আজ: মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২ইং, ১৯শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৬ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৮ জানুয়ারী ২০১৮, বৃহস্পতিবার |


kidarkar

বীমা খাতে আসছে নতুন তিন বিধিমালা


শেয়ারবাজার রিপোর্ট: বীমা খাতে স্বচ্ছতা ফিরাতে নতুন তিন বিধি ও প্রবিধানমালা আনছে বীমা নিয়ন্ত্রন সংস্থা বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)। গত ৪ জানুয়ারি খসড়া বিধিগুলোর বিষয়ে মতামত জানতে চেয়ে বীমা কোম্পানিগুলোকে চিঠি দিয়েছে আইডিআরএ।

নতুন বিধিমালাগুলো হলো- ‘বীমা কোম্পানির পরিচালক নির্বাচন বিধিমালা ২০১৮’, ‘বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (বিশেষ নিরীক্ষার কার্যক্ষেত্র) প্রবিধানমালা ২০১৮’ এবং ‘বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (অ্যাকচুয়ারির যোগ্যতা, দায়িত্ব ও কর্তব্য) প্রবিধানমালা ২০১৮’।  আইডিআরএ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ব্যাংকিং খাতে পরিচালক নিয়োগে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন নিতে হয়। নিয়ন্ত্রক সংস্থা ন্যূনতম যোগ্যতার ভিত্তিতে ব্যাংকগুলোকে পরিচালক নিয়োগের অনুমোদন দেয়। তবে বীমা খাতে পরিচালক নিয়োগে কোনো বিধি এখন পর্যন্ত নেই। অযোগ্য ও অদক্ষ অনেক পরিচালকের অধীনেই চলছে এ খাতের অনেক কোম্পানির কার্যক্রম। গোপনে অনেক নতুন বীমা কোম্পানির মালিকানা বিক্রি হয়ে গেলেও এ বিষয়ে অন্ধকারেই থাকছে আইডিআরএ। এসব প্রবণতা বন্ধ করে পরিচালক নির্বাচনে স্বচ্ছতা আনার লক্ষ্যে এ সংক্রান্ত বিধিমালাটি প্রণয়ন করছে আইডিআরএ।

নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের প্রস্তাবিত পরিচালক নির্বাচন বিধিমালার ‘নির্বাচন ও পরিচালকের সংখ্যার সীমাবদ্ধতা’ অংশে বলা হয়েছে, অন্য কোনোভাবে অযোগ্য না হলে ১০ হাজার টাকার শেয়ার ধারণ করেন এমন ব্যক্তি বীমা কোম্পানির পরিচালক হতে পারবেন। কোনো শেয়ারহোল্ডারের ভোটের অধিকার শেয়ারহোল্ডারদের মোট ভোটের ৫ শতাংশের বেশি হবে না।

এ বিধিমালায় আরো বলা হয়েছে, শেয়ারহোল্ডারদের সভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ ধরনের সভা সাধারণত কোম্পানির প্রধান কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে, তবে পর্যাপ্ত জায়গা না থাকলে তা কাছাকাছি অন্য কোথাও হতে পারে। নির্বাচনের তারিখ, সময়, স্থান ও অন্যান্য বিষয় এবং পরিচালকের সংখ্যা নির্বাচনের ৬০ দিন আগে দুটি জাতীয় দৈনিকে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে প্রকাশ করতে হবে। নির্বাচনী সভা কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ও লিখিতভাবে মনোনীত যেকোনো পরিচালকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হবে।

গত বছরের জানুয়ারিতে কয়েকটি কোম্পানির আপত্তির মুখে বীমা কোম্পানিগুলোর বিশেষ নিরীক্ষা কার্যক্রম স্থগিত করে মন্ত্রণালয়। এরপর এক বছর ধরে নিরীক্ষা ছাড়াই চলছে বীমা কোম্পানিগুলোর কার্যক্রম। এ অবস্থায় বিশেষ নিরীক্ষা কার্যক্রমে পরিচালকদের হস্তক্ষেপ বন্ধে এ সংক্রান্ত নতুন প্রবিধান চূড়ান্ত করতে যাচ্ছে নিয়ন্ত্রণ সংস্থা।

প্রস্তাবিত বিধিতে বিশেষ নিরীক্ষার কার্যপরিধির বিষয়ে বলা হয়েছে, বীমা আইন-২০১০-এর ৯ ধারায় কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রবিধি-৪ মোতাবেক এক বা একাধিক নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সময় সময় বিশেষ নিরীক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করা যাবে। বীমাগ্রহীতাদের মুনাফা বণ্টন, বীমা কোম্পানির লভ্যাংশ ও বোনাস প্রদানে বিধিনিষেধ, পরিচালনা পর্ষদ গঠন ও কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ, বর্ণিত পারিশ্রমিক প্রদানের যৌক্তিকতা ইত্যাদি বিষয় নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের কাছে উপস্থাপন করবে নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠান।

বিশেষ নিরীক্ষকের নিয়োগ বিষয়ে বলা হয়েছে, নিয়োগপ্রাপ্ত নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠানে দুইয়ের বেশি অভিজ্ঞ পার্টনার থাকতে হবে। নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠান আইসিএবি কর্তৃক বা অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠান নিয়ন্ত্রণ সংস্থা যেমন— বাংলাদেশ ব্যাংক, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন কর্তৃক ‘এ’ রেটিংধারী হতে হবে। নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠানের কোনো পার্টনার বীমা প্রতিষ্ঠানের উদ্যোক্তা, পরিচালক, উপদেষ্টা বা কোনো লাভজনক দায়িত্বে সম্পৃক্ত থাকতে পারবেন না। এছাড়া বীমা প্রতিষ্ঠানের নিরীক্ষা কাজে ন্যূনতম ১৫ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠানের।

অ্যাকচুয়ারির যোগ্যতা, দায়িত্ব ও কর্তব্যসংক্রান্ত প্রবিধানমালায় অ্যাকচুয়ারির যোগ্যতা অংশে বলা হয়েছে, কর্তৃপক্ষ অনুমোদিত যেকোনো পেশাগত অ্যাকচুরিয়াল সংস্থার একজন সদস্য অ্যাকচুয়ারি হতে পারবেন। তবে তার সংশ্লিষ্ট অ্যাকচুরিয়াল বিষয়ে কমপক্ষে পাঁচ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। অনাবাসিক অ্যাকচুয়ারি হলে কর্তৃপক্ষের অনুমোদন নিতে হবে, সেই সঙ্গে জুড়ে দেয়া হবে কিছু নিষেধাজ্ঞা ও শর্ত। একজন অ্যাকচুয়ারি কোনো বীমা কোম্পানির উদ্যোক্তা, শেয়ারহোল্ডার পরিচালক, উপদেষ্টা, পরিচালক বা মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা হতে পারবেন না। এছাড়া ঋণ বা কর-খেলাপি নন, রাষ্ট্রীয় কোনো শৃঙ্খলাবিরোধী কার্যকলাপে জড়িত নন ও দেশের কোনো আদালতে কোনো অপরাধের জন্য দণ্ডিত নন— এমন একজনই অ্যাকচুয়ারি হিসেবে নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের অনুমোদন পাবেন। প্রস্তাবিত বিধিতে অ্যাকচুয়ারির ক্ষমতা, দায়িত্ব ও কর্তব্যগুলোও স্পষ্ট করে উল্লেখ করা হয়েছে।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/এম.আর


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.