮ টাকা। জেনারেশন নেক্সটের ৭.৮০ টাকা। মেকসন স্পিনিংয়ের ৭.৫০ টাকা। মেট্রো স্পিনিংয়ের ৭ টাকা এবং সোনার গাঁ টেক্সটাইলের ৯.৩০ টাকা।

আর্থিক খাত:

আর্থিক খাত ২৩টি কোম্পানির মধ্যে ৪টি কোম্পানির শেয়ারদর ফেসভ্যালুর নিচে রয়েছে। এগুলো হচ্ছে: বিআইএফসির ৮.৩০ টাকা। ফার্স্ট ফাইন্যান্সের ৭.৭০ টাকা। পিপলস লিজিংয়ের ৭.২০ টাকা এবং প্রাইম ফাইন্যন্সের ৮.১০ টাকা।

ব্যাংকখাত:

ব্যাংক খাতের ৩০টি কোম্পানির মধ্যে ৩টি কোম্পানি ফেসভ্যালুর নিচে রয়েছে এগুলো হচ্ছে: আইসিবি ইসলামি ব্যাংকের শেয়ার দর ৪.১০ টাকা। ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেডের ৯.৮০ টাকা। প্রিমিয়ার ব্যাংকের ৯ টাকা।

সিরামিকস:

সিরামিকস খাতের ৫টি কোম্পানির মধ্যে শাইন পুকুর সিরামিকের শেয়ারদর ৮.৯০ টাকা।

খাদ্য ও আনুষাঙ্গিক:

খাদ্য ও আনুষাঙ্গিক খাতের ১৮ টি কোম্পানির মধ্যে ৩টি কোম্পানির শেয়ারদর ফেসভ্যালুর নিচে রয়েছে। এগুলো হচ্ছে:  বিচ হ্যাচারীর ৯ টাকা। মেঘনা কনডেন্স মিল্কের ৬.৩০ টাকা এবং মেঘনা পেটের ৬.৩০ টাকা।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি:

তেল ও জ্বালানি খাতের ১৮টি কোম্পানির মধ্যে ফেসভ্যালুর নিচে শেয়ার দর রয়েছে বিডি ওয়েল্ড্রিংয়ের ৯.৬০ টাকা।

কাগজ ও মুদ্রণ:

কাগজ ও মুদ্রনের খাতের ২ কোম্পানির মধ্যে ফেসভ্যালুর নিচে রয়েছে খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিংয়ের ৭.৭০ টাকা।

ওষুধ ও রসায়ন:

ওষুধ ও রসায়ন ২৮টি কোম্পানির মধ্যে ফেস ভ্যালুর নিচে রয়েছে বেক্সিমকো সিনথেটিকের ৬.২০ টাকা।

ভ্রমন ও অবকাশ:

ভ্রমন ও অবকাশ খাতের ৪ কোম্পানির মধ্যে ফেস ভ্যালুর নিচে রয়েছে ইউনাইটেড এয়ারের ৪.৯০ টাকা এবং বিডি সার্ভিসের শেয়ার দর ৫.৫০ টাকা।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের সভাপতি এ.কে.এম মিজান-উর-রশিদ চৌধুরী শেয়ারবাজারনিউজ ডটকমকে বলেন, এসব কোম্পানিগুলো মধ্যে বেশিরভাগ স্বল্প মূলধনী এবং লোকসানী। ক্রমাগত লোকসান এবং ডিভিডেন্ড দিতে ব্যর্থ  হওয়ায় এ সমস্ত কোম্পানি থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন বিনিয়োগকারীরা।

তিনি আরও বলেন, বাজারে তালিকাভুক্ত যে সকল কোম্পানি লেকসান দেখিয়ে বিনিয়োগকারীদের ডিভিডেন্ড থেকে বঞ্চিত করছে সেসব কোম্পানির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে এবং লোকসান থাকলেও বিনিয়োগকারীদের বাধ্যতামূলক ১০ শতাংশ ডিভিডেন্ড দিতে হবে। কারণ কোম্পানিগুলো তাদের ব্যবসা বাড়ানোর জন্য বাজার থেকে টাকা উত্তোলন করে। তাহলে তালিকাভুক্তির পর কোম্পানিগুলোর লোকসান হচ্ছে কিভাবে? ব্যাংক থেকে ঋন নিয়ে ব্যবসা করলে ডাবল ডিজিটে সুদ দিতে হয়। তাহলে বিনিয়োগকারীরা কেন সর্বনিম্ন ১০ শতাংশ ডিভিডেন্ড পাবে না।

শেয়ারবাজারনিউজ/সো/এম.আর

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.