আজ: মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ইং, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে সফর, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৮ অক্টোবর ২০১৭, বুধবার |



kidarkar

কর্তৃপক্ষের মধ্যস্থতায় ২৩ কোটি টাকা বীমা দাবী পরিশোধ করলো ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স

IDRA___শেয়ারবাজার রিপোর্ট: বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) মধ্যস্থতায় যমুনা ইলেকট্রনিক্স এন্ড অটোমোবাইলস্ লি: এবং ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লি: এর মধ্যকার ২৩ কোটি ৯৮ লাখ ১ হাজার ১৫ টাকার বীমা দাবি নিষ্পত্তির চেক হস্তান্তর করা হয়েছে। ১৭ অক্টোবর ২০১৭ তারিখ মঙ্গলবার কর্তৃপক্ষের সভাকক্ষে চেক হস্তান্তরের কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়।

কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মোঃ শফিকুর রহমান পাটোয়ারীর উপস্থিতিতে ফেডারেল ইন্স্যুরেন্সের চেয়ারম্যান এনামুল হক যমুনা ইলেকট্রনিক্সের এ. বি. এম. শামসুল হাসান (জেনারেল ম্যানেজার, যমুনা গ্রুপ) এর নিকট বীমা দাবির ২৩ কোটি ৯৮ লাখ ১ হাজার ১৫ টাকার চেক হস্তান্তর করেন।

এ প্রসঙ্গে কর্তৃপক্ষের সদস্য গকুল চাঁদ দাস জানান যে, বীমা দাবিটি নিষ্পত্তিতে কর্তৃপক্ষের উদ্যোগ এবং ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স এবং যমুনা গ্রুপের সহযোগিতা কার্যকর ভূমিকা রেখেছে। তিনি এ ধরণের দাবী সংশ্লিষ্ট সকল বীমা কোম্পানিকে দ্রুততার সাথে নিষ্পত্তি করার অনুরোধ জানান। তিনি জানান, বীমা দাবি দ্রুততার সাথে নিষ্পত্তি করলে বীমা শিল্পের প্রসার হবে এবং বীমার প্রতি মানুষের আস্থা বৃদ্ধি পাবে।

ফেডারেল ইন্স্যুরেন্সের চেয়ারম্যান কর্তৃপক্ষ কর্তৃক এমন উদ্যোগ গ্রহণ করা এবং বীমা দাবি নিষ্পত্তিতে সহযোগিতার জন্য বিষেশভাবে কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন, কর্তৃপক্ষের একজন উদ্যোমী এবং কর্মঠ চেয়ারম্যানের কার্যকর ভূমিকার ফলে এতদ্রুত দাবিটি নিষ্পত্তি করা সম্ভব হলো। তিনি এসময় বীমা ব্যবসায় সুস্থ প্রতিযোগিতার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান বলেন যে, বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষে যোগদানের পর যমুনা ইলেকট্রনিক্স এর বীমা দাবির বিষয়ে অবগত হয়েই দাবি নিষ্পত্তির জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। ফলে যোগদানের এক মাসের মধ্যেই দাবিটি নিষ্পত্তি করা সম্ভব হয়েছে। কর্তৃপক্ষ সৃষ্টির পর আজ এই চেক হস্তান্তরের মাধ্যমে বড় অঙ্কের বীমা দাবি নিষ্পত্তির ইতিহাস সৃষ্টি হলো। এজন্য বীমাকারী ও বীমা গ্রহীতা উভয় পক্ষকে ধন্যবাদ জানান। দাবি নিষ্পত্তির মাধ্যমে অনেক বীমা কোম্পানি তাদের দাবি নিষ্পত্তিতে আগ্রহ পাবে, বীমা গ্রহীতাও বীমা গ্রহণেও আগ্রহ সৃষ্টি হবে এবং বীমা শিল্পের প্রসারে তা অগ্রগণ্য ভূমিকা রাখবে।

শেয়ারবাজারনিউজ/আ

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.