ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১০০ কোটিরও বেশী

price-up-শেয়ারবাজার রিপোর্ট: সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের পতনে শেষ হয় লেনদেন। এদিন শুরু থেকে সূচকে মিশ্র প্রবণতা থাকলেও শেষ হয় নিম্মমুখী প্রবণতায়। সোমবার সূচকের পাশাপাশি কমেছে বেশীরভাগ কোম্পানি শেয়ার দর। এদিন ডিএসইতে কমলেও সিএসইতে বেড়েছে সূচক। আর টাকার অংকে লেনদেন সিএসইতে হালকা বাড়লেও ডিএসইতে বেড়েছে ১০০ কোটিরও বেশী। ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে স্থিতিশীলতার দিকে যাচ্ছে দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি। আর এ স্থিতিশীলতার বাতাস লাগতে শুরু করেছে পুঁজিবাজারে। তবে সূচক পতনের ধারা যেন কিছুতেই কাটছেনা। সূচক পতনের মধ্যে আজকের লেনদেন বৃদ্ধিকে ইতিবাচক দৃষ্টিতে দেখছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

দিনশেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স ১৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৪২৯১ পয়েন্টে। আর ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১০৫৪ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৬৫৩ পয়েন্টে। দিনভর ডিএসইতে মোট ৩১১টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৩০টির, কমেছে ১৪১টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৪০টি কোম্পানির শেয়ার দর। যা টাকার অংকে লেনদেন হয়েছে ৪১২ কোটি ১৯ লাখ ৫৭ হাজার টাকা।

এর আগে রোববার ডিএসই’র ব্রড ইনডেক্স ৪০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ৪৩০৫ পয়েন্টে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১০৬৫ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১৬৫৯ পয়েন্ট। ওই দিন লেনদেন হয়েছিল ২৮৯ কোটি ৫৬ লাখ ৯৫ হাজার টাকা। সে হিসেবে সোমবার ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১২২ কোটি ৬২ লাখ ৬২ হাজার টাকা বা ৪২.৩৫ শতাংশ।

এদিকে দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সিএসসিএক্স সূচক ১০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৮০২৮ পয়েন্টে। দিনভর সিএসইতে মোট ২৪০টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৯৬টির, কমেছে ১২০টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টি কোম্পানির শেয়ার দর। যা টাকার অংকে লেনদেন হয়েছে ৩৮ কোটি ৬৪ লাখ ৪৫ হাজার টাকা।

এর আগে রোববার সিএসইএক্স সূচক ৭২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৮০১৮ পয়েন্ট। ওই দিন লেনদেন সিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ২৭ কোটি ১৭ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ সিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১১ কোটি ৪৭ লাখ ২ হাজার টাকা বা ৪২.২১ শতাংশ।

শেয়ারবাজার/অ

আপনার মন্তব্য

Top