আজ: রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২ইং, ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২রা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৫ নভেম্বর ২০১৭, বুধবার |


kidarkar

সূচকের ঝলকানি নিভিয়ে দিলো ব্যাংক


bazarশেয়ারবাজার রিপোর্ট: সকালের সোনালী রোদের হাঁসি যেমন দিনের আবহাওয়ার কথা বলে দিতে পারে না, তেমনি কোনো কিছুর পুরাটা না দেখে অনুমান করা যায় না। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে এর ব্যতিক্রম হলেও শেয়ারবাজারে বিদ্যমান রয়েছে এ ধারা। তেমনি সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবসে দেশের উভয় শেয়ারবাজারে শুরুতে সূচকের ঝলকানি থাকলেও শেষ ভাগে এসে ব্যাংক খাতের নেতিবাচক প্রভাবে নিভে যায় তা।

বর্তমান বাজার পরিস্থিতি নিয়ে একাধিক মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকারেজ হাউজের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ধারবাহিক উত্থানের কারণে দেশের শেয়ারবাজার অনেকটাই বিনিয়োগ উপযোগী হয়ে উঠেছে। গত কয়েক দিনের ধারবাহিক উত্থানের পর বিনিয়োগকারীদের মধ্যে মুনাফা তুলে নেয়ার ঝোঁক বিরাজ করে। এরই জের ধরে আজকের বাজার কিছুটা নিম্নমুখী বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বিশ্লেকদের অভিমত, এই কারেকশন বাজারের জন্য শুভ ইঙ্গিত। কেননা টানা পতন কিংবা টানা উত্থান কোনোটাই বাজারের জন্য ইতিবাচক নয়। তাই গতকয়েক দিনের উত্থানের পর কিছুটা দর পতন স্বাভাবিক। আর বাজারে এমন ধারা বিদ্যমান থাকলে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের পাশাপাশি সাধারণ বিনিয়োগকারীদেরও আস্থা ফিরে আসবে।

এছাড়াও বর্তমান বাজার পরিস্থিতি স্থিতিশীলতা থাকায় অনেক বিনিয়োগকারীদের মধ্যে ধীরে ধীরে আস্থার সঞ্চার হচ্ছে। এখন এ স্থিতিশীলতা ধরে রাখতে সরকার তথা নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে নজর রাখতে হবে যাতে করে বিনিয়োগকারীরা যেন এ বাজারে বিনিয়োগ করে কোনোভাবে আর ক্ষতিগ্রস্থ না হয়।

বাজার বিশ্লেষনঃ- সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের নেতিবাচক প্রবণতায় লেনদেন শেষ হয়েছে। এইদিন শুরুতে উত্থানের মাত্র অত্যধিক থাকলেও প্রথম ঘন্টা পর ব্যাংক খাতের সেল প্রেসারে টানা নামতে থাকে সূচক। বুধবার সূচক কিছুটা কমলেও বেড়েছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। তবে আগের দিনের তুলনায় টাকার অংকে লেনদেনও কিছুটা কমেছে। আজ দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৮৮৩ কোটি টাকা।

দিনশেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ১৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৬২৩৫  পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৩৬৯ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ২২৭০ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩২৫টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৪৮টির, কমেছে ১৩৯টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৮টি কোম্পানির শেয়ার দর। যা টাকায় লেনদেন হয়েছে ৮৮৩ কোটি ২২ লাখ ৯৯ হাজার টাকা।

এর আগে মঙ্গলবার ডিএসই ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৩৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ৬২৫২ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১৩ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১৩৬৩ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ২২৭৭ পয়েন্টে। ওইদিন লেনদেন হয় ১ হাজার ১৭৬ কোটি ৯১ লাখ ১৫ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ২৯৩ কোটি ৬৮ লাখ ১৬ হাজার টাকা।

এদিকে দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ব্রড ইনডেক্স সিএসইএক্স ২৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১১ হাজার ৭০৬ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৪১টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১১৮টির কমেছে ৯৮টির ও দর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৫টির। যা টাকায় লেনদেন হয়েছে ৫৪ কোটি ৭৫ লাখ ৪১ হাজার টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.