আজ: মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২ইং, ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭, সোমবার |


kidarkar

সক্রিয় প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা: ঢুকছে টাকা


 

bazarশেয়ারবাজার রিপোর্ট: সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতায় লেনদেন শেষ হয়েছে। এদিন শুরুতে উত্থান থাকলেও ২০ মিনিট পর সেল প্রেসারে নামতে থাকে সূচক। মাঝে দু‘এক বার ঘুড়ে দাঁড়ানোর চেষ্টা করলেও ব্যহত হয় বাজার। সোমবার সূচকের পাশাপাশি কমেছে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার দর। তবে আগের দিনের তুলনায় টাকার অংকে বেড়েছে লেনদেন। আজ দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৫২৫ কোটি টাকা। যা আট মাসের সবোর্চ্চ।

উল্লেখ্য, এর আগে গত ২৪ এপ্রিল, ২০১৭ ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ব্রড ইনডেক্স  ছিলো লেনদেন হয়েছিলো  ২ হাজার ১৩ কোটি ৪৪ লাখ ৯০ হাজার টাকা।

আজ বাজারে সেল প্রেসার লক্ষ করা যায়। বেশির ভাগ খাতে পতন থাকলেও ব্যাংক খাতে দেখা যায় উল্টো চিত্র। বেশিরভাগ খাতে পতন ঘটলেও সূচকের বড় পতন ঘটতে দেয়নি ব্যাংক খাত।

গত কয়েক দিনের ধারবাহিক উত্থানের পর বিনিয়োগকারীদের মধ্যে মুনাফা তুলে নেয়ার ঝোঁক বিরাজ করে। এরই অংশ হিসেবে কোন শেয়ারে সামান্য লাভ থাকলেই তা বিক্রি করতে শুরু করেন তারা। এরই জের ধরে আজকের বাজার কিছুটা নিম্নমুখী বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। তবে এ অবস্থা খুব একটা স্থায়ী নয় পাশাপাশি আজকের লেনদেন বৃদ্ধিকেও ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন তারা।

বিশ্লেকদের অভিমত, এই কারেকশন ও লেনদেন বৃদ্ধি বাজারের জন্য শুভ ইঙ্গিত। কেননা টানা পতন কিংবা টানা উত্থান কোনোটাই বাজারের জন্য ইতিবাচক নয়। তাই গত কয়েক দিনের উত্থানের পর কিছুটা দর পতন স্বাভাবিক। আর বাজারে এমন ধারা বিদ্যমান থাকলে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের পাশাপাশি সাধারণ বিনিয়োগকারীদেরও আস্থা ফিরে আসবে।

দিনশেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৬২৩৫ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৩৮০ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৯ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ২২১৭ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৩১টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১০১টির, কমেছে ১৯০টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৪০টি কোম্পানির শেয়ার দর। যা টাকায় লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৫২৫ কোটি ৮৯ লাখ ৩৩ হাজার টাকা।

এর আগে রোববার ডিএসই ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৩৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ৬২৪০ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১৩৯১ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ২২২৬ পয়েন্টে। ওইদিন লেনদেন হয় ১ হাজার ২০৮ কোটি ৩ লাখ ৩৮ টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৩১৭ কোটি ৮৫ লাখ ৯৫ হাজার টাকা।

এদিকে দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ব্রড ইনডেক্স ৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১১ হাজার ৭১৫ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৬৭টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৯৯টির কমেছে ১৪৪টির ও দর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টির। যা টাকায় লেনদেন হয়েছে ৬৮ কোটি ৩৯ লাখ ৭০ হাজার টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.