আজ: শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২ইং, ২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১২ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০২ অক্টোবর ২০১৭, সোমবার |



kidarkar

চলছে আমরা নেটওর্য়াকের চমক

aamra networksশেয়ারবাজার রিপোর্ট: লেনদেন শুরুর প্রথম দিনে পুঁজিবাজারে সদ্য তালিকাভুক্ত হওয়া আইট খাতের কোম্পানি আমরা নেটওর্য়াকের শেয়ার দর ২৬৬ শতাংশ বেড়েছে। আজ সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় দেশের উভয় শেয়ারবাজারে আনুষ্ঠানিকভাবে এ কোম্পানির লেনদেন শুরু হয়।

ডিএসইর তথ্যানুযায়ী, লেনদেনের আড়াই ঘন্টায় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) আমরা নেটওয়ার্কসের শেয়ার দর ৮১.২০ টাকায় ওপেন হলেও সর্বোচ্চ লেনদেনটি হয় ১৫০ টাকায়। আলোচিত সময়ে কোম্পানির শেয়ার দর ৮১.১০ টাকা থেকে ১৫০ টাকা পর্যন্ত ওঠানামা করে। এ সময় কোম্পানির ৫১ লাখ ৬৫ হাজার ৯২১টি শেয়ার মোট ২৩ হাজার ৭৮৪ বার হাত বদল হয়। যা টাকার অংকে লেনদেন হয় ৬৩ কোটি ১১ লাখ ৩৩ হাজার টাকা।

আজ ‘এন’ ক্যাটাগরির আওতায় লেনদেন শুরু করা আমরা নেটওর্য়াকের ডিএসইতে কোম্পানিটির ট্রেডিং কোড হবে “AAMRANET”। আর কোম্পানি কোড হবে ২২৬৪৯। আর সিএসইতে কোম্পানিটির ট্রেডিং কোড হবে “AAMRANET”। আর কোম্পানি কোড হবে ২৪০১০।

এর আগে গত ১৪ সেপ্টেম্বর বৃহষ্পতিবার অনুষ্ঠিত ডিএসই’র পর্ষদ সভায় কোম্পানিটিকে তালিকাভুক্তির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। কোম্পানিটি বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে ১ কোটি ৫০ লাখ ৪১ হাজার ২০৯টি শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে ৫৬ কোটি ২৫ লাখ ৭ টাকা তুলেছে।  এই শেয়ারের মধ্যে ৬০ লাখ ২৬ হাজার ৭৮৬টি শেয়ার পেয়েছেন সাধারণ বিনিয়োগকারীরা; যা মোট শেয়ারের ৪০ শতাংশ। ৩৫ টাকা দরে এই শেয়ার বিক্রি হবে। এর মাধ্যমে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ২১ কোটি ৯ লাখ ৩৭ হাজার ৫১০ টাকা সংগ্রহ করা হয়েছে।

আর বাকি ৬০ শতাংশ বা ৯০ লাখ ১৪ হাজার ৪২৩টি শেয়ার পাবে মিউচ্যুয়ালসহ প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা। ৩৯ টাকা দরে এই শেয়ার বিক্রি হবে। এর মাধ্যমে সংগ্রহ করা হয়েছে ৩৫ কোটি ১৫ লাখ ৬২ হাজার ৪৯৭ টাকা।

কোম্পানি সূত্রে জানা গেছে, আইপিওর মাধ্যমে উত্তোলিত টাকা দিয়ে কোম্পানির বিএমআরই (আধুনিকায়ন), ডাটা সেন্টার প্রতিষ্ঠা, দেশের বিভিন্ন স্থানে ওয়াই-ফাই হটস্পট প্রতিষ্ঠা করা, আইপিওর কাজ ও ঋণ পরিশোধ করা হবে।

জানা যায়, ২০১৬-২০১৭ হিসাব বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে (জুলাই’১৬-মার্চ’১৭) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২.৬২ টাকা। যা এর আগের বছর ছিল ২.৫৬ টাকা। আলোচিত সময়ের ব্যবধানে কোম্পানিটির ইপিএস ২.৩৪ শতাংশ বেড়েছে। একই সময়ে শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ২৬.২৮ টাকা। যা ৩০ জুন, ২০১৬ সমাপ্ত বছর শেষে ছিল ২৩.৬৬ টাকা।

এদিকে তৃতীয় প্রান্তিকের শেষ তিন মাসে (জানুয়ারি’১৭-মার্চ’১৭) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ০.৮৬ টাকা। যা এর আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৬৮ টাকা। ইপিএস বেড়েছে ২৬.৪৭ শতাংশ।

কোম্পানিটি আরো জানায়, প্রতিষ্ঠানটির বর্তমান মূলধন ৩৮ কোটি টাকা এবং শেয়ার সংখ্যা ৩ কোটি ৮০ লাখ। সে হিসেবে ২০১৬ সালে প্রথম ৬মাসে অর্থাৎ ৩০ জুন, ২০১৬ পর্যন্ত শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৬৮ টাকা। যা ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৫ বছরে ছিল ৩.১৬ টাকা।

এর আগে গত ১৩ জুন বিএসইসি ৬০৬তম কমিশন সভায় কোম্পানিটিকে আইপিও’র মাধ্যমে তালিকাভুক্তির অনুমোদন দেয়। বিএসইসি জানায়, আমরা নেটওয়ার্কস লিমিটেডের ১ কোটি ৫০ লাখ ৪১ হাজার ২০৯টি সাধারণ শেয়ার প্রাথমিক গণ প্রস্তাব (আইপিও) এর মাধ্যমে ইস্যু করে ৫৬ কোটি ২৫ লাখ টাকা উত্তোলনের প্রস্তাবে অনুমোদন প্রদান করা হয়েছে। উল্লেখ্য, বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে ইলেকট্রনিক বিডিং এর মাধ্যমে কোম্পানিটির প্রতিটি ১০ টাকা ফেসভ্যালুর সাধারণ শেয়ারের কাট অফ প্রাইস ৩৯ টাকায় নির্ধারণ করা হয়েছে। মোট ইস্যুকৃত শেয়ারের ৬০ শতাংশ অর্থাৎ ৯০ লাখ ১৪ হাজার ৪২৩টি সাধারণ শেয়ার যোগ্য প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের অনুকূলে প্রতিটি শেয়ার ৩৯ টাকায়  ইস্যু করা হবে। সাধারন বিনিয়োগকারীদের অবশিষ্ট ৪০ শতাংশ অর্থাৎ ৬০ লাখ ২৬ হাজার ৭৮৬টি সাধারণ শেয়ার ১০ শতাংশ ডিসকাউন্টে অর্থাৎ ৩৫ টাকা মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

ইলিজিবল ইনভেস্টরদের ৫০ শতাংশ শেয়ার ৬ মাসের জন্য লকইন থাকবে। এর মধ্যে ২৫ শতাংশ শেয়ার ৩ মাস পর বিক্রি করতে পারবেন। বাকি ২৫ শতাংশ শেয়ার ৬ মাস পরে বিক্রি করতে পারবেন। আর এই লকইন পিরিওড শুরু হবে কোম্পানিটির প্রসপেক্টাস অনুমোদনের পর থেকে।

শেয়ারবাজারনিউজ/এম.আর

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.