আজ: মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২ইং, ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১০ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭, রবিবার |


kidarkar

প্রতিদিনই যোগ হচ্ছে নতুন ক্যাপিটাল: সাড়ে ৬ হাজার পয়েন্টের দিকে হাঁটছে সূচক


bazarশেয়ারবাজার রিপোর্ট: সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের উর্ধ্বমুখী প্রবণতায় লেনদেন শেষ হয়েছে। এদিন শুরুতে উত্থান-পতন থাকলেও প্রথম ঘন্টা পর ক্রয় প্রেসারে টানা বাড়তে থাকে সূচক ও লেনদেন। রোববার সূচক বাড়লেও কমেছে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার দর। আগের দিনের তুলনায় টাকার অংকেও বেড়েছে লেনদেন। আজ দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ২০৮ কোটি টাকা।

বর্তমান বাজার পরিস্থিতি নিয়ে একাধিক মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকারেজ হাউজের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, নানামুখী খবরে বিদায়ী বছরের মাঝামাঝি থেকে পুঁজিবাজার গতিশীল রয়েছে। এটা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে। ধারাবাহিক উত্থানের কারণে দেশের শেয়ারবাজার অনেকটাই বিনিয়োগ উপযোগী হয়ে উঠেছে। বর্তমান বাজার পরিস্থিতি স্থিতিশীলতা থাকায় দেশের পাশাপাশি বিদেশী বিনিয়োগকারীরাও বিনিয়োগে আগ্রহী হয়ে উঠছে। ফলে প্রতিদিনই বাজারে যোগ হচ্ছে নতুন ক্যাপিটাল।  বাজারে দৈনিক লেনদেন, বাজার মূলধন ধারাবাহিক বৃদ্ধির ফলে সূচকেও পড়ছে ইতিবাচক প্রভাব। সরকার যখন বাজার উন্নয়নে মনোযোগী হয়েছে তখন প্রচন্ড সেল প্রেসারও বাজারকে দমাতে পারছেনা। দিরে পর দিন সূচক এগিয়ে যাচ্ছে সামনের দিকে। আজ বাজারে সেল প্রেসার থাকা সত্তেও সূচক বেড়েছে। বাজারে এর ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকলে খুব শিগগিরই সূচক সাড়ে ৬ হাজার পয়েন্ট অতিক্রম করবে। পাশাপাশি লেনদেনও দেড় থেকে দুই হাজারের ঘরে থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তারা।

দিনশেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৩৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৬২৪০ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৩৯১ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ২২২৬ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৩০টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৩৮টির, কমেছে ১৫১টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৪১টি কোম্পানির শেয়ার দর। যা টাকায় লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ২০৮ কোটি ৩ লাখ ৩৮ হাজার টাকা।

এর আগে বৃহস্পতিবার ডিএসই ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ১৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ৬২০৩ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১৩৮৫ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১৩ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ২২২৫ পয়েন্টে। ওইদিন লেনদেন হয় ১ হাজার ১২৪ কোটি ২১ লাখ ৬৪ টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৮৩ কোটি ৮১ লাখ ৭৪ হাজার টাকা।

এদিকে দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ব্রড ইনডেক্স ৫৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১১ হাজার ৭০৮ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৬২টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১১৫টির কমেছে ১১৬টির ও দর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩১টির। যা টাকায় লেনদেন হয়েছে ১৮৪ কোটি ১৭ লাখ ৮৮ হাজার টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.