আজ: শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ইং, ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৯ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৯ মার্চ ২০১৭, বৃহস্পতিবার |



kidarkar

বিশ্বব্যাংকের পরামর্শে পাটকল বন্ধ করে বিএনপি: প্রধানমন্ত্রী

hasinaশেয়ারবাজার ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিশ্বব্যাংকের পরামর্শে একের পর এক পাটকল বন্ধ করে পাটকে ধ্বংস করে দিয়েছিল বিএনপি। তিনি বলেছেন, সোনালি আঁশ পাটের সুদিন ফিরিয়ে আনতে তাঁর সরকার অব্যাহতভাবে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাতীয় পাট দিবস উপলক্ষে পাটজাত পণ্য মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি পাটশিল্পকে অবহেলা করছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘বিএনপি বিশ্বব্যাংকের পরামর্শে একটা চুক্তি সই করে। এই চুক্তিতে ছিল কী? তারা বাংলাদেশের পাটকলগুলো একে একে বন্ধ করে দেবে। ঠিক একই সময় বিশ্বব্যাংক ভারতের সঙ্গে একটি চুক্তি করে নতুন নতুন পাটকল তৈরি করার জন্য। পার্লামেন্টে আমি এবং আমরা অনেকে এ বিষয়ে বক্তব্য রেখেছিলাম যে আড়াই লাখ বেল পাট রপ্তানির মার্কেট যদি বিদেশে থেকে থাকে, তাহলে বাংলাদেশের কেন পাটকল বন্ধ হবে? আর ভারত কেন নতুন পাটকল করার সুযোগ পাবে?’
প্রধানমন্ত্রী বিএনপিকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘আমি সঙ্গে সঙ্গে এ কথাও বলেছিলাম, আমাদের তো সব সময় ভারতের দালাল বলেন। কিন্তু এই দালালির যে একটা জ্বলন্ত উদাহরণ সামনে, এটার কী করবেন? তাদের কোনো জবাব ছিল না। কারণ তাদের ওই একটাই; টাকা পাবে আর বিশ্বব্যাংক বলেছে। বিশ্বব্যাংক যা বলেছে, মনে হয় ফেরেশতা এসে কথা বলেছে। যা বলেছে সেটা করতে হবে। এভাবে তারা আমাদের পাটকলগুলো একে একে ধ্বংস করে দেয়।’
বাসস জানায়, প্রধানমন্ত্রী অনুষ্ঠানে বলেন, ‘১৯৯৬ সালে সরকার গঠনের পর আওয়ামী লীগ সরকার সোনালি আঁশ পাটের সুদিন ফিরিয়ে আনতে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করে। যার অংশ হিসেবে দেশব্যাপী পাট দিবস এবং পাটপণ্য মেলার আয়োজন করা হয়েছে।’
প্রধানমন্ত্রী বলেন, একসময় পাটই বাংলাদেশ বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের বৃহৎ খাত থাকলেও পঁচাত্তরে জাতির পিতাকে হত্যার পর দেশে যে হত্যা, ক্যু ষড়যন্ত্রের রাজনীতি শুরু হয়, সেখানেই পাটেরও কপাল পোড়া শুরু।
বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী ইমাজউদ্দিন প্রামাণিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মীর্জা আজম, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরী বক্তৃতা করেন। বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব গোপাল কৃষ্ণ ভট্টাচার্য অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন।
অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী পাট খাতে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ১৯টি ক্যাটাগরিতে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা প্রদান করেন। পাট বিষয়ে সারা দেশে আয়োজিত রচনা প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মাঝেও পুরস্কার বিতরণ করেন প্রধানমন্ত্রী।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.